রাজ্যে কতটা প্রবল গেরুয়া হাওয়া তা জানতে পুর নির্বাচনের আগে সমীক্ষা চালাবে তৃণমূল

২০২০ সালের municipal polls একটু বেশি মাত্রায় গুরুত্ব পাচ্ছে কেননা অনেকেই মনে করছেন এই নির্বাচনকে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগে "মিনি বিধানসভা নির্বাচন" হিসাবে ভাবছেন

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
রাজ্যে কতটা প্রবল গেরুয়া হাওয়া তা জানতে পুর নির্বাচনের আগে সমীক্ষা চালাবে তৃণমূল

নিজেদের দিকে কতটা রয়েছে জনসমর্থন, জানতে উৎসুক রাজ্যের শাসক দল TMC


কলকাতা: 

রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন ও ১০৭ টি পুরসভা এবং কলকাতা পুর কর্পোরেশন (কেএমসি) -এর নির্বাচনের (municipal polls) আগে রাজ্যে বিজেপির (BJP) পালে হাওয়া মাপতে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব এক সমীক্ষা চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ২০২০ সালের পুর নির্বাচন একটু বেশি মাত্রায় গুরুত্ব পাচ্ছে কেননা অনেকেই মনে করছেন এই নির্বাচনকে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে "মিনি বিধানসভা নির্বাচন" হিসাবে ভাবছেন। সংবাদসংস্থা পিটিআইকে তৃণমূল সূত্র জানিয়েছে যে এই সমীক্ষার ফলে রাজ্যের (West Bengal) ঘাসফুলের (TMC) দলটির নির্বাচনী কৌশলবিদ বা পরামর্শদাতা প্রশান্ত কিশোর ও তাঁর আই-প্যাক দলকে তৃণমূল কংগ্রেসের আগামী রণনীতি তৈরি করতে সহায়তা করবে। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পরে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে দলটি রাজ্যে নিজেদের জনপ্রিয়তা বাড়াতে প্রশান্ত কিশোরের আই-প্যাক সংস্থাকে নিয়োগ করেছিল।

দয়া করে রাজ্যে বিভেদের রাজনীতি করতে আসবেন না: অমিতকে আক্রমণ মুখ্যমন্ত্রী মমতার

"এই সমীক্ষাটি জনগণের মধ্যে আমাদের সমর্থনের উপর ভিত্তি করে এবং স্থানীয় সমস্যা, কাউন্সিলরদের ভাবমূর্তি, স্থানীয়দের অভিযোগ ও সেই অঞ্চলগুলিতে বিজেপির আধিপত্য সহ বিভিন্ন দিক বিবেচনা করে দেখবে। যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে  তবে এই সমীক্ষাটি আগামী নভেম্বর থেকেই শুরু হবে এবং ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারির মধ্যেই সেটি শেষ করব আমরা", বলেন তৃণমূল কংগ্রেসের একজন প্রবীণ নেতা । ওই সমীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতেই পুরসভা নির্বাচনের জন্য প্রার্থীদের কৌশল ঠিক করা হবে ও সেভাবেই নির্বাচন পরিচালনা করা হবে বলেও জানান ওই নেতা।

তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব মঙ্গলবার ওয়ার্ড, ব্লক এবং জেলা কমিটির সভাপতিদের নিয়ে একটি বৈঠক ডাকা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী এবং তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, দলের প্রবীণ নেতাকর্মী এবং প্রশান্ত কিশোর ও তাঁর সহযোগীরা আসন্ন পুর নির্বাচনের খসড়া কৌশল প্রস্তুত করতেই ওই বৈঠকে যোগ দেবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

‘‘ওঁর সরকারের সময় শেষ'': মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ জেপি নাড্ডার

দলীয় সূত্র অনুসারে, ১০৭  টি পুরসভা ভোটের ফলাফল এবং কলকাতা পুরনিগমের নির্বাচনী ফলাফল প্রায় রাজ্যের প্রায় ৬০ শতাংশ অংশের মানুষের মন পড়তে সাহায্য করবে, পাশাপাশি এটি ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের সম্ভাব্য ফলাফলের একটি আভাষও দিতে সক্ষম হবে। এই রাজ্যে যে বিজেপি ক্রমশই গেরুয়া মাটি শক্ত করছে তা ভালভাবেই যেন টের পাচ্ছে রাজ্যের শাসক দল। ইতিমধ্যেই ওই দলটি কংগ্রেস এবং বামফ্রন্টকে তৃণমূলের বিরোধী হিসাবে তৃতীয় এবং চতুর্থ অবস্থানে ঠেলে দিয়ে নিজেদের ক্ষমতাসীন তৃণমূলের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছে। আর সেই কারণেই যেন আসন্ন পুরসভা নির্বাচন আরও বেশি গুরুত্ব পেয়েছে।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি রাজ্যর ৪২ টি লোকসভা আসনের মধ্যে ১৮ টি পেয়েছে যা কিনা ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ে মাত্র ৪টি আসন কম। আর তুলনামূলক হিসাবে দেখতে গেলে শাসক দল তৃণমূলের আসন সংখ্যা ২০১৪ সালে পাওয়া ৩৪ থেকে গত লোকসভা নির্বাচনে ২২ টি আসনে নেমে এসেছে।

দেখুন ভিডিও:



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................