দিল্লিতে প্রথম! করোনায় মৃত্যু তরুণ পুলিশ কনস্টেবলের

জানা গিয়েছে, প্রয়াত কনস্টেবলের পরিবারে স্ত্রী ও ৩ বছরের এক সন্তান আছে

দিল্লিতে প্রথম! করোনায় মৃত্যু তরুণ পুলিশ কনস্টেবলের

দিল্লি পুলিশের প্রায় ৭০ জন করোনা সংক্রমিত।

নয়া দিল্লি:

করোনা সংক্রমণে প্রথম মৃত্যু দিল্লি পুলিশের এক কনস্টেবলের । জানা গিয়েছে, হরিয়ানার শোনপতের বাসিন্দা বছর ৩১-এর ওই পুলিশকর্মীর নাম আমিত রানা। রাজ্যের রাম মনোহর লোহিয়া হাসপাতালে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মৃত্যু (Due to Corona) হয়েছে তাঁর। জানা গিয়েছে, সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তাঁর দেহে কোনও সংক্রমণ উপসর্গ ছিল না। কিন্তু সেইদিন রাত বাড়ার সঙ্গে পরবল জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। প্রথমে তাঁকে দীপচাঁদ বান্ধি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখান থেকে লোহিয়াতে (RML Hospital) স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানেই তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্রে এমনটাই খবর। হাসপাতালের তরফে তাঁর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল। সেই রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তাঁর সহকর্মীদের স্বেচ্ছায় আইসলেশনে যেতে পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। এই ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে দিল্লি পুলিশের কমিশনার এসএন শ্রীবাস্তব মৃতের পরিবারকে আরথক সাহায্যের কথা ঘোষণা করেছেন। 

টুইটে সেই পুলিশকর্তা লেখেন, "ভরত নগর থানার কনস্টেবল অমিত কুমারের আকস্মিক মৃত্যুতে দিল্লি পুলিশ পরিবার শোকাহত। এই ক্ষতি ঝেড়ে ফেলে এগিয়ে যাক সেই  শোকাহত পরিবার। ভগবানের কাছে এই প্রার্থনা করি। দিল্লি পুলিশের তরফে সবধরনের সাহায্য করা হবে প্রয়াত কনস্টেবলের পরিবারকে।" জানা গিয়েছে, প্রয়াত কনস্টেবলের পরিবারে স্ত্রী ও ৩ বছরের এক সন্তান আছে। এদিকে, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুসারে ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ গিয়েছে ১,৬৯৪ জন মানুষের এবং দেশে এখনও পর্যন্ত ৪৯,৩৯১ টি কোভিড-১৯ পজিটিভ কেস পাওয়া গিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২,৯৫৮ টি নতুন ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছে এবং ১২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

দেশে সফলভাবে এই অসুখের সঙ্গে লড়াই করে সেরে ওঠা রোগীদের সংখ্যা আজ, বুধবার সকালে ২৮.৭১ শতাংশ দাঁড়িয়েছে। এখনও পর্যন্ত মোট ১৪,১৮৩ জন রোগী সুস্থ হয়েছেন। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি অত্যন্ত সংক্রামক এই ভাইরাসের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তৈরি বিশেষ টাস্কফোর্সের একটি সভার সভাপতিত্ব করেন। এই বৈঠকের উদ্দেশ্য ছিল ভ্যাকসিনের বিকাশ, ওষুধ আবিষ্কার, নির্ণয় এবং পরীক্ষার ক্ষেত্রে ভারতের প্রচেষ্টার অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করা। বৈঠকের পরে, সরকারের পক্ষ থেকে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে করোনাভাইরাসের ৩০ টিরও বেশি ভ্যাকসিন বিকাশের বিভিন্ন পর্যায়ে রয়েছে। কয়েকটির ট্রায়ালও চলছে।