Hyderabad rape-murder: শহরে পড়ুয়াদের প্রতিবাদ মিছিল

Hyderabad rape-murder: গত সপ্তাহে হায়দরাবাদের পশু চিকিৎসককে চারজন যুবক ধর্ষণ করে তাঁকে খুন করে পুড়িয়ে দেয়। ঘটনায় স্তম্ভিত গোটা দেশ।

Hyderabad rape-murder: শহরে পড়ুয়াদের প্রতিবাদ মিছিল

তরুণী পশু চিকিৎসকের মর্মান্তিক পরিণতিতে ঘটনায় স্তম্ভিত গোটা দেশ।

হায়দরাবাদের পশু চিকিৎসকের নৃশংস পরিণতিতে (Hyderabad rape-murder) দেশজুড়ে চলছে প্রতিবাদ। এই পরিস্থিতিতে সোমবার রাজ্যের দুই শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের তরফে (Students take out rallies) দাবি উঠল ধর্ষণের দ্রুত বিচার ও পদক্ষেপের এবং দেশজুড়ে মহিলাদের নিরাপত্তার। এদিন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় ও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফ থেকে মিছিল দু'টি বের করা হয়। প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের বহু সংখ্যক পড়ুয়ার সঙ্গে যোগ দেন অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সদস্যরাও। বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর থেকে মিছিল বের হয়ে শেষ হয় ধর্মতলায় গিয়ে। প্রেসিডেন্সির অন্যতম ছাত্র সংগঠনের সদস্য উজান জানিয়েছেন, তাঁরা মানবশৃঙ্খল তৈরি করেন ধর্মতলা চত্বরে।

একই ভাবে মানবশৃঙ্খল তৈরি করা হয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরেও। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘আর্টস ফ্যাকাল্টি স্টুডেন্টস ইউনিয়ন' ওই প্রতিবাদের আয়োজন করে। যৌন নিগ্রহ ও ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ প্রদর্শনেই তারা ওই শৃঙ্খল গঠন করে।

১৭ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল তাঁরই বাবার বিরুদ্ধে!

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী মধুরিমা দত্ত জানিয়েছেন, ‘‘হায়দরাবাদের পশু চিকিৎসকের সঙ্গে যা হয়েছে তা ভেবে আমরা শিহরিত হচ্ছি। রাস্তায় আমাদের অধিকাংশকেই পিছু নেওয়া ও অন্যান্য খারাপ আচরণের মুখোমুখি হতে হয় রোজ। কেন মেয়েরা সন্ধের পরে স্বাধীন ভাবে ঘুরতে পারবে না। কেন তাদের নিগৃহীত হওয়ার ভয় পেতে হবে? ধর্ষিতা হওয়ার, এমনকী খুন হওয়ার আতঙ্কে ভুগতে হবে?''

রাজস্থানের নিখোঁজ ছাত্রীকে ধর্ষণ করে স্কুল বেল্ট দিয়ে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ: পুলিশ

এছাড়াও শহরের বেশ কয়েকটি দুর্গাপুজো কমিটি বিপদে পড়া মহিলাদের সাহায্যার্থে হেল্পলাইনও চালু করেছে। কালীঘাট অঞ্চলের এক পুজো কমিটি তাদের ফেসবুক পেজে ছ'টি মোবাইল নম্বর দিয়ে জানিয়ে প্রয়োজন পড়লেই মহিলাদের সাহায্রে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

এখই রকমের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে টালিগঞ্জ ও বেহালার পুজো কমিটিগুলির তরফেও।

এক কর্মরতা মহিলা অপর্ণা বণিক জানিয়েছেন, ‘‘আমাদের ভাইরা আচমকা বিপদে আমাদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে, কোনও কিছুতেই নিশ্চিত হওয়া কঠিন। আমার ভয় হয়, এমন নম্বরে ফোন করলে আমি আরও বড় বিপদে পড়ে যেতে পারি।''

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে হায়দরাবাদের পশু চিকিৎসককে চারজন যুবক ধর্ষণ করে তাঁকে খুন করে পুড়িয়ে দেয়। এরই পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশের সম্ভলেও এক ১৬ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ করে পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে। ওই কিশোরীকে আহত অবস্থায় শনিবার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পাশাপাশি কলকাতাতেই দুই নাবালিকাকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে গত সপ্তাহে।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News