৫ এপ্রিল রাত ৯ টায় ঘরের সব আলো বন্ধ করে মোমবাতি-প্রদীপ জ্বালানোর অনুরোধ করলেন প্রধানমন্ত্রী

Coronavirus :"আমি আপনাদের সবাইকে বলতে চাই যে আপনারা কেউ একা নেই, আমরা সকলেই একসঙ্গে আছি", বলেন প্রধানমন্ত্রী

৫ এপ্রিল রাত ৯ টায় ঘরের সব আলো বন্ধ করে মোমবাতি-প্রদীপ জ্বালানোর অনুরোধ করলেন প্রধানমন্ত্রী

COVID-19: এর আগে ভারতে করোনা মহামারী ক্রমশই মারাত্মক উদ্বেগের কারণ হয়ে ওঠায় দু-দু'বার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন মোদি

হাইলাইটস

  • আগামী রবিবার রাত ৯ টায় ৯ মিনিটের জন্যে ঘরের সব আলো বন্ধ রাখার অনুরোধ
  • ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশবাসীকে এই অনুরোধ করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • দেশের জনগণ লকডাউন মেনে করোনার সঙ্গে লড়ছেন, এর জন্যে ধন্যবাদ জানালেন মোদি
নয়া দিল্লি:

করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) সংক্রমণ রুখতে যেভাবে দেশবাসী লকডাউনের সময় ঘরে থেকে নিঃশব্দ এক লড়াই করছেন তার জন্যে ধন্যবাদ জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শুক্রবার এক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের সব মানুষের প্রতি নতুন এক বার্তা দিলেন তিনি (PM Modi)। ৫ এপ্রিল রবিবার, রাত ৯টায় ঘরের সব আলো বন্ধ করে ঘরের দরজা বা বারান্দায় দাঁড়িয়ে ৯ মিনিটের জন্যে মোমবাতি, প্রদীপ, টর্চ বা মোবাইলের ফ্ল্যাশ লাইট জ্বালানোর অনুরোধ করলেন প্রধানমন্ত্রী (Narendra Modi)। ২৪ মার্চ দেশ জুড়ে ২১ দিনের লকডাউন করার ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি, তার ঠিক ৯ দিন পরে এটাই দেশবাসীর প্রতি তাঁর প্রথম বার্তা। এর আগে ভারতে করোনা মহামারী ক্রমশই মারাত্মক উদ্বেগের কারণ হয়ে ওঠার পর দু-দু'বার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন তিনি। তাঁর প্রথম ভাষণে, তিনি একদিনের জন্যে জনতা কারফিউ করার আহ্বান জানিয়েছিলেন এবং ২৪ শে মার্চ দ্বিতীয় ভাষণে তিনি COVID-19-এর বিস্তার রোধে গোটা দেশে লকডাউন চালু করার ঘোষণা করেন।

নিজামুদ্দিন মসজিদের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া ৯৬০ বিদেশিকে কালো তালিকাভুক্ত করল কেন্দ্র

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী মোদি সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গেও এক বৈঠক করেন এবং লকডাউন পর্ব শেষ হওয়ার পরে জনগণের জীবনযাত্রা যাতে সুরক্ষিত থাকে তার জন্যে একটি বিশেষ পরিকল্পনা নেওয়ার কথা বলেন তিনি। "লকডাউন শেষ হওয়ার পরে জনগণকে অচলাবস্থা থেকে আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে একটি সামগ্রিক পরিকল্পনা নেওয়া জরুরি", বলেন প্রধানমন্ত্রী । করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে সব রাজ্যকে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

দেশে ২১ দিনের লকডাউন চলার সময়েও ক্রমশ করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বর্তমানে ভারতে মোট ১,৯৬৫ জন মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, যার মধ্যে আবার ৫০ জনের মৃত্যুও হয়েছে।

করোনা সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কায় গ্রামে ঠাঁই হয়নি, নৌকাতেই বাস বৃদ্ধের!

প্রধানমন্ত্রীর বার্তার উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো দেখুন:

  • COVID-19 মহামারীর বিরুদ্ধে লকডাউনের আজ ৯ দিন পূর্ণ। সঙ্কটের এই সময়ে আপনারা সকলে যেভাবে একত্রিত হয়েছেন তা প্রশংসনীয়।
  • ভারতীয়রা কীভাবে বাড়ির ভিতরে থাকতে পারেন তা গোটা বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছেন তাঁরা।
  • অন্যান্য দেশগুলি ভারতের এই লকডাউনের উদাহরণ অনুসরণ করছে।
  • আমি আপনাদের সবাইকে বলতে চাই যে আপনারা কেউ একা নেই। আমরা সকলেই একসঙ্গে আছি।
  • লকডাউনের সময় দরিদ্ররাই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।
  • আগামী রবিবার, আমি আপনাদের সবাইকে অনুরোধ করছি ওই দিন রাত ৯টায় ৯ মিনিটের জন্যে আপনার বাড়ির লাইট বন্ধ করুন। দয়া করে মোমবাতি, প্রদীপ, টর্চ বা মোবাইলের ফ্ল্যাশ লাইট জ্বালান, আপনারা একসঙ্গে রয়েছেন তা আরও একবার দেখান।