রাজ্যের বকেয়া টাকা দিচ্ছে না কেন্দ্র, ফের অভিযোগ তুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

"কেন্দ্রের কাছে আমাদের প্রায় ১৭,০০০ কোটি টাকা পাওনা আছে, সেটা মিটিয়ে দিলে আমরা ত্রাণ কার্য চালাতে এই অর্থ ব্যবহার করতে পারতাম", বলেন Mamata Banerjee

রাজ্যের বকেয়া টাকা দিচ্ছে না কেন্দ্র, ফের অভিযোগ তুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Cyclone Bulbul: কেন্দ্রের কাছ থেকে সহযোগিতার আবেদন জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন মোদি সরকারের (Central Government) বিরুদ্ধে ফের বঞ্চনার অভিযোগ তুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সম্প্রতি ঘৃর্ণিঝড় বুলবুলের (Cyclone Bulbul) জেরে অনেকটাই ক্ষতিগ্রস্থ রাজ্যের বিভিন্ন অঞ্চল। প্রয়োজন ত্রাণ সামগ্রীর। আর এই সময়ে রাজ্যের হাতে কেন্দ্রের কাছে থাকা বকেয়া টাকা এলে ত্রাণ ও পুনর্বাসন কাজে সহায়তা বলেও উল্লেখ করেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি আশ্বাস মতো ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ পশ্চিমবঙ্গকে সেভাবে ত্রাণ তহবিল দিয়ে সাহায্য না করারও অভিযোগ করেন তিনি (Mamata Banerjee)। এ জাতীয় বিষয়ে কারও রাজনীতি করা উচিত নয় বলে উল্লেখ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আশা প্রকাশ করেন যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিশ্চয়ই ত্রাণ ও পুনর্বাসনের কাজে রাজ্যকে (West Bengal) সহায়তা করার প্রতিশ্রুতি পালন করবেন। রাজ্য সচিবালয়ে সাংবাদিকদের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "কেন্দ্রের কাছ থেকে আমাদের প্রায় ১৭,০০০ কোটি টাকা পাওনা আছে। তারা যদি আমাদের বকেয়া পাওনাটি মিটিয়ে দিতেন তবে আমরা ত্রাণ কার্য চালাতে এই অর্থ ব্যবহার করতে পারতাম।" মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও জানান যে, এই বকেয়া আদায়ের বিষয়ে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে চিঠি দেবেন। তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো জানিয়েছেন, উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুর, এই তিনটি ক্ষতিগ্রস্থ জেলার পরিস্থিতি পর্যালোচনা করার জন্য কেন্দ্রকে একটি দল পাঠানোর বিষয়েও বলেছেন তিনি।

"আমি এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রকেও আমাদের সহায়তা করার জন্য অনুরোধ করব। কেন্দ্রীয় দল তাদের সমীক্ষা শেষ করার পরে আমরা তাদের আমাদের রিপোর্ট পাঠাব। প্রধানমন্ত্রী এর আগে বলেছিলেন যে তিনি আমাদের সহায়তা করবেন।  আশা করি তিনি তাঁর প্রতিশ্রুতি পালন করবেন", বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় রাজস্বের যথাযথ অংশ সরকার প্রদান করতে ব্যর্থ হওয়ায় রাজ্য সরকারের  ৬৪০ কোটি টাকা লোকসান হয়েছে বলেও দাবি করেন তৃণমূল নেত্রী।

বুলবুলে বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শনে মুখ্যমন্ত্রী, জানালেন ক্ষতি ৫০,০০০ কোটি টাকারও বেশি

সেইসঙ্গে বুধবার দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার ঘূর্ণিঝড় বিধ্বস্ত অঞ্চলগুলিতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ের সফরের বিষয়েও রাজনীতি না করার আহ্বান জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, "ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে দাঁড়ানোর পরিবর্তে কেউ কেউ রাজনীতি করছে । আমি তাঁদের এই ধরণের কাজ থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করব। রাজনীতি করার সময় এটা নয়" ।

পাশাপাশি রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে নিয়েও ক্ষোভ উগরে দেন মমতা। "আমি সাধারণত সাংবিধানিক পদগুলিতে কোনও মন্তব্য করি না, তবে কিছু মানুষ (রাজ্যপাল) ঠিক বিজেপি মুখপত্রের মতো কাজ করছেন, তাঁরা আমার রাজ্যে সমান্তরাল প্রশাসন চালাতে চাইছেন", বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

"বুলবুল"-এর জেরে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখবেন বাবুল সুপ্রিয়

এদিকে মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় বলেছেন যে তৃণমূল ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের বিষয় নিয়েও রাজনীতি করে চলেছে। "আমরা সব ধরণের সহযোগিতার জন্যে হাত বাড়িয়ে রেখেছি। প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দুজনেই মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন করে সম্ভাব্য সব রকম সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন। তাঁর উচিত অহংবোধ দূরে রেখে প্রয়োজনে আরও কেন্দ্রীয় সহায়তার সন্ধান করা।  তা না করে তৃণমূল কংগ্রেস আমার এই পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ নিয়ে নোংরা রাজনীতি করছেন। বাস্তব পরিস্থিতি গোপন করার চেষ্টা করছেন। বেশ কয়েকজন স্থানীয় মানুষজন আমায় গত চারদিন ধরে ত্রাণ সামগ্রী ও খাবারের অভাবের বিষয়ে অভিযোগ করেছেন", বলেন বাবুল।

পশ্চিমবঙ্গের সাগর দ্বীপ এবং বাংলাদেশের খেপুপাড়ার মধ্যে শনিবার গভীর রাতে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। এ রাজ্যে প্রায় ছয় লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন এবং পাঁচ লক্ষেরও বেশি ঘরবাড়ি ভেঙে গেছে বলে খবর। মোট ১৪ জন এই প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কারণে মারা গেছেন।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
More News