মাদ্রাসা-জেএএমবি নিয়ে কেন্দ্রের বিবৃতির বিরোধিতা রাজ্য বিধানসভায়

লিখিত প্রশ্নের উত্তরে তাঁর এই জবাবকে "রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত" বলে ব্যাখা করেছেন কংগ্রেস ও তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়করা।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
মাদ্রাসা-জেএএমবি নিয়ে কেন্দ্রের বিবৃতির বিরোধিতা রাজ্য বিধানসভায়
কলকাতা: 

মাদ্রাসা-জেএমবি নিয়ে কেন্দ্রের বিবৃতির পাল্টা দিল রাজ্য সরকার। কেন্দ্রের তরফে বলা হয়, বর্ধমান ও মুর্শিদাবাদের বেশ কয়েকটি মাদ্রাসাকে ব্যবহার করে সেখানে মৌলবাদ ও নিয়োগের কাজ করছে জেএমবি, এমন তথ্য ছিল। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডির এই বিবৃতির পাল্টা তোপ দাগেন বিধায়করা এবং বিধানসভায় এ নিয়ে যৌথ প্রস্তাব আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। লিখিত প্রশ্নের উত্তরে তাঁর এই জবাবকে "রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত" বলে ব্যাখা করেছেন কংগ্রেস ও তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়করা। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী তথা তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “সংসদে এই ধরণের মন্তব্য দেশের সংস্কৃতিকে আঘাত করে। দেশের সংস্কৃতির ওপর এটা একটা বড় আঘাত”।

মোদিকে চিঠি লিখে রাজ্যের নাম পরিবর্তনের পদ্ধতি সরলীকরণের আর্জি মমতার

পার্থ চট্টোপাধ্যায় আরও বলেন, “এ সম্পর্কে তথ্য নিয়েছে আমাদের পুলিশ এবং প্রশাসন। এই ধরণের পদক্ষেপ বিপজ্জ্নক এবং দ্রুতই এটা বন্ধ হওয়া দরকার”। লোকসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্ধমান এবং মুর্শিদাবাদের কয়েকটি মাদ্রাসায় মৌলবাদ ও নিয়োগের কাজ করছে জেএমবি, এ নিয়ে তথ্য রয়েছে। 

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের প্রসঙ্গ তুলে ধরেন পরিষদীয় মন্ত্রী তথা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য বলেছিলেন, “মাদ্রাসাগুলিতে জঙ্গিদের চাষ” হচ্ছে, তারপরেই রাজ্যের মানুষ তাঁকে উপযুক্ত জবাব দিয়েছিলেন।

রাজ্যে ধৃত সন্দেহভাজন জঙ্গি, বোধগয়া বিস্ফোরণে যুক্ত, দাবি পুলিশের

রেড্ডির বিবৃতির তীব্র প্রতিবাদ করে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা তথা কংগ্রেস বিধায়ক আব্দুল মান্নান অভিযোগ করেন, এই ধরণের মন্তব্য রাজ্যবাসীর আবেগে আঘাত করেছে। তিনি বলেন, “আমি একটি মাদ্রাসায় পড়াশোনা করেছি। আমার মতোই, আমার মতোই এই বিধানসভায় অনেকেই রয়েছেন, যাঁরা রাজ্যের মাদ্রাসায় শিক্ষালাভ করেছেন। মাদ্রাসায় অনেক হিন্দুশিক্ষকও রয়েছেন”। তাঁর কথায়, “কেন্দ্রীয় সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা কোনও ব্যক্তি এই ধরণের মন্তব্য করতে পারেন না।এটা সংবিধান বিরোধী”। 

“জয় শ্রীরাম” স্লোগান দিলেই খুন করছে তৃণমূল কংগ্রেস, অভিযোগ বিজেপির

রাজ্যের আরেকমন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী জানান, সমস্ত বিধায়ককে বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় যৌথ প্রস্তাব আনতে বলেছেন, এবং এরজন্য সব রাজনৈতিক দলকে একসঙ্গে এগিয়ে আসতে হবে।তিনি বলেন, “এখানে ১,৪০০ বছর ধরে মাদ্রাসা শিক্ষা চলছে। আমি মনে করি না, এই ধরণের কিছু চলছে (মৌলবাদ)”। তাঁর কথায়, “তবে যদি নির্দিষ্ট কোনও ব্যক্তি অপরাধের সঙ্গে যুক্ত থাকেন, তাহলে সেটা আলাদা”।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................