This Article is From Apr 09, 2020

কেন্দ্রীয় উদ্যোগে ১৫,০০০ কোটি টাকার স্বাস্থ্য প্রকল্পের অনুমোদন মিলল

করোনা ভাইরাসের মোকাবিলায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে মজবুত করতে ১৫,০০০ কোটি টাকার পাঁচ বছরের এক স্বাস্থ্য প্রকল্পের অনুমোদন মিলল বুধবার।

কেন্দ্রীয় উদ্যোগে ১৫,০০০ কোটি টাকার স্বাস্থ্য প্রকল্পের অনুমোদন মিলল

জাতীয় ও রাজ্য স্তরে স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে মজবুত করতেই এই পদক্ষেপ

নয়াদিল্লি:

করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) মোকাবিলায় জাতীয় ও রাজ্য স্তরে স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে মজবুত করতে পুরোপুরি কেন্দ্রীয় উদ্যোগে ১৫,০০০ কোটি টাকার পাঁচ বছরের এক স্বাস্থ্য প্রকল্পের (Health Scheme) অনুমোদন মিলল বুধবার। সরকারের তরফে একথা জানানো হয়েছে। এটি তিনটি দফায় বিভক্ত। প্রথমটি ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে জুন। পরেরটা ২০২০ সালের জুলাই থেকে ২০২১ সালের মার্চ। তৃতীয়টি ২০২১ সালের এপ্রিল থেকে ২০২৪ সালের মার্চ। এই তহবিলকে প্রতিটি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করা হবে। এই প্রকল্পের অধীনে যেসব পরিকল্পনা রয়েছে তার অন্যতম কোভিড-১৯ হাসপাতাল, আইসিইউ নির্মাণ এবং স্বাস্থ্যকেন্দ্রে অক্সিজেন সরবরাহ।

3gv6kfg8

জাতীয় স্বাস্থ্য মিশন থেকে জারি হওয়া এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, আপৎকালীন কোভিড-১৯ মোকাবিলার দিকে লক্ষ্য রেখে জাতীয় ও রাজ্য স্তরে স্বাস্থ্য পরিকাঠামোকে উন্নত করতে এই প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। অত্যাবশ্যকীয় মেডিক্যাল সামগ্রী, ওষুধ, ল্যাবরেটরি উ্পভৃতি নির্মাণ— নানা খাতে এই প্রকল্পে খরচ হবে বলে জানানো হয়েছে ওই বিজ্ঞপ্তিতে।

প্রথম দফায় এগুলির সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে হাসপাতাল ও সরকারি অ্যাম্বুল্যান্সকে জীবাণুবিহীন করা কিংবা পিপিই ক্রয়ের মতো বিষয়ও।

ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫,৭০০ ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা অন্তত ১৬৬। সবথেকে বেশি প্রকোপ পড়েছে মহারাষ্ট্র, তামিলনাডু ও দিল্লিতে। যেভাবে এই ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েছে গত কয়েক সপ্তাহে তার ফলে বহু রাজ্যই কেন্দ্রের কাছে সাহায্য চেয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তিন সপ্তাহের লকডাউনের ফলে বহু অ-অত্যাবশ্যকীয় শিল্প, বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ও নির্মাণ কেন্দ্রগুলিকে সমস্যায় ফেলেছে।

পরিস্থিতির সামাল দিতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও সাংসদদের বেতন কমানো হয়েছে। এদিকে এই সপ্তাহে রাজ্য দুর্গোগ মোকাবিলা তহবিলে ১১,০৯২ কোটি টাকা দান করেছে কেন্দ্র।