১৩,০০০ শব্দের নীতি-বিবরণ থেকে সরে এসে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক এখন অনেক পরিষ্কার: প্রতিবেদন

দীর্ঘ ও জটিল বাক্যের ব্যবহার বিনিয়োগকারীদের কাছে আরও কঠিন করে তোলে অর্থনীতি বিষয়টিকে।

১৩,০০০ শব্দের নীতি-বিবরণ থেকে সরে এসে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক এখন অনেক পরিষ্কার: প্রতিবেদন

সাংবাদিক সম্মেলনে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের গভর্নরের তত্ত্বাবধানে নীতি-বিবরণ প্রকাশিত হয়।

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (Reserve Bank of India) একসময় গড়ে ১৩,০০০ শব্দে আর্থিক নীতির বিবরণ (Monetary policy statements) প্রকাশ করত। সেই দিন এবার অতীত। সেই সময়ের দীর্ঘ বিবৃতিগুলি একজন গবেষকের অর্থনীতির গবেষণাপত্রের থেকেও বড় হত। ২০১৬ সালে মুদ্রাস্ফীতির আগে এমনই দেখা যেত। এরপর থেকে ছবিটা বদলাতে শুরু করে। কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক আর্থিক নীতি বিবরণ প্রকাশের ক্ষেত্রে সংক্ষিপ্ত ও জটিলতাবিহীন হতে শুরু করে। মুম্বইয়ের ইন্দিরা গান্ধী ইনস্টিটিউট অফ ডেভেলপমেন্ট রিসার্চ প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্র থেকে তেমনটাই জানা যাচ্ছে। মুদ্রাস্ফীতিকে লক্ষ্য করে এগোনো সেই সময়ের থেকে বেরিয়ে এসে এখন রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া তাদের বিবরণে গড়ে ৩,০৮৪ শব্দ করে রাখে।

সপ্তাহের প্রথম দিনেই চাঙ্গা শেয়ারবাজার সেন্সেক্স এবং নিফটি উঠল রেকর্ড উচ্চতায়

এই শব্দসংখ্যা এখনও অনেক বেশিই, যদি ফেডেরাল রিজার্ভের সঙ্গে তুলনা করা হয়। তাদের বিবরণে গড়ে ৫০০ শব্দ থাকে। এমনটাই জানিয়েছেন আকৃতি মাথুর ও রাজেশ্বরী সেনগুপ্ত, এই পেপারের দুই লেখক। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের বিবরণের পাঠযোগ্যতা, লেখার মধ্যে ‘সিলেবল ওয়ার্ড'-এর হিসেবে আগের থেকে অনেক উন্নত হয়েছে।

dfu5f298

গবেষকরা আর্থিক বাজারের পারফরম্যান্সের সঙ্গে নীতি-বিবরণকে তুলনা করে দেখেছেন। তাঁরা আবিষ্কার করেছেন, গত ২০ বছরে স্টক মার্কেটের রিটার্ন সংক্রান্ত দ্বিধার সঙ্গে নীতি-বিবরণের লম্বা ও জটিল বাক্যের সম্পর্ক রয়েছে। আরও বিশদে বলতে গেলে, রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নীতি-বিবরণে ১ শতাংশ শব্দবৃদ্ধি বা ১১৫ শব্দবৃদ্ধি হলে সেই সপ্তাহে মার্কেটের দ্বিধা ০.৩৭ শতাংশ বেড়ে যায়।

গবেষকরা ওই গবেষণাপত্রে লিখেছেন— ‘‘যদি বিবরণ গড়ে খুব দীর্ঘ বা অনুধাবনের ক্ষেত্রে জটিল হয়, সেক্ষেত্রে আর্থিক বাজারের পরিস্থিতি দুর্বল হয়। আমাদের অভিজ্ঞতামূলক বিশ্লেষণ থেকে আমরা এই সিদ্ধান্তেই এসেছি।''

দীর্ঘ ও জটিল বাক্যের ব্যবহার বিনিয়োগকারীদের কাছে আরও কঠিন করে তোলে অর্থনীতি বিষয়টিকে। নিয়ামকদের অবস্থান বুঝতেও অসুবিধা হয়। তাঁরা বলছেন, ‘‘এর ফলে অংশগ্রহণকারীর বিশ্বাস দ্বিধান্বিত হয়। যার প্রতিফলন ঘটে উচ্চ আর্থিক বাজারে।''

মুদ্রাস্ফীতির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারিত হওয়ার পরে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ছয় সদস্যের একটি আর্থিক নীতি নির্ধারক কমিটি গঠন করে। ওই কমিটি দুই মাস অন্তর সুদের হার নির্ধারণ করে। তারপর সাংবাদিক সম্মেলনে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের গভর্নর ও তাঁর সহকারীদের তত্ত্বাবধানে নীতি-বিবরণ প্রকাশিত হয়।

প্রতিটি বৈঠকের বিবরণও প্রকাশ করত রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। বৈঠকের দু'সপ্তাহের মধ্যে প্রকাশিত ওই বিবরণে প্রতিটি সদস্য কেমন ভোট দিলেন এবং কেন তা বলা থাকত।

হাইলাইটস

  • গড়ে ১৩,০০০ শব্দে আর্থিক নীতির বিবরণ প্রকাশ করত আরবিআই।
  • এখন রিজার্ভ ব্যাঙ্ক তাদের বিবরণে গড়ে ৩,০৮৪ শব্দ করে রাখে।
  • ফেডেরাল রিজার্ভের বিবরণে গড়ে ৫০০ শব্দ থাকে।
More News