জুলাই-সেপ্টেম্বরে অর্থনৈতিক বৃদ্ধির হার ৪.৫%, ছ’বছরে সবচেয়ে কম

এই সপ্তাহেই অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানিয়েছিলেন, ‘‘বৃদ্ধি আরও কমতে পারে। কিন্তু এটা মন্দা নয়। কখনওই মন্দা হবে না।’’

২০১৩ সালের জানুয়ারি-মার্চের পর এই প্রথম ৫ শতাংশের নীচে নামল বৃদ্ধির হার।

হাইলাইটস

  • দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে বৃদ্ধির হার (GDP) কমে দাঁড়াল মাত্র ৪.৫ শতাংশ
  • আগের ত্রৈমাসিকে ৫ শতাংশ থাকার পরে এবার আরও নীচে নামল বৃদ্ধির হার
  • ২০১৩ সালের জানুয়ারি-মার্চের পর এই প্রথম ৫ শতাংশের নীচে নামল বৃদ্ধির হার

গত ছ'বছরের রেকর্ড ভেঙে দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে বৃদ্ধির হার (GDP) কমে দাঁড়াল মাত্র ৪.৫ শতাংশ (GDP grew 4.5 per cent)। আগের ত্রৈমাসিকে ৫ শতাংশ থাকার পরে এবার আরও নীচে নামল অর্থনৈতিক বৃদ্ধির হার। ২০১৮ সালে দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে বৃদ্ধির হার ছিল ৭ শতাংশ। অর্থনীতিবিদদের আশঙ্কার চেয়েও খারাপ জায়গায় পৌঁছে গেল বৃদ্ধির হার। অর্থনীতিবিদরা আশঙ্কা করেছিলেন দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে বৃদ্ধির হার নেমে দাঁড়াবে ৪.৭ শতাংশে। কিন্তু সেই হিসেবকেও হার মানাল তথ্য। ২০১৩ সালের জানুয়ারি-মার্চের পর এই প্রথম ৫ শতাংশের নীচে নাম বৃদ্ধির হার। সেই সময় অর্থনৈতিক বৃদ্ধির হার ছিল ৪.৩ শতাংশ।

শুক্রবার প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যাচ্ছে, বহু অর্থনীতিবিদেরই আশা ছিল সদ্যসমাপ্ত উৎসবের মরশুমের উপরে ভিত্তি করে বাজারে চাহিদার খানিক বৃদ্ধি লক্ষ করা যাবে।

vugm5fq

সরকার আশা ব্যক্ত করে জান‌িয়েছে, অর্থনৈতিক বৃদ্ধি আবার গতি বাড়াবে। গত কয়েক মাসে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে একাধিক পদক্ষেপ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। বিদেশি লগ্নিকারীদের উপর থেকে অধিক কর প্রত্যাহার থেকে কর্পোরেট কর হ্রাস— গত কয়েক মাসে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে একাধিক পদক্ষেপ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

এই সপ্তাহেই অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানিয়েছিলেন, ‘‘বৃদ্ধি আরও কমতে পারে। কিন্তু এটা মন্দা নয়। কখনওই মন্দা হবে না।'' বুধবার রাজ্যসভায় এই কথা জানান অর্থমন্ত্রী।

অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে এর আগে আরবিআই রেপো রেট কমিয়েছে। এবছর পাঁচ বার রেপো রেট কমিয়ে সব মিলিয়ে ১৩৫ বেসিস পয়েন্ট কমিয়েছে তারা। বহু অর্থনীতিবিদ মনে করছেন ডিসেম্বরে সুদের হার আরও কমাতে পারে আরবিআই। আরও ২৫ বেসিস পয়েন্ট কমিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে আক্রমণাত্মক কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক হয়ে উঠতে পারে আরবিআই।

More News