লকডাউনে মোরাটরিয়ামে থাকা ঋণ স্থগিত নিয়ে কেন্দ্রের পদক্ষেপ কী: সুপ্রিম কোর্ট

প্রশ্নের উত্তরে সলিসিটর জেনারেল তুুুুষার মেহতা বলেছেন, "সবাইকে একছাতার তলায় এনে সুবিধা দেওয়া যাবে না।"

লকডাউনে মোরাটরিয়ামে থাকা ঋণ স্থগিত নিয়ে কেন্দ্রের পদক্ষেপ কী: সুপ্রিম কোর্ট

ফাইল ছবি।

নয়াদিল্লি:

লকডাউন আবহে ব্যক্তিগত স্তরে ঋণ মকুব নিয়ে কেন্দ্রের অবস্থান কী? এবিষয়ে জানতে চেয়ে মোদি সরকারের থেকে কৈফিয়ত তলব করল সুপ্রিম কোর্ট। এদিন খানিকটা ভর্ৎসনার সুরে শীর্ষ আদালত কেন্দ্রকে বলেছে, "আপনারা রিজার্ভ ব্যাঙ্কের পিছনে লুকোতে পারেন না। শুধু ব্যবসায়িক স্বার্থ দেখলেই চলবে না। ব্যক্তি ঋণ মকুবের ক্ষেত্রে আপনাদের অবস্থান কী। আগামী পয়লা সেপ্টেম্বরের মধ্যে অবস্থান স্পষ্ট করুন।" লকডাউন শুরু হওয়ার পর থেকে বাণিজ্যিক  সংস্থাগুলোকে এবং ব্যক্তিগত স্তরে ব্যাঙ্ক ঋণ ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত স্থগিত রাখতে অনুমতি দিয়েছিল ব্যাঙ্কগুলোকে। এই প্রক্রিয়ায় ব্যাঙ্কের কোষাগারে চাপ পড়ছে। এমন অনুযোগও করা হয়েছে ব্যাঙ্কের তরফে। মোরাটোরিয়াম পর্বে স্থগিত সুদ মকুব করতে শীর্ষ আদালতে মামলা ঠোকা হয়েছিল। এই মামলার শুনানিতে এদিন কেন্দ্রকে এমন ভর্ৎসনা করেছেন সুপ্রিম কোর্ট। 

বিচারপতি অশোক ভূষণের বেঞ্চ বলেছেন, "এই দুর্গতি তৈরি হয়েছে কারণ আপনারা লকডাউন করেছিলেন। আপনাদের দুটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে: বিপর্যয় মোকাবিলা এবং কীসের স্বার্থে ঋণ মকুবের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে?"

এই প্রশ্নের উত্তরে সলিসিটর জেনারেল তুুুুষার মেহতা বলেছেন, "সবাইকে একছাতার তলায় এনে সুবিধা দেওয়া যাবে না।" এই সওয়ালের পাল্টা হিসেবে বিচারপতি এমআর শাহ বলেছেন, "এটা শুধু ব্যবসা নিয়ে ভাবার সময় নয়।"