চিন থেকে আর বিদ্যুৎ আমদানি নয়: মন্ত্রী আরকে সিং

সে দেশ থেকে বিদ্যুৎ আমদানি রুখতে রাজ্যগুলোর কাছে আবেদন করলেন তিনি

চিন থেকে আর বিদ্যুৎ আমদানি নয়: মন্ত্রী আরকে সিং

চিন থেকে বিদ্যুৎ আমদানি বন্ধ করতে তৎপর মন্ত্রক। (ফাইল ছবি)

হাইলাইটস

  • বিদ্যুৎ ক্ষেত্রে চিন নির্ভরতা কমাতে প্রস্তুতি
  • আমদানি কমাতে রাজ্যগুলোকে আবেদন করলেন বিদ্যুৎ মন্ত্রী
  • ইতিমধ্যে ৫৯টি চিনা অ্যাপস নিষিদ্ধ করা হয়েছে দেশে
নয়াদিল্লি:

লাদাখ সংঘাতে (Ladakh Standoff) চিনকে বাণিজ্যিক ভাবে কোণঠাসা করতে তৎপর সরকার। ইতিমধ্যে ৫৯টি চিনা অ্যাপস নিষিদ্ধ করেছে তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রক। সড়ক নির্মাণে চিনি অংশীদারিত্ব আটকাতে উদ্যোগ নিয়েছেন মন্ত্রী নীতিন গডকড়ি। এবার বিদ্যুৎ ক্ষেত্রে চিনের বাড়বাড়ন্ত আটকাতে তৎপর হলেন মন্ত্রী আরেক সিং (Power Minister on China import)। সে দেশ থেকে বিদ্যুৎ আমদানি রুখতে রাজ্যগুলোর কাছে আবেদন করলেন তিনি। অঙ্গরাজ্যের বিদ্যুৎ মন্ত্রীদের সঙ্গে শুক্রবার টেলি-বৈঠক করেন আরকে সিং। সেই বৈঠকে তিনি বলেন, "২০১৮-১৯ মরসুমে বিদ্যুৎ ক্ষেত্রে আমরা ৭১ হাজার কোটি টাকার সামগ্রী আমদানি করেছে। চিন থেকে এসেছে ২১ হাজার কোটি টাকা। আমাদের এই নির্ভরতা বন্ধ করতে হবে (No import from China)। যে দেশ আমাদের সেনাদের ওপর হামলা চালাচ্ছে, ভূখণ্ড কাড়তে চাইছে, তাদের অর্থনীতি আমরা মজবুত করবো?" তিনি বলেছেন, "আমরা চিন আর পাকিস্তান থেকে কিছু আমদানি করবো না। আপনাদেরও করতে দেবো না। ম্যালওয়ার বা ভাইরাস ছড়িয়ে আমাদের বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের মুখে ফেলতে পারে চিন।"

এদিকে, ১৫ জুন ভারত ও চিনের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের পর গোটা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে লে-তে গেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে যে বর্তমানে "নিমু" এলাকায় রয়েছেন তিনি। ওই সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়, "উনি খুব ভোরেই ওই এলাকায় পৌঁছে যান। সেখানে তিনি পদাতিক সেনা, বায়ুসেনা এবং আইটিবিপি (ইন্দো-টিবেটিয়ান বর্ডার পুলিশ) -এর কর্মীদের সঙ্গে নানা বিষয়ে কথাবার্তা বলছেন। যে এলাকায় তিনি এখন আছেন সেটি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১১,০০০ ফুট ওপরে, জ্যানস্কর রেঞ্জের ওই এলাকা খুবই দুর্গম"। লাদাখের এই সফরে প্রধানমন্ত্রীর মোদির সঙ্গে রয়েছেন চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত এবং সেনাপ্রধান এমএম নারভানে। শুক্রবার সন্ধে নাগাদ ফিরে আসবেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

গত ১৫ জুন রাতে লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারত ও চিনা সেনার মুখোমুখি সংঘর্ষে এক কর্নেল-সহ শহিদ হন ২০ জন ভারতীয় সেনা জওয়ান। ফলে দেশ জুড়ে তীব্র চিনবিরোধী মনোভাব তৈরি হয়েছে। লাদাখে দুই দেশের মধ্যে তৈরি হওয়া উত্তেজনার বিষয়ে গত সপ্তাহেই 'মন কি বাত' অনুষ্ঠানে মুখ খোলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন ভারত চিনকে উপযুক্ত জবাব দিয়েছে।

ভিডিও: বিদেশী সংস্থাগুলোর সঙ্গে চিনের সংঘাত