সুখবর! EPF –এ সুদের হার বাড়ল

EPF এ, বেতনের ১২ শতাংশ দেন কর্মচারীরা, বাকি সমান অংশের বিনিয়োগ করে সংস্থা

সুখবর! EPF –এ সুদের হার বাড়ল

২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে কর্মচারী প্রভিডেন্ট ফান্ডে (EPF) সুদের হার ৮.৬৫ করায় অনুমোদন দিল সরকার। এই সুদে অঙ্ক পাবেন এমপ্লয়ার্স প্রভিডেন্ট ফান্ডের (Employees' Provident Fund Organization) প্রায় ৬ কোটি উপভোক্তা, এমনটাই জানানো হয়েছে রিপোর্টে। কর্মচারী প্রভিডেন্ট ফান্ডের ক্ষেত্রে ১২ শতাংশ বিনিয়োগ করেন কর্মচারী, সমান অর্থের অর্থাৎ আরও ১২ শতাংশ দেয় সংস্থা, সরকারের ওয়েবসাইট epfindia.gov.in. থেকে এমনটাই জানা গিয়েছে। সন্তোষ কুমার গাঙ্গোয়ার বলেন, “শ্রমমন্ত্রকের তরফে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে,কর্মচারী প্রভিডেন্ট ফান্ডের সুদের হার ৮.৬৫ করা হয়েছে। ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষে তা ছিল ৮.৫৫, বর্তমান অর্থবর্ষে তার ১০ বেসিস পয়েন্ট বৃদ্ধি করা হয়েছে।

ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের প্রতিবাদে ২৬ ও ২৭ সেপ্টেম্বর ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের ডাক

২০১৯ এর ২২ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় ট্রাস্টির তরফে তা  সুদের হার অনুমোদন করা হয়েছে। কেন্দ্রীয়মন্ত্রী বলেন, “আমরা ২০১৯ এর ১৯ সেপ্টেম্বর অর্থমন্ত্রকের সম্মতি পাই। তারপরেই, ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষের জন্য কর্মচারী প্রভিডেন্ট ফান্ডে সুদের হার ৮.৬৫ করার বিজ্ঞপ্তি জারি করে শ্রমমন্ত্রক”। কেন্দ্রীয়মন্ত্রী আরও জানান, এই সিদ্ধান্তের ফলে ইপিএফও এর প্রায় ৬ কোটিরও বেশী উপভোক্তার অ্যাকাউন্টে ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে ৮.৬৫ শতাংশ সুদের হারে ৫৪,০০০ হাজার কোটি টাকা ঢুকবে।

দুবছরে পেট্রোলের দাম সবচেয়ে বেশী বেড়েছে গত ৬ দিনে: রিপোর্ট

গতমাসে, ইপিএফও (EPFO) তরফে, ২০০৯ এমপ্লয়িজ স্কিমের বদলের প্রস্তাব অনুমোদন করে ইপিএফও। ইপিএফ প্রকল্পের মাধ্যমে ২০দিনের মধ্যে চূড়ান্ত প্রভিডেন্ট ফান্ড তৈরি হয়।যাইহোক, ইস্তফার ক্ষেত্রে, প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকা তোলার ক্ষেত্রে ২ মাসের অপেক্ষা করতে হয় কর্মচারী বা ওই সদস্যকে। গ্রাহক, নির্দিষ্ট কিছু শর্তে, অর্থের আংশিক অংশ তোলার সম্মতি রয়েছে ইপিএফও-এর।

অনুমোনদনের জন্য, আংশিক টাকা তোলার আগে, কাজ প্রদানকারী বা সংস্থার কাছে পাঠানো হয়। ইপিএফও এর ওয়েবসাইট অনুযায়ী, অনুমোদন হয়ে যাওয়ার ১০ দিনের মধ্যে, টাকা চলে যায় উপভোক্তার অ্যাকাউন্টে।

More News