উত্তরপ্রদেশের সুলতানপুরে দোকানে সিনেমার মত গুলিবিদ্ধ মালিক!

আহত ব্যক্তির নাম অলোক আর্য। তিনি সুলতানপুরের একটি খাবারের দোকানের মালিক। তাছাড়া ব্যবসায়ীদের দাবি  নিয়ে আন্দোলনও করে থাকেন

গুলি চালানোর ঘটনাটি  ধরা পড়েছে সিসিটিভিতে।

হাইলাইটস

  • গোটা ঘটনা ধরা পড়েছে সিসিটিভি কামেরায়
  • পুলিশ জানায় দোকান মালিকের সঙ্গে আগেই ওই ব্যক্তির বচসা হয়েছিল
  • ঘটনার নেপথ্যে অন্য কোনও কারণ আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে
সুলতানপুর, উত্তরপ্রদেশ:

এ যেন হিন্দি ছবির হাড়হিম করা দৃশ্য!  নিজের দোকানের ক্যাশ কাউন্টারে বসে আছেন মালিক । শান্ত ভাবে এক ব্যক্তি তাঁর সামনে এসে দাঁড়ালো। আচমকা পকেট থেকে বেরিয়ে এল রিভলভার। আর মাত্র কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে চলল গুলি। একটা নয়, পরপর তিনটে।    

ঠিক এমন একটা ঘটনা ঘটেছে উত্তর প্রদেশের সুলতানপুরে। যদিও প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন তিনটি গুলি খাওয়া দোকান মালিক। আপাতত হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছে। সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে ঘটনাটা। তা দেখে যে গুলি চালিয়েছে তাকে চিহ্নিত করেছে পুলিশ।             

আহত ব্যক্তির নাম অলোক আর্য। তিনি সুলতানপুরের একটি খাবারের দোকানের মালিক। তাছাড়া ব্যবসায়ীদের দাবি  নিয়ে আন্দোলনও করে থাকেন। আর পাঁচটা দিনের মতো রবিবারও দোকানে বসে কাজ করছিলেন।  এরই মধ্যে  সাদা জমা ও নীল জিন্স পরিহিত এক ব্যক্তি তাঁর সামনে এসে দাঁড়ায়। তার গলায় গামছা জড়ানো  ছিল। কেউ কিছু বোঝার আগেই বন্দুক বের করে গুলি চালাতে শুরু করে সে। পরপর তিনটি গুলি গিয়ে লাগে অলোকের গায়ে। এরপর সেখান থেকে পালিয়ে যায় ওই ব্যক্তি। দোকানে উপস্থিত  কয়েকজন তাকে আটকানোর চেষ্টা করেও পারেনি। গুরুতর আহত দোকান মালিককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁর চিকিৎসা শুরু করে দিয়েছেন চিকিৎসকরা।    

গুলি চালানোর ঘটনাটি  ধরা পড়েছে সিসিটিভিতে। তা দেখে ওই ব্যক্তির পরিচয়ও জানা গিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে সে  নির্মাণ ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত এবং তার পরিবারের প্রায় সকলেই শিক্ষা জগতের মানুষ  এখানেই পুলিশের সন্দেহ এমন একটা পরিবারের সদস্য গুলি চালাবে কেন?            

তদন্ত শুরু করে পুলিশ জেনেছে রবিবারই ওই ব্যক্তির সঙ্গে অলোকের একটি বিষয়ে বচসা হয়েছিল। তা  থেকেই সে এমনকাণ্ড ঘটাল কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তাছাড়া গুলি কান্ডের নেপথ্যে অন্য কোনও কারণ আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখছেন আধিকারিকরা। ঘটনায় ইতিমধ্যেই কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে।