Budget 2019: জেনে নিন কেন্দ্রীয় বাজেটের সঙ্গে মেশার পরে রেল বাজেটে কোন কোন বড় ঘোষণা হয়েছে

২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ৯২ বছরের পুরনো পদ্ধতির অবসান ঘটিয়ে রেল বাজেট ও সাধারণ বাজেট একসঙ্গেই পেশ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

Budget 2019: জেনে নিন কেন্দ্রীয় বাজেটের সঙ্গে মেশার পরে রেল বাজেটে কোন কোন বড় ঘোষণা হয়েছে

২০১৭ সালে তৎকালীন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি প্রথমবারের জন্য কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করেন, যার অন্যতম অংশ হিসেবে রাখা হয়েছিল রেল বাজেটকে।

হাইলাইটস

  • আগামী ৫ জুলাই কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন
  • ২০১৭ সালে রেল বাজেট ও সাধারণ বাজেট একসঙ্গেই পেশ করা হয়
  • ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে প্রথম ঘোষণা করা হয়

আগামী ৫ জুলাই ২০১৯-২০ সালের কেন্দ্রীয় বাজেট (Union Budget) পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী (Finance Minister) নির্মলা সীতারামন (Nirmala Sitharaman)। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ৯২ বছরের পুরনো পদ্ধতির অবসান ঘটিয়ে রেল বাজেট ও সাধারণ বাজেট একসঙ্গেই পেশ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেইমতো ২০১৭ সালে তৎকালীন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি প্রথমবারের জন্য কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করেন, যার অন্যতম অংশ হিসেবে রাখা হয়েছিল রেল বাজেটকে। এই বছরের বাজেট ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তনের পরে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারের প্রথম কেন্দ্রীয় বাজেট। এবারও এর মধ্যে রেল বাজেটটি রয়েছে।

জেনে নিন ২০১৯-এর অন্তর্বর্তী বাজেটে রেল সম্পর্কে প্রধানত কী কী ঘোষণা হয়েছিল এবং ২০১৭ ও ২০১৮ সালের বাজেটে কী কী ঘোষণা হয়েছিল:

অন্তবর্তী বাজেট ২০১৯​

১. ২০১৯ সালের অন্তবর্তী বাজেটে ৬৪,৫৮৭ কোটি টাকা বণ্টন করা হয়েছিল এবং মুখ্য ব্যয়ের অঙ্ক হিসেবে রাখা হয়েছিল ১.৫৮ লক্ষ কোটি টাকা।

২. ২০১৯-২০ সালের বাজেটে প্রস্তাবিত মূলধন ছিল ৬৪,৫৮৭ কোটি টাকার।

৩. বাজেটে নতুন লাইনের জন্য বণ্টিত অর্থ ছিল ৭,২৫৫ কোটি টাকা। পাশাপাশি গেজ রূপান্তরের জন্য ২,২০০ কোটি টাকা, ট্র্যাক ডাবলিং বাবদ ৭০০ কোটি টাকা, রোলিং স্টকের জন্য ৬,১১৪.৮২ কোটি টাকা ও সিগন্যালিং ও টেলিকমের জন্য ১,৭৫০ কোটি চাকা বরাদ্দ করা হয়েছিল।

বাজেট ২০১৮

১. প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি মুখ্য ব্যয় হিসেবে ১.৪৮ লক্ষ কোটি টাকার কথা জানান ২০১৮ সালের বক্তৃতায়।

২. পাশাপাশি তিনি প্রস্তাব দেন ১৮,০০০ কিমি লাইনের ডবলিংয়ের জন্য।

৩. ৩৬,০০০ কিমি রেল ট্র্যাকের নবীকরণের লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয় ওই বাজেটে। পাশাপাশি ব্রড গেজ রুটে ৪,২৬৭টি রক্ষীবিহীন রেলওয়ে ক্রসিংকে দু'বছরের মধ্যে সরিয়ে নেওয়ার কথাও বলা হয়েছিল।

৪. আধুনিকীকরণের জন্য চিহ্নিত করা হয়েছিল ৬০০ স্টেশনকে।

বাজেট ২০১৭

১. ২০১৭-১৮ সালের জন্য রেলের সর্বমোট মূলধন ও উন্নয়ন খাতে ব্যয় বাবদ ১,৩১,০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়।

২. যাত্রী সুরক্ষার জন্য ‘রাষ্ট্রীয় রেল সংরক্ষা কোষ'-এর ঘোষণা করা হয় ও ১ লক্ষ কোটি টাকা পাঁচ বছরের মেয়াদের জন্য ঘোষিত হয়।

৩. ৫০০টি স্টেশনে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন মানুষদের জন্য লিফট ও এসক্যালেটরের ব্যবস্থা রাখার কথা বলা হয়।

৪. এছাড়াও ৭,০০০ স্টেশনে মাঝারি শক্তিসম্পন্ন সৌরশক্তি ব্যবস্থা রাখার প্রস্তাবও গ্রহণ করা হয়।

৫. রেলের কোচ সংক্রান্ত অভিযোগ ও আবেদন জানানোর জন্য ‘কোচ-মিত্র'-র কথা ঘোষণা করা হয়।