কেন্দ্রের ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ রাজ্যে চালু করতে চায় না রাজ্য সরকার

কেন্দ্রের সঙ্গে মতপার্থক্যের কথা জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানান, রাজ্য এৱ মধ্যেই ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য ২০০ কোটি টাকা খরচ করেছে।

কেন্দ্রের ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ রাজ্যে চালু করতে চায় না রাজ্য সরকার

কেন্দ্রের ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ ব্যবস্থা চালু করতে চাইছে না রাজ্য সরকার।

কলকাতা:

কেন্দ্রের ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড' (One Nation, One Ration Card) ব্যবস্থা থেকে রাজ্যে চালু করতে ইচ্ছুক নয় পশ্চিমবঙ্গ সরকার (West Bengal Government)। কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে মতপার্থক্যের কারণেই এই প্রকল্প চালু করতে চায় না তারা। বৃহস্পতিবার রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক একথা জানিয়েছেন। ওই প্রকল্প অনুযায়ী, কার্ডটির সুবিধাভোগী ব্যক্তি দেশের যে কোনও প্রান্তে ভর্তুকিযুক্ত খাদ্যশস্য কিনতে পারবেন। এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য, যাতে কোনও দরিদ্রই রেশন ব্যবস্থা থেকে বঞ্চিত না হন। এমনকী, নিজের এলাকা ছেড়ে অন্যত্র গেলেও যাতে তিনি অনায়াসে রেশনের সুবিধা পেতে পারেন, তা নিশ্চিত করতেই কেন্দ্রীয় সরকার চালু করেছে এই ব্যবস্থা। সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘‘আমরা কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে তাদের ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড' সংক্রান্ত কোনও ইঙ্গিত পাইনি। এব্যাপারে তাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার কোনও প্রশ্নই ওঠে না।''

কেন্দ্রের সঙ্গে মতপার্থক্যের কথা জানিয়ে তিনি জানান, রাজ্য এৱ মধ্যেই ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য ২০০ কোটি টাকা খরচ করেছে। তিনি বলেন, ‘‘কে আমাদের সেই টাকা ফেরত দেবে? আমরা এটা চালু করব না (এক দেশ, এক রেশন কার্ড)।''

তিনি আরও বলেন, ‘‘এছাড়াও তহবিলের একটা বড় অংশ আমাদের কেন্দ্রীয় সরকারের থেকে পাওয়ার কথা। এটা ৬,০০০ কোটি টাকায় পৌঁছেছে।''

তিনি অভিযোগ করেন, পঞ্জাবের মতো রাজ্যকে যে তহবিল দেওয়া হয় তা এই রাজ্যকে দেওয়া হয় না। তিনি বলেন, এক্ষেত্রে সম্পূর্ণ বৈষম্য লক্ষ করা যায়।

প্রসঙ্গত, কেন্দ্র সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে জুন পর্যন্ত সময় দিয়েছে ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড' চালু করার জন্য।  এরই মধ্যে দশটি রাজ্য— অন্ধ্রপ্রদেশ, গুজরাট, হরিয়ানা, ঝাড়খণ্ড, কর্নাটক, কেরল, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান‌, তেলেঙ্গানা ও ত্রিপুরা এই ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের ‘আয়ুষ্মান ভারত প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা'-ও এখনও রাজ্যে চালু হয়নি। কেন্দ্রীয় সরকারের লক্ষ্য এই প্রকল্পের সাহায্যে ৫০ কোটি মানুষকে উপকৃত করা। ২০১৬ সাল থেকে রাজ্যে একটি স্বাস্থ্য প্রকল্প চালু করেছে রাজ্য সরকার। সেই প্রকল্পের নাম ‘স্বাস্থ্য সাথী।'



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com