সাশ্রয়ী ঘর তৈরিতে উৎসাহ দিতে ১০,০০০ কোটি টাকার তহবিল ঘোষণা অর্থমন্ত্রীর

অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন বলেন, দেশে সাশ্রয়ী ঘর তৈরির প্রকল্পে, অতিরিক্ত বাণিজ্যিক ঋণের নীতি আরও হাল্কা সহজ করে দেওয়া হবে

সাশ্রয়ী ঘর তৈরিতে উৎসাহ দিতে ১০,০০০ কোটি টাকার তহবিল ঘোষণা অর্থমন্ত্রীর

অর্থমন্ত্রীর ঘোষণা,এই তহবিলের সুবিধা পাওয়া যাবে যে আবাসন প্রকল্পগুলি, দেউলিয়া হয়নি বা সেগুলি নন-পারফর্মিং অ্যাসেট বলে গণ্য হয়েছে।

মধ্য এবং স্বল্প আয়ের মানুষদের জন্য অল্প খরচে বাড়ি তৈরির প্রকল্পে ১০,০০০ কোটি টাকার তহবিল ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতরামন। জুন পর্যন্ত প্রথম ত্রৈমাসিকে দেশে  অর্থনীতির বৃ্দ্ধির হার সবচেয়ে কম হয়েছে। ফলে অর্থনীতিতে চাঙ্গা করতে তিনসপ্তাহে এই নিয়ে মোট তিনটি পদক্ষেপ করল অর্থমন্ত্রক। নির্মলা সীতারামন ঘোষণা করেন, এই তহবিলের সুবিধা পাওয়া যাবে সেই সমস্ত আবাসন প্রকল্পে, যেগুলি দেউলিয়া অবস্থায়  পৌঁছায়নি অথবা সেগুলি নন-পারফর্মিং অ্যাসেট বলে গণ্য হয়েছে। এই সুবিধাটি  সেই সমস্ত আবাসন প্রকল্পগুলিতে দেওয়া হবে, যেগুলির পুঁজি, মধ্যবিত্ত ও স্বল্পমূল্যের মধ্যে ইতিবাচক, এমনটাই জানানো হয়েছে সরকারি বিবৃতিতে। আরও বলা হয়েছে, অসম্পূর্ণ কাজগুলি শেষ করাই এর মূল লক্ষ্য বলে জানানো হয়েছে।

রফতানিকে উৎসাহ দিতে একাধিক পদক্ষেপ ঘোষণা অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের

১০,০০০ কোটি টাকার সরকারি সাহায্য ছাড়াও, অন্য কোনও বিনিয়োগকারীর থেকেও সমান অঙ্কের বিনিয়োগ করা যাবে। অর্থমন্ত্রী বলেন, অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, দেশে সাশ্রয়ী ঘর তৈরির প্রকল্পে, অতিরিক্ত বাণিজ্যিক ঋণের নীতি আরও হাল্কা সহজ করে দেওয়া হবে।

 ছবছরে, অর্থনীতি গতি সবচেয়ে নিম্নমুখী হয়েছে, লক্ষাধিক মানুষ চাকরি হারা হয়েছেন, সেই মুহুর্তে আবাসন ও রফতানি প্রকল্পকে জোরদার করার পদক্ষেপ কেন্দ্রীয় সরকারের।

রফতানিকারকদের জন্য, রফতানির ওপর দেওয়া কর পরিশোধের জন্য নতুন প্রকল্পের ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। সেই প্রকল্প থেকে সরকারের ঘরে ৫০,০০০ কোটি টাকার রাজস্ব আসবে বলে জানানো হয়েছে সরকারের তরফে।

কর ফাঁকির অভিযোগ, নিষিদ্ধ বিশ্বের বৃহত্তম মদ প্রস্তুতকারক সংস্থা

বর্তমান নিয়মের জায়গায় নতুন নিয়ম কার্যকর হবে ২০২০-এর জানুয়ারি থেকে, এবং সেটি “বর্তমান প্রকল্পগুলি থেকে, রফতানিকারকদের একসঙ্গে পাওয়া সুবিধার থেকে নতুন প্রকল্প আরও পর্যাপ্ত সুবিধা দেবে” বলে জানান কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন।

রফতানিকারদের জন্য পণ্য ও পরিষেবা কর আরও সরলীকরণ করা, এবং রফতানিকারদের জন্য ব্যাঙ্ক ঋণের ক্ষেত্রে আরও বিমাসহ একাধিক ঘোষণা করেন তিনি। অর্থমন্ত্রী বলেন, “আরও কম সময়ে রফতানির জন্য বর্তমান পদক্ষেগুলি সময়ে কার্যকর করতে ব্যাপকভাবে প্রযুক্তির ব্যবহার করা হবে”। দেশের রফতানিকে ১ ট্রিলিয়ন ডলারে নিয়ে যেতে চায় সরকার, সেই সময় এই ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

More News