জেনে নিন কারা হারল, কারা জিতল ২০১৯-এর বাজেটে

শুক্রবার কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। রইল এবারের বাজেটের বিজয়ী ও পরাজিতর সংক্ষিপ্ত তালিকা।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
জেনে নিন কারা হারল, কারা জিতল ২০১৯-এর বাজেটে

কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন।


হাইলাইটস

  1. শুক্রবার কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন
  2. ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তনের পরে এটাই ছিল মোদি সরকারের প্রথম বাজেট
  3. রইল এবারের বাজেটের বিজয়ী ও পরাজিতর সংক্ষিপ্ত তালিকা

শুক্রবার কেন্দ্রীয় বাজেট (Union Budget) পেশ করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন (Nirmala Sitharaman)। ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তনের পরে এটাই ছিল মোদি সরকারের প্রথম বাজেট। অর্থমন্ত্রীর পেশ করা বাজেটে বিনিয়োগকে উৎসাহ দেওয়া হয়েছে। অর্থমন্ত্রীর বাজেট ভাষণে উঠে এল দেশের অর্থনৈতিক বৃ্দ্ধিকে চাঙ্গা করতে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য সহজ নিয়ম। পাশাপাশি ভারতের প্রথম সার্বভৌম বন্ড বিক্রির পরিকল্পনার কথাও। রইল এবারের বাজেটের বিজয়ী ও পরাজিতর সংক্ষিপ্ত তালিকা।

Budget 2019: জেনে নিন কার কার দাম বাড়ল, কমল কোনগুলির

বিজয়ী

রাজ্য পরিচালিত ব্যাঙ্ক

৭০,০০০ কোটি টাকার মূলধনের পরিকল্পনা ও ঋণখেলাপের ক্ষেত্রে এককালীন আংশিক গ্যারান্টি প্রদানের ফলে রাজ পরিচালিত ব্যাঙ্কগুলি সম্ভবত লাভবান হবে। পাশাপাশি ঋণখেলাপ-প্রবণ অ-ব্যাঙ্ক আর্থিক সংস্থাগুলির উপরে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার নিয়ন্ত্রণ বাড়ানোর ফলে অবরুদ্ধ স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া লিমিটেড, ব্যাঙ্ক অফ বরোদা, কানাড়া ব্যাঙ্ক, ইউনিয়ন ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া ও পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক সহ অন্য ব্যাঙ্ককে সহায়তা পাবে।

BUDGET 2019: এবারের বাজেটের বিশেষ বিশেষ ঘোষণা

গ্রামীণ ভারত

গ্রাম সংযোজনের জন্য রাস্তা নির্মাণে খরচ বাড়ানো, বৈদ্যুতিক শক্তি ও জ্বালানি সংযোগ সহ গ্রামীণ বাড়ির সংখ্যাবৃদ্ধি এবং ছোট ব্যবসার জন্য সহায়তার প্রতিশ্রুতি— এই সব কারণে গ্রামীণ ভারত লাভবান হবে এবারের বাজেট থেকে।

বিমানচালনা

নির্মলা সীতারামন বলেছেন, সরকার বিমানচালনা ক্ষেত্রে বিদেশি বিনিয়োগের কথা ভাবছে। পাশাপাশি এয়ার ইন্ডিয়া লিমিটেডকে বিক্রি করার পরিকল্পনার কথাও বলেন তিনি। এছাড়াও সরকার একটি পরিকল্পনার কথা জান‌িয়েছেন, যাতে অর্থপ্রয়োগ করা হবে। ফলে লাভবান হবে এয়ার ইন্ডিয়া লিমিটেড, স্পাইসজেট লিমিটেড প্রভৃতি সংস্থাগুলি লাভবান হবে।

জল

২০২৪ সালের মধ্যে ভারতের সর্বত্র পাইপলাইন সংযোগ করে জল সরবরাহের কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি দেশের জলের উৎসগুলির দিকে বিশেষ নজর দিতে দেশের জল প্রশাসনকে সংহত করার পরিকল্পনার ফ‌লে জল সমস্যার সমাধানের দিকে এগনো যাবে। এৱ ফঢ়ে জৈন ইরিগেশন সিস্টেমস লিমিটেড, কেএসবি লিমিটেড প্রভৃতি সংস্থা লাভবান হবে।

ভাড়াটে

একটি মডেল ভাড়াটে আইনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী । এর ফলে ২০৫০ সালের মধ্যে দেশে বসবাসকারী ৮৭।৭ মিলিয়ন মানুষ উপকৃত হবেন যাঁরা এই আইন থেকে সুবিধা পাবেন। বিশেষ করে মুম্বই— যেখানে সম্পত্তির বিপুল দামের কারণে অনেকেই ভাড়ায় থাকতে বাধ্য হন।

রিয়েল এস্টেট ও নির্মাণ

২০২২ সালের মধ্যে ১ কোটি ৯৫ লক্ষ বাড়ি গ্রামীণ এলাকায় নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। এছাড়া দেশের বিভিন্ন গ্রামের মধ্যে সংযোগকারী রাস্তা নির্মাণও করার কথা বলা হয়েছে জাতীয় সড়ক ও গ্রাম্য রাস্তা পরিকল্পনায়। এর ফলে লার্সেন অ্যান্ড টুব্রো লিমিটেড, দিলীপ বিল্ডকন লিমিটেড ইত্যাদি সংস্থা লাভবান হবে।

পরাজিত

গয়না ও সোনা আমদানিকারীরা

সোনা এবং অন্যান্য দামি ধাতুতে আমদানি শুল্ক বাড়ানো হল কেন্দ্রীয় বাজেট ২০১৯-এ। ১০ শতাংশ থেকে শুল্ক বেড়ে হল ১২.৫ শতাংশ। এর ফলে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মার্কেটের ক্রেতাদের উৎসব ও বিয়ের মরশুমে মূল্যবৃদ্ধির ধাক্কা সামলাতে হবে। এছাড়া পিসি জুয়েলার লিমিটেড, ভৈরব গ্লোবাল লিমিটেড, টাইটান কোম্পানির মতো সংস্থাকে ক্ষতির মুখে পড়তে হবে।

প্রতিরক্ষা

ভারতীয় প্রতিরক্ষা খাতে ২০১৯-২০ সালের জন্য ৩.০৫ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। ফেব্রুয়ারির অন্তর্বর্তী বাজেটে যা বরাদ্দ করা হয়েছিল তাতে কোনও পরিবর্তন করা হয়নি। গতবারের ২.৮৫ লক্ষ কোটি টাকার থেকে পরিমাণ বেশি হলেও প্রকৃত অর্থে এটাকে বৃদ্ধি বলা যাবে না।

উচ্চ ও মধ্য উপার্জনকারীরা

ধনী ও মধ্যবিত্ত করদাতাদের কর বাড়িয়ে দেওয়ার ফলে তাঁরা খুশি হবেন না তা বলাই যায়। ২ কোটির বেশি উপার্জনকারীদের কর বাড়ানো হয়েছে। বছরে ১ কোটির বেশি নগদ অর্থ তুললে ২ শতাংশ কর দিতে হবে। এছাড়া করদাতাদের অতিরিক্ত ২ টাকা করে প্রতি লিটার গ্যাসোলিন বা ডিজেল কিনলে দিতে হবে। সব মিলিয়ে তাঁদের খুশি করবে না এবারের বাজেট।

যানবাহনের যন্ত্রাংশ

বৈদ্যুতিক যানবাহ‌নের উপরে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা থেকে ভারতের সরে আসার পরিকল্পনার ফলে যানবাহনের যন্ত্রাশ নির্মাতাদের অসুবিধায় ফেলবে। যন্ত্রাংশের উপরে শুল্ক বাড়ানো হয়েছে। এর ফলে মিন্ডা ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, শ্রীরাম পিস্টনস ইত্যাদি সংস্থা ক্ষতির মুখে পড়বে।

নদী ও পরিবেশ

অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশের নদীপথে আরও বেশি করে পণ্য পরিবহনের কথা। সমর্থকরা বলবেন, এতে দেশের অভ্যন্তরীণ ব্যবসা ভাল হবে ও জিএসটির সম্পূরক ভূমিকায় সিঙ্গল মার্কেট তৈরি করা যাবে। কিন্তু সমালোচকদের মত, এতে পরিবেশ আরও বেশি দূষিত হবে। বাস্তুতন্ত্রেরও ক্ষতি হবে।



Get Breaking news, live coverage, and Latest News from India and around the world on NDTV.com. Catch all the Live TV action on NDTV 24x7 and NDTV India. Like us on Facebook or follow us on Twitter and Instagram for latest news and live news updates.

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

Top