This Article is From Aug 28, 2019

একক ব্র্যান্ডের খুচরো পণ্য, ডিজিটাল মিডিয়া, উৎপাদনে FDI নিয়ে বড় পদক্ষেপ কেন্দ্রের

Centre on FDI: চলতি সপ্তাহের গোড়ার দিকে, ১.৭৬ লক্ষ কোটি টাকা সরকারকে দেওয়ার অনুমোদন দেয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া।

একক ব্র্যান্ডের খুচরো পণ্য, ডিজিটাল মিডিয়া, উৎপাদনে FDI  নিয়ে বড় পদক্ষেপ কেন্দ্রের

দেশের অর্থনীতির গতি ফেরাতে, খুচরো ব্যবসা, ডিজিটাল মিডিয়া এবং উৎপাদন শিল্পে প্রত্যক্ষ বিদেশী বিনিয়োগের ( FDI) নিয়ম শিথিল করল কেন্দ্রীয় সরকার। এই পদক্ষেপের মধ্যে রয়েছে বেশ কিছু বিনিয়োগ-বান্ধন নীতিও---তারমধ্যে রয়েছে, একক ব্র্যান্ডের খুচরো ব্যবসার ক্ষেত্রে ভারতে ৩০ শতাংশ সোর্সিং,  চুক্তিভিত্তিক উৎপাদনের ক্ষেত্রে ১০০ শতাংশ বিদেশী বিনিয়োগকে বৈধ করার মতো পদক্ষেপ, বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তের কথা জানান কেন্দ্রীয়মন্ত্রী পিযুষ গোয়েল  (Piyush Goyal) । একক ব্র্যান্ডের খুচরো ব্যবসার ক্ষেত্রে ৩০ শতাংশ স্থানীয় সোর্সিং এর নিয়ম শিথিল করা হয়েছে। স্থানীয় সোর্সিং এর ক্ষেত্রেও তা প্রতি বছরের জায়গায় পাঁচ বছর করা হয়েছে। এর ফলে সংস্থাগুলি লাভবান হবে বলে করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন ক্যাবিনেট কমিটির তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, ব্র্যান্ডের জন্য, ভারতে করা সমস্ত কাজ স্থানীয় সোর্সিং হিসেবে গণ্য করা হবে।

বাজেটে বিদেশী বিনিয়োগের বিষয়টি ঘোষণা করেছিলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। মনে করা হচ্ছে, বর্তমান বাজারমূ্ল্য অনুযায়ী তা করা হবে। ডিজিটাল পেমেন্ট, লজিটিক্স, গ্রাহক পরিষেবা কেন্দ্র, প্রশিক্ষণের মতো ক্ষেত্রগুলিতে কর্মসংস্থান তৈরি হবে জানান কেন্দ্রীয়মন্ত্রী।

রফতানির ক্ষেত্রে পাঁচবছরের যে নিয়ম ছিল, তা প্রত্যাহার করা হয়েছে, তার জায়গায় এবার থেকে সংস্থাগুলি, ভারতে তৈরি করা তাদের পণ্য রফতানি চালিয়ে যেতে পারবে।  

কেন্দ্রীয়মন্ত্রী পিযুষ গোয়েল জানান, এক বা বহু-ব্র্যান্ডের খুচরো ব্র্যান্ডের ক্ষেত্রের সংস্থাগুলি এখন থেকে “দোকান বা, কোনও ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান না খুলেই অনলাইনে ব্যবসা করতে পারবে”।এর ফলে IKEA এর মতো আসবাব সংস্থাগুলি লাভবান হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, কয়লা বিক্রির ক্ষেত্রে, এবং খননের অটোমেটিক রুটের মাধ্যমে ১০০ শতাংশ বিদেশী বিনিয়োগ করা যাবে এবং পরিকাঠামো তৈরির ক্ষেত্রে পর্যন্ত,যা কিনা, বিদেশী মাধ্যমের অন্যতম আকর্ষণীয়, এবার তা করা যাবে।

বুধবার ক্যাবিনেট বৈঠকের পর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পিযুষ গোয়েল বলেন, “FDI আইনের পরিধি বাড়ানো হয়েছে। FDI এর বিষয়টি সরলীকরণ করা হয়েছে। এই পদক্ষেপ যুবকদের কর্মসংস্থান বাড়াবে। ভারতকে আমরা একটি উৎপাদন শিল্পের কেন্দ্র হিসেবে দেখব”।

২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে ভারত ৬৪.৩ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ টানতে পারবে বলে মনে করা হচ্ছে।

চলতি সপ্তাহের গোড়ার দিকে, ১.৭৬ লক্ষ কোটি টাকা সরকারকে দেওয়ার অনুমোদন দেয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। সেই পদক্ষেপটিকে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক থেকে চুরি বলে মন্তব্য করেছেন রাহুল গান্ধি।

.