This Article is From Nov 04, 2018

পাঞ্জাবে ছাত্রীদের স্যানিটারি প্যাড দেখাতে বাধ্য করায় শিক্ষক, বদলির আদেশ মুখ্যমন্ত্রীর

অভিযোগ যে, শৌচাগারে ব্যবহৃত প্যাড পাওয়ার পরেই শিক্ষকরা জানার চেষ্টা করেন যে, কোন মেয়ের পিরিয়ড চলছে এবং কে কোন স্যানিটারি প্যাড পরে আছে তা দেখার জন্য পোশাক খুলতে বাধ্য করেন ছাত্রীদের।

পাঞ্জাবে ছাত্রীদের স্যানিটারি প্যাড দেখাতে বাধ্য করায় শিক্ষক, বদলির আদেশ মুখ্যমন্ত্রীর

ভিডিও ক্লিপে দেখা যাচ্ছে যে বেশ কিছু মেয়ে কান্নাকাটি করছে এবং অভিযোগ জানাচ্ছে যে তাঁদের শিক্ষকরা এই কাজে বাধ্য করে তাঁদের

চণ্ডীগড়:

পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং শনিবার পাঞ্জাবের ফজিলকা জেলার সরকারি স্কুলের শিক্ষকদের বদলির নির্দেশ দেন। অভিযোগ, এই শিক্ষকেরা স্কুলের শৌচাগারে স্যানিটারি ব্যবহৃত প্যাড পড়ে থাকতে দেখার পর মেয়েদেরকে জামা খুলে কার কার পিরিয়ড চলছে তা দেখাতে বাধ্য করেন। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের শিক্ষা বিভাগের সচিব কৃষ্ণণ কুমারকে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করার নির্দেশ দেন।

মুখ্যমন্ত্রী সোমবারের মধ্যে তদন্ত শেষ করতে এবং প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দেন।

অভিযোগ যে, শৌচাগারে ব্যবহৃত প্যাড পাওয়ার পরেই শিক্ষকরা জানার চেষ্টা করেন যে, কোন মেয়ের পিরিয়ড চলছে এবং কে কোন স্যানিটারি প্যাড পরে আছে তা দেখার জন্য পোশাক খুলতে বাধ্য করেন ছাত্রীদের। একটি ভিডিও ক্লিপে দেখা যাচ্ছে যে বেশ কিছু মেয়ে কান্নাকাটি করছে এবং অভিযোগ জানাচ্ছে যে তিন দিন আগে কুন্ডাল গ্রামে তাঁদের স্কুলের প্রাঙ্গনে তাঁদের শিক্ষকরা এই কাজে বাধ্য করে তাঁদের।

ব্যবহৃত স্যানিটারি প্যাড যথাযথভাবে নষ্ট করার বিষয়ে মেয়েদের সচেতন করার পরিবর্তে শিক্ষকেরা তাঁদের কাপড় খুলে দেখাতে বলার কথা জানতে পেরেই মুখ্যমন্ত্রী এই সিদ্ধান্ত নেন।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কর্তৃক আরো একবার বিষয়টি খতিয়ে দেখে চূড়ান্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। পাঞ্জাব সরকারের সরকারি মুখপাত্র জানান, মুখ্যমন্ত্রী শিক্ষা দফতরের সচিবের কাছে ব্যক্তিগতভাবে এই বিষয়ের চূড়ান্ত তদন্ত রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদিত করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে.)