This Article is From Oct 09, 2019

আকাশ ও সমুদ্রের সীমানায় রহস্যময় এক আলোর ঝলকানি, উস্কে উঠল UFO বিতর্ক

UFO Debate: "ইউএফওরা সমুদ্রের জলে এবং মেঘের মধ্যে লুকিয়ে থাকতে পরিচিত," লিখেছেন এ নিয়ে গবেষণা করা এক তাত্ত্বিক

আকাশ ও সমুদ্রের সীমানায় রহস্যময় এক আলোর ঝলকানি, উস্কে উঠল UFO বিতর্ক

UFO Debate: উত্তর ক্যারোলিনায় এক রহস্যময় আলো দেখে প্রবল জল্পনা ছড়ায়

উত্তর ক্যারোলিনার (North Carolina) অঞ্চলে একটি ছবিতে ধরা পড়েছে যে আকাশে মেঘের মধ্যে এক রহস্যময় আলো, এই নিয়েই সোশ্যাল মিডিয়ায় ইউএফও নিয়ে (UFO Debate) জোর জল্পনা। ভাইরাল হল সেই রহস্যময় আলোর ভিডিও। ২৮ সেপ্টেম্বর, উইলিয়াম গাই নামের এক ব্যক্তি ইউটিউবে একটি ৩০ সেকেন্ডের ভিডিও পোস্ট করেন। ওই ভিডিওটির শিরোনাম দেওয়া হয় 'রিয়েল ইউএফও সাইটিং' অর্থাৎ 'সত্যিকারের ইউএফওর (UFO) দেখা মিলেছে'। ভিডিওটিতে  দেখা যাচ্ছে দূরে আকাশ ও সমুদ্র যেখানে প্রায় মিশে গেছে সেখানে ১৪টি জ্বলজ্বলে আলো। ডবলুওয়াইএফএফের বক্তব্য অনুযায়ী, পামিলিকো সাউন্ড লেগুনের একটি ফেরিতে উঠার সময় উইলিয়াম গাই নামের ওই ব্যক্তি রহস্যজনক ওই আলোর গুচ্ছ দেখতে পান ও সেটির ভিডিও করেন।

ইউএফও ঘুরছে আইরিশ উপকূলের আকাশে, জানাল বহু পাইলট

"যে কেউ আমাকে বলুন ওটা ঠিক কী?" ভিডিওতে বলতে শোনা যায় অবাক হয়ে যাওয়া এই ব্যক্তিকে। তাঁর ক্যামেরায় ধরা পড়ে রহস্যময় ওই আলো । তিনি বলেন, "আমরা সমুদ্রের মাঝখানে, একটি ফেরিতে, আশেপাশে কিছুই নেই। দেখুন। আশেপাশে কিছুই নেই। জমি নেই, কিছুই নেই।"

ভিডিওটি অনলাইনে শেয়ারের পর কমপক্ষে ৪.৮ লক্ষ বার দেখা হয়েছে,ওই আলোটি কী হতে পারে সে সম্পর্কেও একাধিক জল্পনা হয়েছে

"এটি কি একই সঙ্গে জ্বালানো চিনা আলোর গুচ্ছ হতে পারে?" কমেন্ট সেকশনে গিয়েএমন প্রশ্নই করতে শোনা যায় একজনকে। "ইউএফওরা সমুদ্রের জলে এবং মেঘের মধ্যে লুকিয়ে থাকতে পরিচিত," লেখেন অন্য একজন । "এটা শুধুমাত্র রকেট প্যারাসুট জ্বলে ওঠার আলো" এমন কথাও বলেন একজন।, আর একজন মন্তব্য করেছেন: "লাইটগুলি একে অপরের থেকে নির্দিষ্ট দূরত্বে ভাসমান, দেখে মনে হচ্ছে অনেকগুলি বেলুনের মধ্যে আলো ঘরে সেগুলিকে ভাসানো হয়েছে ।"

ভাবতে পারেন! ১৯৭০ সাল থেকে নাকি সব ভূতুড়ে এই শহরের?

তবে সবার সব জল্পনার আগুনে জল ঢেলে দেন এক ব্যক্তি। ডারিক চেননাউল্ট নামে একজন নিজেকে একজন প্রাক্তন মেরিন হিসাবে পরিচয় দিয়ে লেখেন: "আমি নিশ্চিত করে জানি যে  এই লাইটগুলি কী।  চেরি পয়েন্টে ২ য় মেরিন এয়ার উইংয়ের প্রাক্তন মেরিন হিসাবে আমি বলছি যে... আমরা সামরিক অনুশীলনের সময় সন্ধ্যায় নিয়মিতভাবে আমাদের বিমানের পেছনের দিক থেকে এইভাবেই আগুন জ্বালাতাম। এরা প্রত্যেকে এক মিলিয়ন শক্তি সম্পন্ন এক একটি মোমবাতি, তাই তারা বেশ উজ্জ্বল দেখতে এবং প্যারাশুট থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় খুব দূরে থেকে ধীরে ধীরে এদের ভাসতে দেখা যায় .... মেরিনরা এখনও মানুষকে চমকে দিচ্ছে দেখে আনন্দিত হলাম"।

আপনার কি মনে হয় সত্যিই সেই আলো? আমাদের মন্তব্য বিভাগে জানান আপনার মনের কথা।

বৃন্দাবন মাতৃমন্দিরের পুজোর ভিডিও দেখুন:  

Click for more trending news