মেট্রো স্টেশনে মহিলাকে লক্ষ্য করে হস্তমৈথুনের অভিযোগ যুবকের বিরুদ্ধে

গুরগাঁওয়ের এক মেট্রো স্টেশনে এক মহিলাকে লক্ষ্য করে হস্তমৈথুনের অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির দিকে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
মেট্রো স্টেশনে মহিলাকে লক্ষ্য করে হস্তমৈথুনের অভিযোগ যুবকের বিরুদ্ধে

মহিলার অভিযোগ, কেউ তাঁকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেনি (প্রতীকী)


নিউ দিল্লি: 

গুরগাঁওয়ের (Gurgaon) এক মেট্রো স্টেশনে এক মহিলাকে লক্ষ্য করে হস্তমৈথুনের (Masturbation) অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির দিকে। মহিলার অভিযোগ, তিনি যখন চলন্ত সিঁড়ি দিয়ে উঠছিলেন তখনই তাঁর সঙ্গে ওই জঘন্য কাজ (Masturbation) করেন অভিযুক্ত। তিনি তাঁর ক্ষোভ উগরে দেন টুইটারে। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ও অন্যান্য কর্তৃপক্ষর কাছে তিনি জন পরিবহনে মেয়েদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে ট্যাগ করে তিনি টুইট করেন, ‘‘আমি আতঙ্কিত, ভীত ও মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত। এবং আমি লজ্জিত মেট্রো, যাকে ধরা হয় মেয়েদের পরিবহনের জন্য সবচেয়ে নিরাপদ, যেখানে মুখ্যমন্ত্রী মেয়েদের বিনামূল্যে পরিবহনের প্রস্তাব দিয়েছেন, সেটি নিরাপত্তার দিক দিয়ে প্রথম স্থানটি হারিয়েছে... আমাদের বিনামূল্যে পরিবহনের দরকার নেই। আমরা চাই নিরাপত্তা, যেটার ব্যাপারে প্রতিটি সরকার প্রতিশ্রুতি দেয়, কিন্তু কেউই আমাদের দিতে পারে না। বাইরে বেরোতে আমরা ভয় পাই। ৯.২৫ কি খুব ‌রাত?''

“বর্ণবিদ্বেষী” মন্তব্যের জের, রবীন্দ্রভারতীর চার বিভাগীয় প্রধানের পদত্যাগ

অরবিন্দ কেজরিওয়াল মহিলাদের দিল্লি মেট্রো ও সরকারি বিনা খরচে যাতায়াতের ব্যাপারে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। যা সম্পর্কে অনেকেই জানিয়েছেন, এতে মহিলাদের নিরাপত্তার বিষয়টির সমাধান হচ্ছে না এবং মেট্রোর আয়ও কমবে।

হুডা সিটি সেন্টার মেট্রো স্টেশনে ভয়াবহ অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হওয়ার পরে ওই মহিলা তাঁর টুইটে আরও লেখেন, ‘‘আমি এসক্যালেটর দিয়ে নামছিলাম স্টোরের ঠিক বাইরে, তখনই আমি বুঝতে পারলাম আমার পিছন দিকে কিছু একটা অনভিপ্রেত ঘটে গেছে। পিছনে তাকাতেই দেখতে পাই আমার পিছনেই একজন দাঁড়িয়ে রয়েছে। তখনই বুঝতে পারি লোকটা স্বমেহন করেছে... আমি তাকে টেনে চড় মারি। সে উল্টে আমাকে গালিগালাজ করতে থাকে। আশপাশের পথচলতি মানুষরা আমার মুখের দিকে তাকাচ্ছিলেন। আমি চিৎকার করে সাহায্য চাই পুলিশের কাছে। কিন্তু কেউই এগিয়ে আসেনি।''

njcg9lo

তিনি আরও লেখেন, ‘‘এতেই ওই লোকটি সুযোগ পেয়ে যায় ও দৌড়ে পালায়। আমি বাইরের পুলিশ চৌকির দিকে যাই। কিন্ত সেটা দেখলাম বন্ধ! কেউ কোথাও নেই... ওই রাতেই আমি গুরুগ্রাম পুলিশের ফেসবুক মেসেঞ্জারে একটি লিখিত অভিযোগ জানাই। তারা সেটি পড়লেও সাড়া দেয়নি। আমি দিল্লি মেট্রো সংস্থাকেও টেক্সট পাঠাই। তখন আমাকে ডেকে পাঠানো হয় সিসিটিভি দেখে লোকটিকে সনাক্ত করার জন্য। আমি গতকাল সেখানে গিয়েছিলাম।'' এরই সঙ্গে ওই মহিলা এও জানান, সম্পূর্ণ আইনি ব্যবস্থা তাঁকে সাড়া দিতে ব্যর্থ।

দিল্লি মেট্রো কেন্দ্র ও দিল্লি সরকারের মধ্যে ৫০: ৫০ অংশীদারিতে চলে। সিআইএসএফ, যেটি অমিত শাহর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অধীনে, রাজ্য পুলিশের সহযোগিতায় সেখানকার নিরাপত্তার বিষয়টি দেখাশোনা করে।

গুরগাঁও পুলিশ জানিয়েছে তারা অভিযুক্তকে খুঁজছে। শিগগিরি তাকে গ্রেফতার করা হবে। একটি টুইটে তারা জানিয়েছে, ‘‘স্যার/ ম্যাম এসিপি ঊষা কুণ্ডু তাঁর দলকে নিয়ে ঘটনাস্থলে (হুডা সিটি সেন্টার মেট্রো স্টেশন) পরিদর্শন করতে গিয়েছেন এবং দিল্লি মেট্রো প্রশাসনের সহযোগিতায় প্রমাণ সংগ্রহ করছেন।''

ওই মহিলা জানিয়েছেন, পুলিশ সাহায্যের আবেদনে সাড়া দিতে দেরি করেছে। তিনি বলেন, ‘‘আমি এই ব্যবস্থার উপরে লজ্জিত, যেখানে আমরা রোজ ধর্ষণ ও শ্লীলতাহানির খবর পড়ি খবরের কাগজে। টিভি শো-তে আমাদের সুরক্ষিত ও নিরাপদে থাকতে বলা হয়। কিন্তু গ্রাউন্ড জিরোতে কী ঘটছে? কিছুই না... কেন কমপ্লেক্সের ভিতরে যথেষ্ট পরিমাণে সিসিটিভি ক্যামেরা ছিল না? কী করে লোকটা পালিয়ে গেল?''



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................