লর্ড কার্জনের টেবিলকে "মর্যাদাপূর্ণ" আখ্যা দিয়ে নেটিজেনদের রোষে রাজ্যপাল

বঙ্গভঙ্গের ক্ষত সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল রাজ্যের দুই প্রথিতযশা সাহিত্যিকের দাবি, ও (রাজ্যপাল) ওই টেবিলকে আইকনিক আখ্যা দিয়ে শব্দটার ভুল ব্যাখ্যা করলেন

লর্ড কার্জনের টেবিলকে

যদিও এই সমালোচনার পর আরও একটি টুইট তিনি পোস্ট করেন (ফাইল)

কলকাতা:

লর্ড কার্জনের টেবিল মর্যাদাপূর্ণ (iconic)। টুইটারে এমন দাবি করে নেটিজেনদের রোষে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। মঙ্গলবার রাজভবন লাইব্রেরির একটি ছবি তিনি পোস্ট করেন নিজের টুইটারে। সেখানে তিনি লেখেন, "যে মর্যাদাপূর্ণ টেবিলে বসে ১৯০৫ সালের প্রথম বঙ্গভঙ্গের কাগজ সই করেছিলেন লর্ড কার্জন, আমি সেখানেই ইংরাজি নববর্ষের আগে রাজ্যবাসীর জন্য বার্তা রেকর্ড করছি।" এই টুইটের পরই সমালোচনায় সরব হন নেটিজেনরা। রাজ্যপাল আদতে বঙ্গভঙ্গকেই ঘুরিয়ে সমর্থন করলেন, এমন অভিযোগ তোলা হয়। বঙ্গভঙ্গের ক্ষত সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল রাজ্যের দুই প্রথিতযশা সাহিত্যিকের দাবি, ও (রাজ্যপাল) ওই টেবিলকে আইকনিক আখ্যা দিয়ে শব্দটার ভুল ব্যাখ্যা করলেন। 

পরে ট্যুইটারটি মুছে দেওয়া হয়। 

যদিও এই সমালোচনার পর আরও একটি টুইট তিনি পোস্ট করেন। সেখানে তিনি নিজেকে 'মানুষের ভৃত্য' বলে দাবি করেন। তিনি লেখেন; 'এখন এই চেয়ার-টেবিলে যে বসে আছেন, সে সংবিধানের রক্ষাকর্তা এবং পশ্চিমবঙ্গের জনগণের ভৃত্য (servant)।'

পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় এই ঘটনাকে দুর্ভাগ্যজনক আখ্যা দিয়ে বলেছেন, আমরা সবাই দেশ ভাগের যন্ত্রণা ভুলতে চাই।ও (রাজ্যপাল) যে টুইট করেছে তা দুর্ভাগ্যজনক। সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় বলেছেন; এখানে আইকনিক শব্দের ভুল ব্যাখ্যা হয়েছে। এই শব্দ এখানে ব্যবহার করাই যায় না।একই কথা বলেছেন সাহিত্যিক প্রফুল্ল রায়। দেশভাগ যন্ত্রণার অধ্যায়। তাই এই শব্দ এখানে মানানসই না।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com