‘‘মেহবুবা মুফতি, আবদুল্লাহদের দ্রুত মুক্তির জন্য প্রার্থনা করছি’’: রাজনাথ সিংহ

মোদি সরকার জম্মু ও কাশ্মীরকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করার পরই প্রতিরোধমূলক গ্রেফতারির সময় আটক করা হয় সেখানকার বহু রাজনীতিবিদকে।

জম্মু ও কাশ্মীরকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করার পরই গ্রেফতার করা হয় ফারুক ও ওমর আবদুল্লাহকে।

হাইলাইটস

  • জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীদের মুক্তি নিয়ে বক্তব্য রাজনাথের
  • জানালেন তিনি প্রার্থনা করছেন তাঁদের মুক্তির জন্য
  • গত ৫ আগস্ট থেকে আটক রয়েছেন তাঁরা
নয়াদিল্লি:

তিনি জম্মু ও কাশ্মীরের (J&K) প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীদের মুক্তির জন্য প্রার্থনা করছেন বলে জানালেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ (Rajnath Singh)। পাশাপাশি রাজনাথ আশাপ্রকাশ করেন তাঁরা কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার প্রক্রিয়ায় অবদানও রাখবেন। গত বছরের ৫ আগস্ট মোদি সরকার (Modi Goverment) জম্মু ও কাশ্মীরকে দু'টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করার পরই প্রতিরোধমূলক গ্রেফতারির সময় আটক করা হয় সেখানকার বহু রাজনীতিবিদকে। তাঁদের মধ্যে অন্যতম তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী— ফারুক আবদুল্লাহ, তাঁর পুত্র ওমর আবদুল্লাহ এবং মেহবুবা মুফতি। বহু রাজনীতিবিদকে মুক্তি দেওয়া হলেও এখনও অনেক রাজনীতিবিদের সঙ্গে আটক রয়েছেন ওই তিনজন।

যাদের ইতিহাস পড়ার ধৈর্য নেই তাঁরাই নেহেরুকে খলনায়ক বানাচ্ছেন: মনমোহন সিং

ফারুক আবদুল্লাহকে এবং ওমর আবদুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতিকেও আটক করা হয়েছে জন নিরাপত্তা আইনে।

সংবাদ সংস্থা আইএএনএস-কে দেওয়া এক এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে রাজনাথ ব‌লেন, ‘‘কাশ্মীর শান্তিপূর্ণ। পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে দ্রুত। উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে এই সিদ্ধান্তগুলিও (আটক রাজনীতিবিদদের মুক্তি) চূড়ান্ত করা হবে। সরকার কারও উপরে অত্যাচার করেনি।''

সরকারের সিদ্ধান্তের কথা বলতে গিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, কাশ্মীরের স্বার্থেই ওই সিদ্ধান্তগুলি নেওয়া হয়েছিল। তিনি বলেন, ‘‘সকলের উচিত এটাকে স্বাগত জানানো।''

তিনি আরও বলেন, ‘‘আমি আরও প্রার্থনা করি একবার ওঁরা মুক্ত হলে কাশ্মীরের পরিস্থিতির উন্নতির জন্য ওঁরা কাজ করবেন এবং অবদান রাখবেন।''