This Article is From Jul 07, 2020

আমফানে ক্ষতিগ্রস্তরা পাননি সরকারি সাহায্য? জানান দিলীপ দাকে...

West Bengal: তৃণমূল কংগ্রেসের তীব্র নিন্দা করে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, রাজ্যের শাসক দল দুর্নীতিগ্রস্তদের পৃষ্ঠপোষকতা করছে

আমফানে ক্ষতিগ্রস্তরা পাননি সরকারি সাহায্য? জানান দিলীপ দাকে...

West Bengal: যেসব আমফান দুর্গতরা সরকারি সাহায্য পাননি তাঁদের পাশে দাঁড়াতে চান দিলীপ ঘোষ

হাইলাইটস

  • রাজ্যে আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের অভিযোগ শুনবেন বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ
  • অভিযোগ জানানোর জন্যে তৈরি হয়েছে বিশেষ ওয়েবসাইট
  • অভিযোগ জানাতে পারেন আমদেরদিলীপদা.ইন / সাইক্লোন-আমফান এই ওয়েবসাইটে
কলকাতা:

পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal) ঘূর্ণিঝড় আমফানের (Amphan) পর ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণসাহায্য বিলি নিয়ে বারবার দুর্নীতির অভিযোগ উঠছে শাসক দলের বিরুদ্ধে। প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে পৌঁছয়নি সরকারি সাহায্য, এমন অভিযোগ করছেন অনেকেই। ঠিক এই পরিস্থিতিকেই রাজনীতির হাতিয়ার করতে নেমে পড়লো রাজ্য বিজেপি। সোমবার পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির তরফ থেকে একটি ওয়েবসাইট চালু করা হয় যেখানে আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষজন যাঁরা সরকারি সাহায্য পাননি তাঁরা অভিযোগ জানাতে পারবেন। রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) বলেছেন, রাজ্য সরকারের সহায়তা থেকে যাঁরা বঞ্চিত হয়েছেন তাঁরা যদি "আমাদেরদিলীপদা.ইন/সাইক্লোন-আমফান" এই ওয়েবসাইটে অভিযোগ দায়ের করেন তবে তিনি সেই বঞ্চিতদের তালিকা কেন্দ্রে পাঠাবেন।

রাজ্যের প্রথম প্লাজমা ব্যাঙ্কের উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

দিলীপ ঘোষ বলেন, "প্রতিদিনই আমাদের সামনে রাজ্য জুড়ে ত্রাণ সাহায্য বিতরণে দুর্নীতি ও স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠে আসছে। সুতরাং, আমি চাই যে, যেসব ক্ষতিগ্রস্তরা এই সাহায্য পাননি তাঁরা আমার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে লিখিতভাবে সরাসরি আমার কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ জানান। আমি তাঁদের আশ্বাস দিচ্ছি যে আমি এই তালিকাটি কেন্দ্রের কাছে পাঠাবো যাতে তাঁরা ন্যায়বিচার পান"।

বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের উপর হামলা, অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে

এই ত্রাণ সাহায্য বিলি নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ তুলে তৃণমূল কংগ্রেসের তীব্র নিন্দা করে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, রাজ্যের শাসক দল দুর্নীতিগ্রস্তদের পৃষ্ঠপোষকতা করছে।

দিলীপ ঘোষ বলেন, "তৃণমূল কংগ্রেস এই দুর্নীতিগ্রস্তদের দল থেকে বহিষ্কারের একটি নতুন নাটক শুরু করেছে। আপনি তাদের বহিষ্কার করলেন কি করলেন না তাতে কী আসে যায়? যারা জনগণের অর্থ লুট করেছে তাদের তো জেলে পাঠানো উচিত"।

ত্রাণ সামগ্রী ও আর্থিক সহায়তার বিতরণে অনিয়মের অভিযোগে স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিভিন্ন জায়গায় প্রতিবাদ আন্দোলন শুরু হয়েছে। গত কয়েক সপ্তাহ জুড়েই উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা এবং পূর্ব মেদিনীপুরের কয়েকটি এলাকায় বিক্ষোভ দেখিয়েছেন মানুষ।

স্থানীয় পর্যায়ের বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতাকেও দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।