যুদ্ধের বলি হয়েছিল খুদে পা, নকল পা পেয়ে হাসপাতালেই নেচে নিলো আত্মহারা আহমেদ

২০ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটি তোলা হয়েছে আফগানিস্তানের ইন্টারন্যাশনাল রেড ক্রশ অর্থোপেডিক সেন্টারে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
যুদ্ধের বলি হয়েছিল খুদে পা, নকল পা পেয়ে হাসপাতালেই নেচে নিলো আত্মহারা আহমেদ

ভাইরাল ভিডিও ছুঁয়ে গেল বিশ্বের সব প্রান্তের মানুষের মন। সেখানে দেখা যাচ্ছে আফগানিস্তানের একটি ছোট্ট ছেলে তার প্রস্থেটিক পা পাওয়ার পরে আনন্দে নাচ করছে।


একটি ভাইরাল ভিডিও ছুঁয়ে গেল বিশ্বের সব প্রান্তের মানুষের মন। সেখানে দেখা যাচ্ছে আফগানিস্তানের একটি ছোট্ট ছেলে তার প্রস্থেটিক পা পাওয়ার পরে আনন্দে নাচ করছে। রোয়া মুসওয়ারি নামে এক ব্যক্তি খবরটি টুইটারে প্রথম শেয়ার করেন। তিনি লেখেন, আহমেদ নামে ওই ছেলেটি আফগানিস্তানের লোগার অঞ্চলের বাসিন্দা। ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণে তার পা উড়ে গিয়েছিল। হাসপাতালে নিজের ওয়ার্ডে ভর্তি বাকিদের সামনে আহমেদের নাচই বলে দিচ্ছে সে কতটা খুশি। ২০ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটি তোলা হয়েছে আফগানিস্তানের ইন্টারন্যাশনাল রেড ক্রশ অর্থোপেডিক সেন্টারে। 
দেখুন সেই হৃদয়স্পর্শী ভিডিওটি:

ভিডিওটি প্রায় ৩ লক্ষ বার দেখা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ১৬০০০ লাইক পেয়েছে সেটি। আর আহমেদের অফুরাণ প্রাণশক্তির প্রশংসায় সকলেই পঞ্চমুখ। অনেকে রেড ক্রসকেও ধন্যবাদ জানিয়েছেন যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে তাদের এই সেবা পৌঁছে দেওয়ার জন্য। 

ইউনাইটেড নেশনের মতে আফগানিস্তানে যুদ্ধের কারণে প্রতিদিন অসংখ্য শিশু-সহ বহু মানুষের ক্ষয় ক্ষতি এমনকী প্রাণহানিও হয়। 
ইউ এন হাই কমিশনার ফর হিউম্যান রাইটস মিখায়েল ব্যাচেলেট বলেন, ‘‘শুধুমাত্র প্রাণহানিই নয়, প্রতিদিন যুদ্ধের ফলে অর্থনীতি, সামাজিক ও চিকিৎসাগত সুযোগ সুবিধা থেকে মানুষ পিছিয়ে পড়ে। স্কুলগুলিও আক্রমণের হাত থেকে রেহাই পায় না। অজস্র শিশু পঙ্গু হয়ে জীবন কাটাতে বাধ্য হয়।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................