৫৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ, আখেরে ভারতের ক্ষতি: চিনা বিদেশ মন্ত্রক

গত মাসেই লাদাখের গালওয়ানে সংঘাতে ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হয়েছেন। তারপরে দ্বিপাক্ষিক স্তরে উত্তেজনা তুঙ্গে।

৫৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ, আখেরে ভারতের ক্ষতি: চিনা বিদেশ মন্ত্রক

৫৯টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার চুক্তি লঙ্ঘন: চিন

হাইলাইটস

  • টিকটক-সহ ৫৯টি চিনা অ্যাপে নিষেধাজ্ঞা ঘিরে সরব বেজিং
  • সীমান্তে শান্তি ফেরাতে একসঙ্গে কাজ করা উচিত: চিনা বিদেশ মন্ত্রক
  • একাধিক সামরিকস্তরে আলোচনাতেও মেলেনি সমাধানসূত্র
নয়াদিল্লি:

প্রধানমন্ত্রীর লাদাখ সফরের দিনেই নড়েচড়ে বসল বেজিং। ৫৯টি চিনা অ্যাপে ভারতীয় নিষেধাজ্ঞা নিয়ে সরব হলেন তাঁরা (China on Apps ban)। কৃত্রিম এই নিষেধাজ্ঞা ভারতের স্বার্থ ক্ষুণ্ণ করবে, শুক্রবার দাবি করেন চিনা বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র। এর আগেও ভারতের এই সিদ্ধান্তকে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (WTO) ঘোষিত চুক্তির পরিপন্থী বলে দাবি করেছিল চিন। এদিন ওই চিনা আধিকারিক বলেন, "সীমান্তে শান্তি ফেরাতে দুই দেশের একসঙ্গে কাজ করা উচিত। চিনা ব্যবসায়ীদের অধিকার ভারতে নিশ্চিত করতে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেবে চিন।" গত মাসেই লাদাখের গালওয়ানে সংঘাতে (Ladakh faceoff) ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহিদ হয়েছেন। তারপরে দ্বিপাক্ষিক স্তরে উত্তেজনা তুঙ্গে। কূটনৈতিক ও সামরিক স্তরে আলোচনা করেও মেলেনি সমাধানসূত্র। এই পরিবেশে তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে তথ্য-প্রযুক্তি আইনে ৫৯টি চিনা অ্যাপে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রক।

পাশাপাশি ঝটিকা সফরে এদিন লেহ-লাদাখ পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ছিলেন সিডিএস বিপিন রাওয়াত এবং সেনা প্রধান এমএম নারাভনে। লাদাখ সীমান্তে দায়িত্বপ্রাপ্ত লেফটান্যান্ট হরবিন্দর সিংয়ের থেকে পরিস্থিতির খোঁজ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে, ঝটিকা লাদাখ সফরে গিয়ে ভারতীয় সেনার পাশে থাকার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী। শুক্রবার তিনি বলেন, "মাতৃভূমি রক্ষায় আপনাদের সাহস অসমান্তরাল। আপনাদের দৃঢ়তা উঁঁচ্চ, যত উঁচুতে আপনারা অবস্থিত ঠিক ততটাই। আপনাদের বাহু ততটাই শক্ত, যতটা শক্ত পর্বত আপনাদের ঘিরে রেখেছ। আপনাদের আত্মবিশ্বাস, বিশ্বাস ততটাই অটল যতটা একটা পর্বতের চূড়ায় থাকে।" তিনি আরও বলেছেন, "ভারত মায়ের শত্রুরা আপনাদের প্রত্যাঘাত দেখেছ। এই পরিস্থিতিতে আপনারা নিজেদের সেরাটা দিয়েছেন। দুর্বলতা শান্তি আনতে পারে না। সাহসীরা পারে। আপনারা সেটাই করে দেখাচ্ছেন। বিশ্বের অন্য সব দেশের বাহিনীর চেয়ে ভারতীয় সেনারা শক্তিশালী সেটা প্রমাণ হয়েছে। আমি আপনাদের, প্রণাম করতে চাই। যাঁরা দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছে তাঁদের নমস্কার করতে চাই। লাদাখের সব নদী, সব স্রোত, সব নুড়ি জানে এটা ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ।" চিনের নাম না করে তিনি বলেন, "বিস্তারবাদের যুগ শেষ। এখন বিকাশবাদের যুগ। বিস্তারবাদীরা শান্তি নষ্ট করে। জল, স্থল, অন্তরীক্ষে শক্তি বাড়িয়েছে ভারত। লাদাখ চক্রান্ত ব্যর্থ করেছে ভারতীয় সেনা।" তাঁর দাবি, "লাদাখ দেশের মাথা, সম্মানের প্রতীক।"