জন নিরাপত্তা আইনের আওতায় আরও বাড়ল ফারুক আবদুল্লার আটকের মেয়াদ

Article 370: ৫ অগাস্ট থেকে আটক রয়েছেন ওই নেতা, ওই সময়েই Jammu and Kashmir থেকে ৩৭০ ধারা রদ করে সে রাজ্যের বিশেষ মর্যাদা অবলুপ্ত করা হয়

Public Safety Act: গত ৫ অগাস্ট থেকে শ্রীনগরে নিজের বাড়িতে আটক রয়েছেন ফারুক আবদুল্লা

হাইলাইটস

  • আরও ৩ মাস আটক থাকতে হবে ন্যাশনাল কনফারেন্স প্রধান ফারুক আবদুল্লাকে
  • ৫ অগাস্ট থেকে তাঁকে গৃহবন্দি রেখেছে জম্মু ও কাশ্মীরের প্রশাসন
  • জন নিরাপত্তা আইনেই আটক করে রাখা হয়েছে ফারুক আবদুল্লাকে
শ্রীনগর:

না, এখনই মুক্তির আলো দেখতে পাবেন না ফারুক আবদুল্লা, বরং আপাতত আরও ৩ মাস ঘরবন্দিই থাকতে হবে ন্যাশনাল কনফারেন্সের ওই নেতাকে (Farooq Abdullah)। কঠোর জন নিরাপত্তা আইন বা পিএসএ-র (Public Safety Act) আওতায় জম্মু ও কাশ্মীরের নেতার আটকের মেয়াদ আরও ৩ মাস বাড়ানো হল। এর আগে ভূস্বর্গে (Jammu and Kashmir) ৩ বার মুখ্যমন্ত্রী হন তিনি, সেই তাঁকেই গত ৫ অগাস্ট থেকে শ্রীনগরে নিজের বাড়িতে আটক রাখার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। ওই সময়েই জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা (Article 370) রদ করে সে রাজ্যের বিশেষ মর্যাদা অবলুপ্ত করা হয় এবং ওই রাজ্যটিকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করা হয়। এই মাসের শুরুর দিকে, সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে তাকে অংশ নিতে না দেওয়ায় একটি চিঠিতে ফারুক আবদুল্লাহ কেন্দ্রের তীব্র সমালোচনা করেন। ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতার ওই চিঠিটি শেয়ার করেন কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর।  

আবদুল্লা তাঁর চিঠিতে লেখেন, ‘‘আপনার চিঠির জন্য ধন্যবাদ, যেটা আপনি আমাকে ২১ অক্টোবর ২০১৯-এ পাঠিয়েছিলেন। আমাকে আজ এই চিঠি আমার ম্যাজিস্ট্রেট দিয়েছেন যিনি আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন সাব-জেলে। এটা দুর্ভাগ্যজনক যে ওঁরা আমাকে সময়ে এই চিঠিটি দেননি। আমি নিশ্চিত এটা সংসদের একজন বর্ষীয়ান সদস্য এবং এক রাজনৈতিক নেতার সঙ্গে সঠিক আচরণ নয়। আমরা অপরাধী নই।''

‘‘আমরা অপরাধী নই'': ফারুক আবদুল্লার চিঠি শেয়ার করলেন শশী থারুর

জননিরাপত্তা আইন অনুসারে, কোনও ব্যক্তিকে বিনা বিচারে দুই বছর পর্যন্ত আটকে রাখা যায়।

শশী থারুর ফারুক আবদুল্লার লেখা চিঠি টুইট করার পাশাপাশি লেখেন, ‘‘বন্দি ফারুক সাহেবের চিঠি। সংসদের সদস্যকে অধিবেশনে আসার অনুমতি দেওয়া উচিত দেওয়া উচিত, এটা সংসদীয় অধিকার। অন্যথায় এই গ্রেফতারিকে বিরোধীদের কণ্ঠস্বর রদ করার প্রয়াস হিসেবে দেখা হতে পারে। সংসদে যোগ দেওয়া গণতন্ত্র ও জনপ্রিয় সার্বভৌমত্বের জন্য আবশ্যক।''

এদিকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইটারে এই পদক্ষেপের সমালোচনা করেন এবং এই পদক্ষেপকে  "অসাংবিধানিক" বলেছেন:

মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সংসদে বলেন যে জম্মু ও কাশ্মীরে আটক রাজনৈতিক নেতাদের মুক্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে স্থানীয় প্রশাসন এবং সেখানে "কেন্দ্র কোনও হস্তক্ষেপ" করবে না।

ফারুক আবদুল্লাকে জন্মদিনের উপহার, 'কঠিন সময়ে' পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রীর

এদিকে সংসদে অন্যতম বিরোধী দল কংগ্রেস জম্মু ও কাশ্মীরে দীর্ঘ সময় ধরে সেখানকার রাজনৈতিক নেতাদের আটক থাকার বিষয়টি উত্থাপন করে অভিযোগ করে যে কেন্দ্র ফারুক আবদুল্লার মুখ বন্ধ রাখতেই তাঁকে মুক্তি দিচ্ছে না।

দেখুন এই ভিডিও: