"জঙ্গিদের সাহায্য করা বন্ধ করুন", পাকিস্তানকে তোপ আমেরিকার

অবিলম্বে জঙ্গি সংগঠনগুলিকে 'সাহায্য করা' বন্ধ করে তাদের উপযুক্ত 'শিক্ষা' দেওয়ার কথা জানিয়ে পাকিস্তানকে ধমক দিল আমেরিকা।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

পুলওয়ামায় হানার দায় স্বীকার করেছে জইশ-ই-মহম্মদ।


ওয়াশিংটন: 

হাইলাইটস

  1. হানার বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার বিবৃতি দেন হোয়াইট হাউজের মিডিয়া সচিব
  2. এই হানার তীব্র নিন্দা করেছে আমেরিকা
  3. জঙ্গিহানায় শহিদ হন ৪০ এর বেশি জওয়ান।

অবিলম্বে জঙ্গি সংগঠনগুলিকে 'সাহায্য করা' বন্ধ করে তাদের উপযুক্ত 'শিক্ষা' দেওয়ার কথা জানিয়ে পাকিস্তানকে ধমক দিল আমেরিকা। জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলায় বৃহস্পতিবারের জঙ্গি হানার তীব্র নিন্দা করেছে ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশ। গতকালের এই হানায় শহিদ হন ৪২ জন সিআরপিএফ জওয়ান। আহত হয়েছেন আরও অনেকে। পাকিস্তানের জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ এই হানার দায় স্বীকার করেছে। বৃহস্পতিবার রাতে একটি বিবৃতি দিয়ে হোয়াইট হাউজের মিডিয়া সচিড সারাহ স্যান্ডার্স বলেন, অবিলম্বে জঙ্গিদের সহায়তা করা বন্ধ করে তাদের বিরুদ্ধে চরম পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য পাকিস্তানকে নির্দেশ দিল আমেরিকা। যে সব জঙ্গিদের আসল উদ্দেশ্য হিংসা ও বিদ্বেষ তৈরি করা, তাদের এই মুহূর্তে কঠোর শাস্তি দেওয়া উচিত।

তিনি আরও বলেন, এই হানা কেবলমাত্র মানবতা বিদ্বেষীদেরই হাত শক্ত করবে। যা কোনওভাবে মেনে নেওয়া যায় না।

Pulwama IED Blast- জইশ-ই-মহম্মদের যে জঙ্গি এই হানা ঘটাল, তার পরিচয় জেনে নিন

স্মরণকালের মধ্যে সেনাবাহিনীর ওপর সবথেকে ভয়াবহ আক্রমণের ঘটনাটি ঘটে গেল বৃহস্পতিবার। জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলায় সিআরপিএফের বাসে ভয়াবহ জঙ্গিহানার ফলে শহিদ হলেন প্রায় ৪০ জনের কাছাকাছি সেনা। আহতের পরিমাণও প্রায় সমান। শ্রীনগরের সেনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাদের। অবন্তীপুরায় এই হামলার দায় স্বীকার করেছে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ। এই হামলার তীব্র নিন্দা করেন প্রায় সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতারাই। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বলেন, অত্যন্ত কাপুরুষের মতো কাজ এটা। এতজন সেনার শহীদ হয়ে যাওয়া মেনে যাওয়া না। আমি তাঁদের আত্মার শান্তি কামনা করি। তাঁদের পরিবারকে সমবেদনা জানাই। আহতদেরও দ্রুত আরোগ্য কামনা করি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরুণ জেটলি টুইট করে বলেন, যারা এই অপরাধ ঘটাল, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে। এমন শাস্তি, যা ওরা কখনও ভুলতে পারবে না। এর আগে ২০১৬ সালে সেপ্টেম্বর মাসে উরির সেনা ছাউনিতে আক্রমণ করা হয়েছিল। সেই সময় শহিদ হন ১৯ জন সেনা। আজকের হামলায় এখনও পর্যন্ত সেনাদের মৃত্যুর সংখ্যা সেই হামলাকেও ছাড়িয়ে গিয়েছে।

Pulwama IED Blast: ১০-১২ কিমি দূর থেকেও পাওয়া গিয়েছিল বিস্ফোরণের শব্দ

যে গাড়ি বিস্ফোরণের ফলে অন্তত এতজন সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যু হল, সেই গাড়িটি চালাচ্ছিল জইশ-ই-মহম্মদের জঙ্গি আদিল আহমেদ দার। সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এই কথা জানানো হয়। কাকাপোরার বাসিন্দা আদিল আহমেদ দার গত বছরই এই সন্ত্রাসবাদী সংগঠনে নিজের নাম লেখায়। তার অন্য দুটি নাম হল ' আদিল আহমেদ গাড়ি টকরানেওয়ালা' এবং 'ওয়াকস কম্যান্ডো অব গুন্দিবাগ'। প্রায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানকে নিয়ে যাচ্ছিল যে বাসটি সেই বাসটিতে ৩৫০ কেজি বিস্ফোরক বোঝাই স্করপিও নিয়ে হানা দেয় আদিল আহমেদ দার। এই ভয়াবহ হানার পরেই তার ছবি এবং ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত হতে থাকে। ২০১৬ সালের উরিতে হানার পর এত ভয়াবহ জঙ্গিহানা সেনার ওপরে এই দেশ আর দেখেনি। প্রসঙ্গত, উরির হানায় প্রাণ হারিয়েছিলেন ১৯ জন সেনা।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একাধিক রাইফেল নিয়ে জইশ-ই-মহম্মদের ব্যানারের সামনে দাঁড়িয়ে রয়েছে আদিল আহমেদ দার। অণুসন্ধানকারীরাও এই হানার ব্যাপকতা দেখে চমকে গিয়েছেন। তার কারণ, জইশ-ই-মহম্মদের নেতৃত্বের প্রায় সবাইকেই গত কয়েক বছরের মধ্যে একেবারে নিশ্চিহ্ন করে দেওয়া হয়েছিল।

গত বছরই জইশ-ই-মহম্মদের প্রধান হিসেবে কাজ করত যে, সেই মহম্মদ উসমানকে নিরাপত্তাবাহিনী মেরে ফেলে। মৌলানা মাসুদ আজহারের ভাইপো ছিল সে।

সিআরপিএফ জওয়ানদের কনভয়ে ভয়াবহ জঙ্গি হানার তীব্র নিন্দা করলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢরা। তিনি শহিদ জওয়ানদের পরিবারকে সমবেদনা জানান। দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন গুরুতর আহত জওয়ানদের জন্য। ৪৭ বছর বয়সী রাজীব-তনয়া সক্রিয় রাজনীতিতে পা রাখার পর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাঁর প্রথম পূর্ণাঙ্গ সাংবাদিক সম্মেলন করবেন বলেও ঠিক ছিল। পুলওয়ামার জঙ্গিহানার জন্য যে সম্মেলন মুলতুবি রাখা হয়। জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলায় সিআরপিএফের কনভয়ের ওপর ভয়াবহ জঙ্গিহানায় শহিদ হলেন অন্তত ৪০ জন সেনা। গুরুতর আহত আরও অনেকে। তাদের মধ্যে ১৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। শ্রীনগরের সেনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁদের। অবন্তীপুরায় এই হামলার দায় স্বীকার করেছে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন জৈশ-ই-মহম্মদ। এই হামলার তীব্র নিন্দা করেন প্রায় সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতারাই। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বলেন, "অত্যন্ত কাপুরুষের মতো কাজ এটা। এতজন সেনার শহীদ হয়ে যাওয়া মেনে যাওয়া না। আমি তাঁদের আত্মার শান্তি কামনা করি। তাঁদের পরিবারকে সমবেদনা জানাই। আহতদেরও দ্রুত আরোগ্য কামনা করি"।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................