"করোনা আবহে জামিন পাক ভারভারা-সাফুরা", আবেদন সৌমিত্র-অপর্ণা-সহ বিশিষ্টজনের

গত কয়েক বছর ধরে একাধিক মামলায় বাম মনোভাবাপন্ন সমাজকর্মী ভারভারা রাও, গৌতম নওলখা, সোমা সেন, সুধা ভরদ্বাজ-সহ ১১ জনকে জেলবন্দী রাখা হয়েছে

নয়াদিল্লি:

এই মহামারীর (Covid-19) আবহে অবিলম্বে জামিনে মুক্তি দেওয়া হোক ভারভারা রাও, সাফুরা জারগর-সহ অন্যদের। এই দাবিতে দেশের ৫০০ জন বিশিষ্ট মানুষ চিঠি লিখলেন কেন্দ্রীয় সরকারকে। এই ৫০০ জনের তালিকায় নাম রয়েছে, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, অপর্ণা সেন, আদুর গোপালকৃষ্ণণ-সহ অন্যদের। গত কয়েক বছর ধরে একাধিক মামলায় বাম মনোভাবাপন্ন সমাজকর্মী ভারভারা রাও (Varvara Rao) , গৌতম নওয়ালখা (Gautam Navalkha), সুধা ভরদ্বাজ-সহ ১১ জনকে জেলবন্দী রাখা হয়েছে। যে তালিকায় সাম্প্রতিক সংযোজন সাফুরা জারগর (Safoora Zargar) এবং অখিল গগৈ। সিএএ-বিরোধী (Anti-CAA protest) প্রতিবাদের অভিযুক্ত হিসেবে সন্তানসম্ভবা এই তরুণী জেলবন্দী। এদিকে, জানা গিয়েছে জেলবন্দী এই সমাজকর্মীদের মধ্যে অধিকাংশ মহারাষ্ট্রের এক জেলে বন্দী। সেই জেলে সাম্প্রতিক কালে আবার করোনা সংক্রমণে সহবন্দির মৃত্যুর খবর মিলেছে। তাই সেই আশঙ্কার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বিশিষ্টজনের তরফে এই চিঠি পাঠানো হয়েছে।

 ইন্ডিয়ান কালচারাল ফোরাম প্ল্যাটফর্মের তরফে ১৬ জুন সেই চিঠি পাঠানো হয়েছে। দিনকয়েক আগে সন্তানসম্ভবা সাফুরা জারগারের জামিন না মঞ্জুর হয়েছে আদালতে। সেই বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিশিষ্টজনেরা। তবে শুধু সফুরা জারগর নয় অসমের মানবাধিকার কর্মী অখিল গগৈয়ের জামিনও খারিজ হয়েছে। জারগরের বিরুদ্ধে ইউএপিএ আইন লাগু। সেই চিঠিতে সই আছে বাংলার ২০জন বিশিষ্টজন-সহ আদুর গোপালকৃষ্ণণ, অমল পালেকর, নন্দিতা দাশ, নাসিরুদ্দিন শাহ, অনুরাগ কাশ্যপেরও। সেই চিঠিতে উল্লেখ, "অসম সরকারের মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলে গ্রেপ্তার অখিল গগৈ। আর জামিয়া মিলিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া সন্তানসম্ভবা সাফুরা জারগরকে সিএএ-বিরোধী আন্দোলনের প্রতিবাদী হিসেবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)