This Article is From Jun 04, 2020

রাজ্যসভা ভোটের আগে কংগ্রেসে অশনি সঙ্কেত! ইস্তফা দিলেন আরও ২ দলীয় বিধায়ক

ইতিমধ্যে বিক্ষুব্ধ কংগ্রেস বিধায়কদের পাশে পেতে প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা নরহরি আমিনকে প্রার্থী করেছে গেরুয়া শিবির

রাজ্যসভা ভোটের আগে কংগ্রেসে অশনি সঙ্কেত! ইস্তফা দিলেন আরও ২ দলীয় বিধায়ক

দল ভাঙানোর অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে তুলেছে কংগ্রেস।

হাইলাইটস

  • গুজরাতে একটি রাজ্যসভা আসনে জিততে প্রার্থীপিছু ৩৪ জনের সমর্থন লাগে
  • বিধায়ক সংখ্যার বিচারে বিজেপির দুটি আসন নিশ্চিত, কংগ্রেসের নিশ্চিত একটি
  • ১৯ জুন রাজ্যের ৪টি রাজ্যসভা আসনে ভোটগ্রহণ
নয়াদিল্লি:

১৯ জুন গুজরাতের ৪টি রাজ্যসভা (Rajya Sava Elelction in Gujrat) আসনে ভোটগ্রহণ। তার আগে কংগ্রেসকে উদ্বেগে রেখে দুই কংগ্রেস বিধায়ক ইস্তফা দিলেন (Resignation of Congress MLAs)। বৃহস্পতিবার গুজরাত বিধানসভার অধ্যক্ষ রাজেন্দ্র ত্রিবেদী এই খবর নিশ্চিত করেছেন। ইতিমধ্যে গত ৩ মাসে দলের ৫ বিধায়ক ইস্তফা দিয়েছেন। জিতু চৌধুরী আর অক্ষয় প্যাটেলের ইস্তফা ধরলে মোট ৭ বিধায়ক হারালো কংগ্রেস। এই হিসেবে দলের মোট বিধায়ক সংখ্যা দাঁড়াল ৫৯!  জানা গিয়েছে, গুজরাতে একটি রাজ্যসভা আসন জিততে প্রার্থীপিছু ৩৪ জন বিধায়কের সমর্থন লাগে। সেই হিসেবে ৪টি আসনের মধ্যে কংগ্রেসের একটি আসন নিশ্চিত। অন্যদিকে ১০৩ জন বিধায়ক রয়েছেন বিজেপির (BJP)। অন্তত দুটি আসন তাদের পক্ষে যাবেই, এমনটা দাবি বিশেষজ্ঞদের। ফলে ৪ নম্বর আসনটি বের করার ক্ষেত্রে বিজেপি-কংগ্রেস হাড্ডাহাড্ডি হলেও অনেকটা পিছিয়ে শতাব্দী প্রাচীন দল। ইতিমধ্যে বিক্ষুব্ধ কংগ্রেস বিধায়কদের পাশে পেতে প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা নরহরি আমিনকে প্রার্থী করেছে গেরুয়া শিবির। 

এদিন, বিধানসভার অধ্যক্ষ বলেছেন, "কংগ্রেস বিধায়ক জিতু চৌধুরী ও অক্ষয় প্যাটেলের ইস্তফা গ্রহণ করেছি। সংবিধান মেনে ১৯ জুনের নির্বাচনে ভোটদান থেকে ওই দুজন বিরত থাকবেন।" বিজেপি সূত্রে খবর, নরহরি আমিন ছাড়াও, বাকি দুটি আসনে তারা অভয় ভরদ্বাজ, রামিলাবেন বরাকে প্রার্থী করেছে।

দুটি আসনের জন্য কংগ্রেসের প্রার্থী শক্তিসিং গোহিল এবং ভরতসিন সোলাঙ্কি। জানা গিয়েছে, গুজরাতে প্রবল বিজেপি-বিরোধী মুখ শক্তিসিং গোহিলকে জেতাতে অলআউট ঝাঁপাবে কংগ্রেস। সেক্ষেতে ভরতসিনের আসনটা সরু সুতর ওপর ঝুলে। এমনটাই কংগ্রেস সূত্রে খবর।