করোনার মাত্রা নিয়ে ব্যাঙ্গাত্মক টুইটে প্রধানমন্ত্রীকে বিঁধলেন যশবন্ত সিনহা

মোদির চিঠিতে উল্লেখ করা সেই স্বর্ণ অধ্যায়কে কটাক্ষ করে এদিন ব্যাঙ্গের সুরে বিঁধেছেন যশবন্ত সিনহা

করোনার মাত্রা নিয়ে ব্যাঙ্গাত্মক টুইটে প্রধানমন্ত্রীকে বিঁধলেন যশবন্ত সিনহা

প্রথম থেকেই মোদি সরকারের সমালোচনায় সরব প্রাক্তন মন্ত্রী যশবন্ত সিনহা।

হাইলাইটস

  • করোনা সংক্রমণ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে টুইট করে বিঁধলেন যশবন্ত সিনহা
  • "স্বর্ণ অধ্যায় ফিরিয়ে আনার জন্য ধন্যবাদ", কটাক্ষ এই রাজনীতিবিদের
  • ২০১৮ সালে বিজেপি সংস্রব ত্যাগ করছেন যশবন্ত সিনহা
নয়া দিল্লি:

ব্যাঙ্গাত্মক টুইট করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (PM Modi) অভিনন্দন জানালেন যশবন্ত সিনহা। "ভারতীয় গণতন্ত্রের স্বর্ণ অধ্যায় ফিরিয়ে আনার জন্য অভিনন্দন।" এই ভাষাতেই টুইট করেছেন বাজপােয়ী সরকারের আমলের এই মন্ত্রী (Yashwant Sinha tweeted against Modi)। সূত্রের খবর, সংক্রমণের বিচারে (Covid-19) বিশ্বে এখন প্রথম ৮-এ ভারত। পাশাপাশি লাগাতার ভাবে নিম্নমুখী আর্থিক বৃদ্ধি। এই দুই পরিস্থিতিকে কটাক্ষ করতে গিয়েই এদিন এমন ব্যাঙ্গাত্মক পোস্ট করেছে যশবন্ত সিনহা।২০১৮ সালে দল-সহ সরকার পরিচালনায় মোদি-শাহের ভুমিকার সমালোচনা করে বিজেপি থেকে পদত্যাগ করেছেন যশবন্ত সিনহা। দু'দিন আগে অর্থাৎ ৩০ মে শনিবার, দ্বিতীয় মোদি সরকার গঠনের প্রথম বর্ষপূর্তি উদযাপিত হয়েছে। সেদিন টুইটারে দেশবাসীর উদ্দেশে চিঠি লিখেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি উল্লেখ করেছিলেন, গত বছর এই দিনে দেশের গণতন্ত্রের ইতিহাসে স্বর্ণ অধ্যায় রচিত হয়েছিল।কয়েক দশক পর দেশের মানুষ গণতান্ত্রিক উপায়ে একক সংখ্যাগরিষ্ঠ সরকারকে দ্বিতীয়বার নির্বাচিত করেছিল।

মন্ত্রিসভার বৈঠকে "ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত" নিতে পারেন প্রধানমন্ত্রী: সরকারি সূত্র

মোদির চিঠিতে উল্লেখ করা সেই স্বর্ণ অধ্যায়কে কটাক্ষ করে এদিন ব্যাঙ্গের সুরে বিঁধেছেন যশবন্ত সিনহা। বাজপেয়ী সরকারের মন্ত্রিসভায় অর্থ মন্ত্রকের দায়িত্ব সামলেছেন এই প্রবীণ রাজনীতিবিদ। তাঁর সঙ্গে অধুনা বিজেপির সম্পর্ক চিহ্ন হলে, যশবন্ত-পুত্র জয়ন্ত সিনহা মোদি মন্ত্রিসভার সদস্য। 

"করোনা ভাইরাসকে (Coronavirus) রুখে দিতে পারে আমাদের করোনা যোদ্ধারা", বললেন প্রধানমন্ত্রী (PM Modi)। নরেন্দ্র মোদির মতে, হতেই পারে যে অদৃশ্য শত্রুর মতো চুপিসাড়ে আক্রমণ করছে করোনা, কিন্তু আমাদের দেশের করোনা যোদ্ধারা, আমাদের চিকিৎসকরাও অজেয়। প্রধানমন্ত্রী মোদি সোমবার সকালে একটি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ওই বার্তা দেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বড় লাফ, নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ৮,৩৯২ জন

এতদিন ধরে ভারতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণকে রুখতে লাগাতার লকডাউনের পথে হেঁটেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু এই অবস্থায় দেশের সামগ্রিক অর্থনীতি একেবারে তলানিতে গিয়ে পৌঁছেছে, ওদিকে দেশে করোনা সংক্রমণের গতিও রোধ করা যায়নি। তাই এবার লকডাউন শিথিল করে ধীরে ধীরে ফের স্বাভাবিক জীবনের পথে ফেরার চেষ্টা শুরু হয়েছে।

"অদৃশ্য শত্রু বনাম অদম্য যুদ্ধে, আমাদের চিকিৎসক তথা স্বাস্থ্য কর্মীরা অবশ্যই বিজয়ী হবেন", সোমবারের ভিডিও বার্তায় একথাই বলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।