This Article is From May 31, 2020

এবার তামিলনাডুতে পঙ্গপাল আতঙ্ক! কৃষকদের আশ্বস্ত করল রাজ্য সরকার

রাজ্যের রাজস্বমন্ত্রী আরবি উদয়কুমার শনিবার কৃষকদের আশ্বস্ত করে জানিয়েছেন, কৃষি দফতরকে পঙ্গপালকে দমন‌ করার নির্দেশ দিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এবার তামিলনাডুতে পঙ্গপাল আতঙ্ক! কৃষকদের আশ্বস্ত করল রাজ্য সরকার

কৃষকদের দাবি, পঙ্গপাল তাঁদের ফসল ধ্বংস করবে। (প্রতীকী)

চেন্নাই:

গত কয়েক দিন ধরেই পঙ্গপালের ঝাঁকের হানায় আতঙ্কিত ভারত। এবার সেই আতঙ্কের দেখা মিলল তামিলনাডুতে। সেখানকার কলাগাছ, রবার ও অন্যান্য শস্যক্ষেতে দেখা গিয়েছে পঙ্গপাল গোত্রীয় পতঙ্গের ঝাঁককে। স্বাভাবিক ভাবেই আতঙ্কিত সেখানকার কৃষকরা। যদিও রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে কৃষি দফতরকে পঙ্গপাল দমন‌ করার নির্দেশ দিয়ে দেওয়া হয়েছে। পঙ্গপালের আতঙ্ক এমন চেহারা নিয়েছে যে গত কয়েক দিনে কফি গ্রাসহপার, বম্বে লোকাস্ট জাতীয় ওই গোত্রীয় পতঙ্গদেরও ভুল করে পঙ্গপাল মনে করার মতো ঘটনাও ঘটেছে। এরই মধ্যে কেরল সংলগ্ন তামিলনাডুর কন্যাকুমারী জেলার পুভোনকডু ও ভিয়ানুর অঞ্চলের কৃষকরা জানিয়েছেন, পঙ্গপাল সেখানে এসে কলা ও রবার ক্ষেতে হামলা চালিয়েছে।

রাজ্যের রাজস্বমন্ত্রী আরবি উদয়কুমার শনিবার কৃষকদের আশ্বস্ত করে জানিয়েছেন, কৃষি দফতরকে পঙ্গপালকে দমন‌ করার নির্দেশ দিয়ে দেওয়া হয়েছে।

গত শুক্রবার উধাগামান্ডালামের খান্ডালে এক কৃষক লক্ষ করেন একটি পতঙ্গকে। যেটাকে দেখে তিনি পঙ্গপাল বলে চিহ্নিত করেন। কয়েকটি পতঙ্গকে ধরে তিনি জেলা প্রশাসনকে খবর দেন। যদিও নীলগিরির কালেক্টর ইনোসেন্ট দিব্যা বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করে কৃষকদের জানিয়েছেন, ওগুলি মোটেই পঙ্গপাল নয়।

এদিকে ডিএমকে সভাপতি এমকে স্টালিন রাজ্য সরকারের কাছে আর্জি জানিয়েছেন, এই বিষয়টিতে যেন দ্রুত নিষ্পত্তি করা হয়।

তিনি এক বিবৃতিতে বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোখার ক্ষেত্রে যেমন বিলম্ব হয়েছিল, তেমন যেন এক্ষেত্রে না করা হয়।

তাঁরই দলের বিধায়ক টি মনোথঙ্গরাজ কর্তৃপক্ষের কাছে আর্জি জানিয়েছেন রাজ্যের শস্যকে রক্ষা করার জন্য। তবে তিনি এও আর্জি জানিয়েছেন, যেন রাসায়নিক স্প্রে না করা হয় পঙ্গপালদের দমন করতে।