This Article is From Jan 03, 2020

ভারতকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করছে সিএএ: প্রাক্তন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা

CAA ভারতের আত্মঘাতী 'কূটনৈতিক' গোল। শুক্রবার এ ভাষাতেই সিএএ'র সমালোচনা করলেন প্রাক্তন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা (NSA) শিবশঙ্কর মেনন।

ভারতকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করছে সিএএ: প্রাক্তন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা

বিশ্ব থেকে ভারতকে পৃথক করছে CAA; সমালোচনা করলেন প্রাক্তন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা শিবশঙ্কর মেননের

হাইলাইটস

  • সিএএ ভারতের আত্মঘাতী 'কূটনৈতিক' গোল
  • শুক্রবার এ ভাষাতেই সিএএ'র সমালোচনা করলেন শিবশঙ্কর মেনন
  • প্রাক্তন এই এনএসএ বলেছেন, বিশ্ব থেকে ভারতকে বিচ্ছিন্ন করছে সিএএ
নয়াদিল্লি:

CAA ভারতের আত্মঘাতী 'কূটনৈতিক' গোল (self-inflicted diplomatic goal)! শুক্রবার এ ভাষাতেই CAA-র সমালোচনা করলেন প্রাক্তন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা (NSA) শিবশঙ্কর মেনন। প্রাক্তন এই এনএসএ এদিন দিল্লিতে এক অনুষ্ঠানে বলেছেন, বিশ্ব থেকে ভারতকে বিচ্ছিন্ন (isolate) করছে সিএএ। সরকারকে সতর্ক করে তাঁর দাবি, "আমরা ভারতের ভাবনা পরিবর্তন করছি। তাহলে, সেই পরিবর্তন থেকে আসা প্রতিক্রিয়া সামলানোর প্রস্তুতি আমাদেরই নিতে হবে। কারণ একে অপরের পরিপূরক।" আফগানিস্তান, পাকিস্তান আর বাংলাদেশ থেকে আসা সংখ্যালঘু- হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন ক্রিশ্চান আর পার্সি- সম্প্রদায় এই আইনে ভারতে নাগরিকত্ব পাবে। যদি  ২০১৫ সালের আগে তারা এদেশে উদ্বাস্তু হয়ে এসে থাকেন আর যদি তারা সেই রাষ্ট্রগুলিতে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার শিকার হন তাহলেই এই আইন সে সব সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে অতি দ্রুত ভারতীয় নাগরিকত্ব দেবে।

"আপনি প্রধানমন্ত্রী নাকি পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত?": শিলিগুড়িতে মোদিকে প্রশ্ন মমতার

যদিও সিএএ,  মুসলিমদের সেই সুযোগ গ্রহণের থেকে বিরত রেখেছে। এদিকে, এদিনই দিল্লির প্রাক্তন লেফটেন্যান্ট গভর্নর (উপ-রাজ্যপাল) তথা জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন সহ-উপাচার্য নাজিব জং পুলিশি অতি সক্রিয়তার সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেন, "একটা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে পুলিশ ঢুকছে, এটা সমর্থনযোগ্য না। সে সময় পড়ুয়ারা যথেষ্ট ধৈর্যের পরীক্ষা দিয়েছেন।" পাশাপাশি সিএএ-বিরোধী আন্দোলনে সমন্বয়ের একটা অভাব আছে, অভিযোগ করেন তিনি। তাঁর বক্তব্য, "সমন্বয়ের অভাব সরকারও স্বীকার করেছে। তাই ওদের সঙ্গে সমন্বয় গড়া হোক।" 

সিএএ: ১১ টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনরাই বিজয়নের

তিনি কি চান এই আইন খারিজ হোক? এই প্রশ্নের জবাবে নাজিব জং বলেন, "আমি চাই দু'পক্ষের মধ্যে একটা সমন্বয় গড়ে উঠুক।" এদিন রাষ্ট্রবিজ্ঞান গবেষক জোয়া হাসান আর সমাজকর্মী হর্ষ মানদেরও দিল্লিতে এই সভায় অংশ নিয়েছিলেন। এই অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তা কারবা-এ-মহব্বত নামে এক সংগঠন।
 

(তথ্যসূত্র: আইএএনএস)



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)