কতটা লাভ হল "দিদিকে বলো" দিয়ে, খোঁজ নেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

DidikeBolo-এর পরিকল্পনা বাস্তবায়নে যে সব দলীয় কর্মীরা ভাল পারফরম্যান্স দিয়েছেন, পুর-নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী হিসাবে তাঁদের নাম বিবেচনা করা হতে পারে

কতটা লাভ হল

৭ নভেম্বরের ওই বৈঠকে দলের সমস্ত বিধায়ক, সাংসদ ও জেলা সভাপতি সহ তৃণমূল নেতাদের উপস্থিত থাকতে বলেছেন Mamata Banerjee

কলকাতা:

সামনেই বিধানসভা উপনির্বাচন। তার আগে ফের একবার রাজ্যের মানুষের মন বুঝতে তৃণমূলের তৎপরতা। শাসক দলের একটি সূত্র জানাচ্ছে, গুরুত্বপূর্ণ ওই সংসদ উপনির্বাচনের আগে আগামী ৭ নভেম্বর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের প্রচারমূলক কর্মসূচি ''দিদিকে বলো''-এর অগ্রগতি পর্যালোচনা করবেন। পাশাপাশি দলীয় সংগঠনের নানা কাজ বিষয়েও খোঁজখবর নেবেন তিনি (Mamata Banerjee)। ওই বৈঠকে তৃণমূল সুপ্রিমো দলের প্রবীণ নেতাদের পাশাপাশি দলীয় (TMC) বিধায়ক এবং সাংসদদের সঙ্গেও কথা বলবেন এবং সাংগঠনিক অগ্রগতি নিয়ে আলাপ আলোচনা করবেন বলে সূত্রের খবর। ৭ নভেম্বরের ওই বৈঠকে দলের সমস্ত বিধায়ক, সাংসদ ও জেলা সভাপতি সহ তৃণমূল নেতাদের উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে । "দীপাবলির পরে সবাই একসঙ্গে হয়ে আলাপ আলোচনা করবেন, আমাদের দলনেত্রী ওই বৈঠকে ''দিদিকে বলো''-এর প্রচারের অগ্রগতি সম্পর্কে দলীয় কর্মীদের সঙ্গে কথা বলবেন এবং গত তিন মাসে এই কর্মসূচির (DidikeBolo) ফলে যে প্রতিক্রিয়া মিলেছে তা নিয়েও আলোচনা করবেন", বলেন তৃণমূলের এক প্রবীণ নেতা।

মানুষের মধ্যে জনপ্রিয়তা পেয়েছে “দিদিকে বলো” কর্মসূচী, দাবি দলীয় সূত্রের

জানা গেছে তৃণমূলের নির্বাচনী কৌশলবিদ প্রশান্ত কিশোর, যিনি মূলত  ''দিদিকে বলো''-এর পরিকল্পনাটি তৈরি করেছিলেন, তিনিও সম্ভবত ওই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন। তৃণমূল সূত্র মারফৎ খবর, ''দিদিকে বলো''-এর (দিদিকে বলুন) পরিকল্পনা বাস্তবায়নে যে সব দলীয় কর্মীরা ভাল পারফরম্যান্স দিয়েছেন, আগামী বছর পুর-নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে তাঁদের নাম বিবেচনা করা হতে পারে। এমনও মনে করা হচ্ছে যে যাঁরা তৃণমূল নেত্রীকে নিজেদের পারফরম্যান্স দিয়ে প্রভাবিত করেছেন কেবল তাঁদেরই কলকাতা পুর কর্পোরেশন এবং ১০৭ টি পুরসভার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার টিকিট দেওয়া হবে।

তৃণমূলের নতুন জনসংযোগ পদক্ষেপের সঙ্গে নির্বাচনের ব্যর্থতার সম্পর্ক নেই: সাধন পাণ্ডে

আগামী ২৫ নভেম্বর পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়গপুর সদর, নদিয়ার করিমপুর এবং উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জের বিধানসভা আসনে উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে। ওই ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে তৃণমূল, বিজেপি এবং কংগ্রেস। মে মাসে লোকসভা নির্বাচনে আশানুরূপ ফল করতে ব্যর্থ হয়েছে ঘাসফুলের দল। এরপরেই ২০১৯ সালের ২৯ জুলাই থেকে ওই ''দিদিকে বলো'' কর্মসূচি শুরু করে তৃণমূল কংগ্রেস, লক্ষ্য একটাই রাজ্যের মানুষের আরও কাছে পৌঁছনো।

''দিদিকে বলো''  কর্মসূচিটির মাধ্যমে প্রথম মাসেই ভাল সাড়া পায় তৃণমূল কংগ্রেস। শাসক দলের নেত্রীর কাছে প্রায় ১০ লক্ষ মানুষের আবেদন পৌঁছে যায় এবং তাঁদের অভাব-অভিযোগগুলি নথিভুক্ত করে তা সমাধানের আশ্বাসও দেয় শাসক দল। 



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News