পোস্ট অফিসের ডেবিট কার্ড করবেন কীভাবে, জেনে নিন নিয়ম

পোস্ট অফিস অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে নগদ অর্থে খুলতে হবে। ৫০০ টাকা দিয়ে অ্যাকাউন্ট খুললে তবেই চেকের সুবিধা মিলবে।

পোস্ট অফিসের ডেবিট কার্ড করবেন কীভাবে, জেনে নিন নিয়ম

একদিনে সর্বোচ্চ ২৫,০০০ টাকা তোলা যাবে এই এটিএম কার্ডের সাহায্যে।

ভারতীয় ডাক বিভাগ (India Post) চিঠিপত্র বিলির পাশাপাশি আর্থিক পরিষেবাও দেয়। বহু মানুষই ব্যাঙ্কের সঙ্গে পোস্ট অফিসেও টাকা রাখেন। নানা রকম অ্যাকাউন্ট (Account) হয়। সেভিংস অ্যাকাউন্ট (Savings Account), ফিক্সড ডিপোজিট অ্যাকাউন্ট, মাসিক রোজগার যোজনা অ্যাকাউন্ট, বর্ষীয়ান নাগরিকদের জন্য সঞ্চয় প্রকল্প এবং রেকারিং অ্যাকাউন্ট। indiapost.gov.in-এর দেওয়া তথ্য থেকে জানা যাচ্ছে, পোস্ট অফিসে সেভিংস অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে ন্যূনতম ব্যালান্স রাখতে হবে মাত্র ২০ টাকা। চেকের সুবিধা নিতে গেলে ন্যূনতম ব্যালান্স রাখতে হবে ৫০ টাকা। রয়েছে এটিএম কার্ডের সুবিধা। বর্তমান ত্রৈমাসিকের হিসেবে বছরে ৪ শতাংশ সুদ মিলবে।

পোস্ট অফিস অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে নগদ অর্থে খুলতে হবে। ৫০০ টাকা দিয়ে অ্যাকাউন্ট খুললে তবেই চেকের সুবিধা মিলবে। সেক্ষেত্রে ন্যূনতম ব্যালান্স রাখতে হবে ৫০০ টাকা।

টেকনিক্যাল কারণে এটিএম ট্র্যানজাকশন বাতিল হলে তা গণ্য হবে না, জানাল আরবিআই

জেনে নিন পোস্ট অফিসের এটিএম কার্ড সম্পর্কে নানা তথ্য:

একদিনে সর্বোচ্চ ২৫,০০০ টাকা তোলা যাবে এটিএম কার্ডের সাহায্যে। একবারে সর্বোচ্চ ১০,০০০ টাকা তো‌লা যাবে।

একদিনে পাঁচটি ট্র্যানজাকশন পাওয়া যাবে বিনামূল্যে। মেট্রো শহরের অন্য ব্যাঙ্কের এটিএম থেকে টাকা তুললে মাসে তিনটি ট্র্যানজাকশন পাওয়া যাবে বিনামূল্যে।

রেপো রেট ০.৩৫ শতাংশ কমাল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

তবে পোস্ট অফিস এটিএম কার্ড ব্যবহারকারীদের পাঁচটি ট্র্যানজাকশনের জন্য কোনও চার্জ কাটে না যদি সেটি মেট্রো শহর না হয়ে অন্য শহরের ব্যাঙ্কের এটিএম কাউন্টার হয়।

অন্য ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তোলার ক্ষেত্রে, ট্র্যানজাকশন নির্ধারিত সীমা অতিক্রম করে গেলে পরবর্তী প্রতিটি ট্র্যানজাকশনে ২০ টাকা (সেই সঙ্গে জিএসটি বাবদ অতিরিক্ত খরচ) কাটা হবে।

More News