রাজ্যে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন, স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকবে ১০ জুন পর্যন্ত

রাজ্যে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন চলবে। পাশাপাশি রাজ্যের স্কুল-কলেজ সহ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১০ জুন পর্যন্ত বন্ধ থাকবে বল‌েও জানানো হয়েছে।

রাজ্যে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন, স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকবে ১০ জুন পর্যন্ত

শনিবার রাজ্যে নতুন করে ৬ জনের শরীরে মিলেছে করোনা সংক্রমণ।

কলকাতা:

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের পরিস্থিতি দেখে রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানোর ব্যাপারে। জানিয়ে দিয়েছে, রাজ্যে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন চলবে। পাশাপাশি রাজ্যের স্কুল-কলেজ সহ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১০ জুন পর্যন্ত বন্ধ থাকবে বল‌েও জানানো হয়েছে। শনিবার রাজ্যে নতুন করে ৬টি করোনা আক্রান্তের ঘটনা ঘটেছে। এর সঙ্গেই পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছল ১২২-এ। পশ্চিমবঙ্গ ছাড়া মহারাষ্ট্র, ওড়িশা, রাজস্থান, তেলেঙ্গানা ও পঞ্জাবও লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছে।

এদিক কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক রাজ্যে লকডাউনের নিয়ম সেভাবে মানা হচ্ছে না বলে অভিযোগ জানিয়েছে। রাজ্যে ক্রমাগত লকডাউনের পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে বলে অভিযোহ মন্ত্রকের। রাজ্যের লকডাউনের পরিস্থিতি যে ক্রমশই দুর্বল হয়ে পড়ছে, সেই মর্মে রাজ্যের মুখ্য সচিব ও ডিজিপিকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

"জীবন ও জীবিকা দুটোই বাঁচতে হবে", মুখ্যমন্ত্রীদের ইঙ্গিত দিলেন প্রধানমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক আরও জানিয়েছে রাজ্যে অত্যাবশ্যক নয়, তেমন সামগ্রীর দোকানও খোলা থাকছে। পাশাপাশি পুলিশ ধর্মীয় সমাবেশেরও অনুমতি দিচ্ছে। সবজি, মাছ, মাংসের বাজারেও প্রশাসনের কোনও নিয়ন্ত্রণ থাকছে না এবং সেখানে লকডাউনের নিয়ম মানা হচ্ছে না বলে মন্ত্রকের তরফে অভিযোগ করা হয়।

ভারতে এখনও পর্যন্ত কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে ২৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে।আক্রান্ত ৭৫২৯। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে ৭৬৮ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে। মৃত্যু হয়েছে ৩৬ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৬৫৩ জন। 
প্রসঙ্গত, দেশে ২১ দিনের লকডাউন চলছে। যা শেষ হবে ১৪ এপ্রিল। লকডাউনের সময়সীমা বাড়াতে পারেন প্রধানমন্ত্রী।