রাজ্য সরকারের সঙ্গে পার্শ্ব-শিক্ষকদের বৈঠক 'সন্তোষজনক', তবুও চলবে আন্দোলন

West Bengal: "তাঁদের দাবি সহানুভূতির সঙ্গে বিবেচনা করা হবে এই প্রতিশ্রুতির পরেও অনশন প্রত্যাহার না করেন তাহলে আমি কী করতে পারি?", বলেন শিক্ষামন্ত্রী

রাজ্য সরকারের সঙ্গে পার্শ্ব-শিক্ষকদের বৈঠক  'সন্তোষজনক', তবুও চলবে আন্দোলন

Para-Teacher: শুধুমাত্র শিক্ষামন্ত্রীর মৌখিক আশ্বাসেই আন্দোলনের পথ থেকে সরে আসছেন না পার্শ্ব শিক্ষকরা (ফাইল চিত্র)

হাইলাইটস

  • পার্শ্ব-শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠক করলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী
  • বেতন কাঠামো পুনর্বিবেচনার দাবিতে আন্দোলনে পার্শ্ব-শিক্ষকরা
  • শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পরেও আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত
কলকাতা:

শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক "সন্তোষজনক" হওয়া সত্ত্বেও আন্দোলনের পথ থেকে সরে আসছেন না রাজ্যের (West Bengal) পার্শ্ব-শিক্ষকরা। বুধবারই শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন তাঁরা, আর তারপরেই জানিয়ে দেন আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার কথা। সরকারি বিদ্যালয়ে চুক্তির ভিত্তিতে কাজ করা এক হাজারেরও বেশি পার্শ্ব-শিক্ষক সল্টলেকের বিকাশ ভবনের (উচ্চশিক্ষা বিভাগের সদর দফতর) কাছে ১১ নভেম্বর থেকে বিক্ষোভ শুরু করেন।  ১৫ নভেম্বর থেকে অনির্দিষ্টকালের অনশনেও বসেন কিছু আন্দোলনকারী, তাঁদের মূল দাবি হল, বেতন কাঠামো পুনর্বিবেচনা করতে হবে রাজ্য সরকারকে। জানা গেছে, রাজ্যের পার্শ্ব-শিক্ষকদের (Para-Teacher) সঙ্গে বৈঠকে তাঁদের বেতন কাঠামো পরিবর্তনের দাবি বিবেচনা করার ব্যাপারে নাকি আশ্বাসও দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। কিন্তু তারপরেও যেভাবে আন্দোলনের পথ থেকে সরে না আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা সে বিষয়ে রীতিমতো উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় (West Bengal education minister)। "তাঁদের দাবি সহানুভূতির সঙ্গে বিবেচনা করা হবে, যদি তাঁরা আমার এই প্রতিশ্রুতির পরেও অনশন প্রত্যাহার না করেন তাহলে আমি কী করতে পারি? আমি কেবল এটাই আশা করবো যে তাঁদের শুভ বুদ্ধি জাগ্রত হবে", বলেন শিক্ষামন্ত্রী। 

কাজ ফেলে প্রতিবাদ-আন্দোলনে বসায় পার্শ্ব শিক্ষকদের শো-কজ নোটিস ধরালো রাজ্য

এদিকে পার্শ্ব-শিক্ষকদের ঐক্য মঞ্চের সহ-আহ্বায়ক ভগীরথ ঘোষ বলেছেন, "মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা সন্তোষজনক হলেও আমাদের ওই বৈঠকের ফলাফলের বিষয়ে স্বচ্ছ ধারণা চাই। আমরা আমাদের আন্দোলন চালিয়ে যাব। আমরা শুধুমাত্র মৌখিক আশ্বাসে এই অনশন প্রত্যাহার করতে প্রস্তুত নই"।  তিনি দাবি করেন যে শিক্ষামন্ত্রী তাঁদের বেতন পুনর্বিবেচনা এবং 'প্রাথমিক শিক্ষকদের' মর্যাদা দেওয়ার দাবি সম্পর্কিত সমস্ত কাগজ ও নথিপত্র পড়ে দেখার জন্য সময় চেয়েছেন।

বেতনবৃদ্ধির দাবিতে অনশনে পার্শ্বশিক্ষকরা

পার্শ্ব-শিক্ষকরা রাজ্যের গ্রুপ ডি কর্মীদের তুলনায় বেশি বেতন দাবি করেছেন। তাঁদের দাবি অনুযায়ী বেতন কাঠামো হোক ২২,০০০-২৫,০০০ এর বেশি। শিক্ষামন্ত্রী এর আগেও বলেন যে, ২০১১ সালে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার আগেই বামফ্রন্ট সরকার রাজ্যের আর্থিক পরিস্থিতি এবং তাঁদের বেতনের জন্যে কোথা থেকে অর্থ আসবে এসব বিবেচনা না করেই অপরিকল্পিতভাবে বিপুল সংখ্যক পার্শ্ব-শিক্ষক নিয়োগ করে। 

দেখে নিন এই খবরগুলোও:



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News