National Population Register: কতটুকু তথ্য জানাবেন তা নির্ভর করবে সেই ব্যক্তির উপরেই, জানাল কেন্দ্র

NPR: ১ এপ্রিল থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে এনপিআরের কাজ, এর জন্যে কাউকে নথিপত্র দেখাতে বাধ্য করা হবে না, সব জল্পনা উড়িয়ে দিয়ে জানাল কেন্দ্র

National Population Register: কতটুকু তথ্য জানাবেন তা নির্ভর করবে সেই ব্যক্তির উপরেই, জানাল কেন্দ্র

পশ্চিমবঙ্গে জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধনের কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী Mamata Banerjee

হাইলাইটস

  • এনপিআর সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহের সময় নথি দেখানো আবশ্যক নয়, জানাল কেন্দ্র
  • কতটুকু তথ্য সরকারকে জানাবেন তা নির্ভর করবে ব্যক্তি বিশেষের উপরেই
  • যদিও পশ্চিমবঙ্গে ইতিমধ্যেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এনপিআরের কাজ
নয়া দিল্লি:

নাগরিকত্ব নিয়ে দেশ জোড়া বিক্ষোভের মধ্যেই পশ্চিমবঙ্গ সহ প্রায় আধ ডজন অ-বিজেপি শাসিত রাজ্যের মুখ্য সচিবরা জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধনের (NPR) নিয়ে আলোচনার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের (Ministry of Home Affairs) আহ্বান করা বৈঠক এড়িয়ে গেলেন। ওই বৈঠকে (National Population Register) পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) তরফে কোনও প্রতিনিধি উপস্থিত থাকবে না বলে আগেই জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। "পশ্চিমবঙ্গ আমাদের আগেই জানিয়েছিল যে তারা এই বৈঠকে অংশ নেবে না", NDTV-কে বলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের এক প্রবীণ আধিকারিক। তিনি আরও বলেন, কয়েকটি রাজ্য এনপিআরের কাজের জন্য করা নতুন পদ্ধতি নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে। দেশের বিরোধী দলগুলি মনে করছে যে এনপিআর আসলে দেশব্যাপী জাতীয় নাগরিক পঞ্জিকরণেরই একটি মহড়া। এর ফলে দেশের মুসলিম সম্প্রদায় সমস্যায় পড়বে বলেও মনে করে তাঁরা। এদিকে জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধের নতুন পদ্ধতি নিয়ে সমস্ত জল্পনা উড়িয়ে দিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছে যে, ১ এপ্রিল থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে এনপিআরের কাজ এবং এর জন্যে কাউকেই নথিপত্র দেখাতে বাধ্য করা হবে না।

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কে রেড্ডি সাংবাদিকদের সামনে বলেন, "যদি কেউ কোনও বিষয় সম্পর্কিত কোনও তথ্য জানাতে না চান তবে তা করতেই পারেন তিনি। এনপিআরের কাজে তথ্য ভাগ না করার বা নথিপত্র না দেখানোর মতো বিকল্প রয়েছে।"

NPR-এর জন্যে কোনও নাগরিকেরই বায়োমেট্রিক এবং নথি চাওয়া হবে না, জানাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

এদিকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতে আসলে এনপিআর পশ্চিমবঙ্গে সুকৌশলে নাগরিকপঞ্জিকরণ করারই প্রথম পদক্ষেপ। তাই জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধীকরণ বা এনপিআরের কাজে আপত্তি জানিয়ে তা বন্ধ রেখেছে রাজ্য সরকার।

২০১১ সালের আদমসুমারির কাজ চলাকালীন এনপিআর-এর জন্য সর্বশেষ তথ্য সংগ্রহ করা হয়। ২০১৫ সালে ডোর টু ডোর সমীক্ষা চালিয়ে এই তথ্য আপডেট করা হয়েছিল।

CAA: আধার, প্যান কার্ড দেখিয়ে নাগরিকত্বের প্রমাণ দিতে পারবেন না, বললেন দিলীপ ঘোষ

২০১৫ সালে এনপিআরের তথ্য আপডেট করার সময়, সরকার আধার এবং নাগরিকদের মোবাইল নম্বর এর মতো বিবরণ জানতে চেয়েছিল। মনে করা হচ্ছে, এবারেও নাগরিকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স ও ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ করা হবে, যদিও আধিকারিকরা জানিয়েছেন, এনপিআরের কাজে প্যান কার্ডের বিশদ তথ্য সংগ্রহ করা হবে না।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com