বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসের নাম বদলে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের নামে করার প্রস্তাব উপরাষ্ট্রপতির

এদিন বিশেষ চাহিদাসম্পন্নদের আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে জাতীয় পুরস্কার দেওয়া হয় না ক্ষেত্রে অবদান রাখা বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের।

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসের নাম বদলে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের নামে করার প্রস্তাব উপরাষ্ট্রপতির

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন উপরাষ্ট্রপতি এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু। (ফাইল)

৩ ডিসেম্বর বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস (World Disabled Day)। এই দিনটির নাম বদলে ‘‘বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের আন্তর্জাতিক দিবস'' করা হোক। কেননা বহু বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন মানুষ সমাজে নানা ক্ষেত্রে অবদান রেখেছেন এবং প্রমাণ করে দিয়েছেন, কোনও কিছুই তাঁদের আচকাতে পারবে না লক্ষ্যে পৌঁছতে। মঙ্গলবার বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে একথা জানিয়েছেন উপরাষ্ট্রপতি এম ভেঙ্কাইয়া ন‌াইডু (M Venkaiah Naidu)।

৩ ডিসেম্বর বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস। এই দিনটির নাম বদলে ‘‘বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের আন্তর্জাতিক দিবস'' করা হোক। কেননা বহু বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন মানুষ সমাজে নানা ক্ষেত্রে অবদান রেখেছেন এবং প্রমাণ করে দিয়েছেন, কোনও কিছুই তাঁদের আচকাতে পারবে না লক্ষ্যে পৌঁছতে। মঙ্গলবার বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে একথা জানিয়েছেন উপরাষ্ট্রপতি এম ভেঙ্কাইয়া ন‌াইডু। এদিন বিশেষ চাহিদাসম্পন্নদের আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে জাতীয় পুরস্কার দেওয়া হয় না ক্ষেত্রে অবদান রাখা বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের। সেই অনুষ্ঠানে এসে একথা বলেন উপরাষ্ট্রপতি। তিনি জানান, এই দিনটিকে ‘‘বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের আন্তর্জাতিক দিবস'' হিসেবে পালন করা হোক।

তিনি বলেন, ‘‘আমরা বহু স্মরণীয় পুরুষ ও মহিলাকে পেয়েছি যাঁরা বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন। তাঁরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করেছেন। ঠিকমতো পরিবেশ পরিস্থিতি পেলে তাঁদের দেশের কল্যাণের জন্য বিরাট অবদান রাখতে পারেন।''

পাশাপাশি তিনি এদিনের বিজয়ীদের ‘‘অধ্যাবসায় ও সাহসের'' প্রশংসা করেন।

ভেঙ্কাইয়া নাইডু জানান, ২০১১ সালের জনগণনায় দেখা গিয়েছে পৃথিবীর মধ্যে সবথেকে বেশি বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তি ভারতেই থাকেন। তাঁদের সংখ্যা ২.৬৮ কোটি।

উপরাষ্ট্রপতি বলেন, এই ধরনের মানুষদের বহু সামাজিক ও আর্থিক পরিস্থিতির শিকার হতে হয়।

পাশাপাশি তিনি জানান, ১৯৯০-এর তুলনায় ২০১৬ সালে রাস্তায় দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার ঘটনা ৬৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি এর জন্য রাস্তার ন‌িরাপত্তা বাড়ানোর দাবি করেন।

পাশাপাশি তিনি বলেন, ‘‘আমি আবেদন করছি সমস্ত কর্পোরেট ও বেসরকারি সংস্থাকে, যাতে তারা বিশেষ চাহিদাসম্পন্নদের জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত পরিকাঠামো তৈরি করার জন্য পদক্ষেপ করতে।''

তিনি জানান, এই দিনটিকে ‘‘বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের আন্তর্জাতিক দিবস'' হিসেবে পালন করা হোক।

তিনি বলেন, ‘‘আমরা বহু স্মরণীয় পুরুষ ও মহিলাকে পেয়েছি যাঁরা বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন। তাঁরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করেছেন। ঠিকমতো পরিবেশ পরিস্থিতি পেলে তাঁদের দেশের কল্যাণের জন্য বিরাট অবদান রাখতে পারেন।''

পাশাপাশি তিনি এদিনের বিজয়ীদের ‘‘অধ্যাবসায় ও সাহসের'' প্রশংসা করেন।

ভেঙ্কাইয়া নাইডু জানান, ২০১১ সালের জনগণনায় দেখা গিয়েছে পৃথিবীর মধ্যে সবথেকে বেশি বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তি ভারতেই থাকেন। তাঁদের সংখ্যা ২.৬৮ কোটি।

উপরাষ্ট্রপতি বলেন, এই ধরনের মানুষদের বহু সামাজিক ও আর্থিক পরিস্থিতির শিকার হতে হয়।

পাশাপাশি তিনি জানান, ১৯৯০-এর তুলনায় ২০১৬ সালে রাস্তায় দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার ঘটনা ৬৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি এর জন্য রাস্তার ন‌িরাপত্তা বাড়ানোর দাবি করেন।

তিনি আরও বলেন, ‘‘আমি আবেদন করছি সমস্ত কর্পোরেট ও বেসরকারি সংস্থাকে, যাতে তারা বিশেষ চাহিদাসম্পন্নদের জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত পরিকাঠামো তৈরি করার জন্য পদক্ষেপ করতে।''



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News