This Article is From Jan 02, 2020

সাইরাস মিস্ত্রিকে পুনর্বহালের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে Tata Sons

তিন বছর আগে নাটকীয় ভাবে সাইরাসকে সরিয়ে দেয় বোর্ড। অন্তর্বর্তী চেয়ারম্যান হন রতন টাটা।

সাইরাস মিস্ত্রিকে পুনর্বহালের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে Tata Sons

২০১৬ সালের অক্টোবরে সাইরাস মিস্ত্রিকে চেয়ারম্যানের পদ থেকে সরিয়ে দেয় টাটা সন্স।

নয়াদিল্লি:

সাইরাস মিস্ত্রিকে (Cyrus Mistry) টাটা গ্রুপের এগজিকিউটিভ চেয়ারম্যান পদে পুনর্বহালের (Reappointment Of Cyrus Mistry) রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বৃহস্পতিবার শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হল টাটা সন্স (Tata Sons)। গত ১৮ ডিসেম্বর ন্যাশনাল ল অ্যাপেলেট ট্রাইব্যুনাল (এনসিএলএটি) সংস্থার চেয়ারম্যান হিসাবে সাইরাস মিস্ত্রিকে পুনর্বহালের রায় দেয়। এবার সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে টাটা সন্স। তিন বছর আগে নাটকীয় ভাবে সাইরাসকে সরিয়ে দেয় বোর্ড। রতন টাটা অন্তর্বর্তী চেয়ারম্যান হন। টাটা সন্স-এর তরফে দায়ের করা পিটিশনে এনসিএলএটি-র রায়ের উপরে স্থগিতাদেশ জারির আর্জি জানানো হয়েছে। গত মাসে এনসিএলএটি-র দুই বিচারকের প্যানেল জানিয়েছিল সাইরাস মিস্ত্রিকে সরানোর সিদ্ধান্ত ছিল বেআইনি। বেঞ্চের তরফে এও বলা হয় রতন টাটার পদক্ষেপ দমনমূলক।

পদ হারানোর পরে সাইরাস মিস্ত্রি আইনের দ্বারস্থ হন। আদালত এন চন্দ্রশেখরনকে সাইরাসের স্থলাভিষিক্ত করার পদক্ষেপকেও অবৈধ ঘোষণা করে।

গত বছরের জুলাই মাসে এনসিএলটি সাইরাসের আবেদনকে নাকচ করে দিয়েছিল। এরপর তিনি এনসিএলএটি-র দ্বারস্থ হন।  

২০১৬ সালের অক্টোবরে সাইরাস মিস্ত্রিকে চেয়ারম্যানের পদ থেকে সরিয়ে দেয় টাটা সন্স। সংস্থার অন্তর্বর্তী চেয়ারম্যান হন রতন টাটা। ২০১৬-র ডিসেম্বরে টাটা সন্সের ডিরেক্টরের পদ থেকেও পদত্যাগ করেন সাইরাস মিস্ত্রি। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে এন চন্দ্রশেখরনকে চেয়ারম্যান করা হয়। পরের মাসেই মিস্ত্রিকে টাটা সন্স-এর বোর্ডের ডিরেক্টর পদ থেকেও সরিয়ে দেওয়া হয়।

বর্তমানে শাপুরজি পালুনজি অ্যান্ড কোম্পানি-তে ম্যানেজিং ডিরেক্টরের পদে রয়েছেন সাইরাস। তিনি টাটা সন্স-এ যোগ দেন ২০০৬ সালে। ২০১১ সালের নভেম্বরে তিনি ডেপুটি চেয়ারম্যান হন।