সুশান্ত সিং আত্মহত্যা তদন্ত: বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর বয়ান রেকর্ড মুম্বই পুলিশের

জানা গিয়েছে, তাঁর বাড়ির রাঁধুনি, আবাসনের কেয়ারটেকার আর ম্যানেজারের বয়ান নথিভুক্ত করা হয়েছে

সুশান্ত সিং আত্মহত্যা তদন্ত: বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর বয়ান রেকর্ড মুম্বই পুলিশের

বান্দ্রা থানায় বয়ান দিলেন সুশান্ত সিং রাজপুতের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী।

হাইলাইটস

  • সুশান্ত সিং আত্মহত্যা তদন্তে বয়ান রেকর্ড রিয়া চক্রবর্তীর
  • মোট দশ জনের বয়ান রেকর্ড হয়েছে: মুম্বই পুলিশ
  • পরিবার, বন্ধু ও পরিচালকদের বয়ান রেকর্ড হয়েছে: পুলিশ
মুম্বই:

বৃহস্পতিবার সকালে বান্দ্রা থানায় গিয়ে বয়ান দিলেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী (Sushant's girl friend Rhea Chakraborty)। সুশান্ত সিং রাজপুত আত্মহত্যা-কাণ্ডে (Sushant Singh suicide case) তাঁর বয়ান রেকর্ড করল মুম্বই পুলিশ। জানা গিয়েছে, এখনও পর্যন্ত ১০ জনের বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। বন্ধু, পরিবার ও পরিচারক মিলিয়ে এই দশ জনের বয়ান তদন্তে গুরুত্বপূর্ণ। এমনটা জানিয়েছে, মুম্বই পুলিশ (Statement Recorded By Mumbai Police) বুধবার বয়ান নথিভুক্ত করা হয়েছে বলিউডের অন্যতম কাস্টিং ডিরেক্টর মুকেশ ছাবরার। সুশান্ত ঘনিষ্ঠ মুখোশের দাবি, "মৃত অভিনেতার সঙ্গে পেশাগত কোনও শত্রুতার খবর আমার কাছে ছিল না। আর সেটাই আমি পুলিশকে বলেছি।"  সংবাদমাধ্যমকে মুকেশ জানান, অত্যন্ত প্রতিভাবান অভিনেতা ও আত্মকেন্দ্রিক মানুষ  ছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত। মুম্বই পুলিশ জানিয়েছে, মৃত অভিনেতার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ ছিল এমন সবার বয়ান নথিভুক্ত করা হবে। যদিও সুশান্তের শোকাহত বাবার দাবি, "ছেলের ক্লিনিকাল ডিপ্রেশনের ব্যাপারে কিছুই জানতেন না।"

জানা গিয়েছে, তাঁর বাড়ির রাঁধুনি, আবাসনের কেয়ারটেকার আর ম্যানেজারের বয়ান নথিভুক্ত করা হয়েছে। ইতিমধ্যে এই অভিনেতার আত্মহত্যার পর দেশব্যাপী শুরু হয়েছে হৈচৈ। নেপোটিজম বা স্বজনপোষণের অভিযোগ তুলে বলিউডের একাংশকে কাঠগড়ায় তোলা হয়েছে। সেই প্রেক্ষিতে মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ বলেছেন, "ময়না তদন্তে আত্মহত্যার উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু সংবাদমাধ্যমের একাংশ প্রচার করেছে পেশাগত বিরোধের জেরে ক্লিনিকাল ডিপ্রেশনে ছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত। মুম্বই পুলিশ এই দিকটাও খতিয়ে দেখবে।"

অন্যদিকে মুখ খুলেন জিয়া খানের মা, যেন উঠে আসতে চাইছে আর এক  মৃত্যু রহস্য।জিয়া খানের মা রাবিয়া আমিন সম্প্রতি একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। তাঁর মতে সূরজ পাঞ্চালিকে বাঁচানোর জন্য সলমান খান নিজের ক্ষমতার ব্যবহার করেছেন। বর্তমানে নেট বিশ্বে ভাইরাল সেই ভিডিও।

জিয়ার মা এই ভিডিও-তে সবার আগে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর জন্য শোক প্রকাশ করেছেন, আর তারপরেই তিনি বলেছেন বলিউডে এই 'দাদাগিরি'-র বিরুদ্ধে এবার পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালে মাত্র ২৫ বছর বয়সেই এই পৃথিবী ছেড়ে চলে গেছিলেন জিয়া খান, পুলিশের কথা অনুসারে সেটা ছিল আত্মহত্যা। ভিডিও-তে রাবিয়া খান বলেছেন, ''এবার বলিউড-কে সজাগ হতে হবে।বলিউডের এই 'দাদাগিরি'র অবসান হয় উচিত।এই 'দাদাগিরি' কাউকে মারার চাইতে কোনও অংশে কম কিছু না। আজ যা হচ্ছে, তা দেখে আমার ২০১৫-র কথা মনে পড়ে যাচ্ছে। লন্ডন থেকে এক সিবিআই অফিসার আমাকে ডেকে পাঠান। আমি তার সঙ্গে দেখা করতে গেলে বলেন, ''আপনি আসুন, আমার একটা গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণ পেয়েছি।' আমি সেখানে গেলে তিনি বলেন, ''সলমান খান আমাকে ফোন করেছিলেন। উনি প্রতিদিনই আমাকে ফোন করছেন আর বলছেন, উনি অনেক পয়সা খরচ করেছেন।দয়া করে এই ছেলেটাকে (সুরজ পাঞ্চালি) আর বিরক্ত করবেন না, ওকে আর জিজ্ঞাসাবাদ করারও প্রয়োজন নেই।ওকে ছোঁয়ার কথাই ভুলে যান।এবার বলুন আমার কী করব ম্যাডাম।'