মালা বদলের সময় বরের উদ্দাম নাগিন ডান্স! কলেজছুট পাত্রের সঙ্গে বিয়ে ভেস্তে দিলেন কনে

গত ৮ নভেম্বর মালা বদলের সময় মদের নেশায় ডিজে চালিয়ে উদোম নাগিন ডান্স করতে থাকেন পাত্র ও বরযাত্রীদের একাংশ।

মালা বদলের সময় বরের উদ্দাম নাগিন ডান্স! কলেজছুট পাত্রের সঙ্গে বিয়ে ভেস্তে দিলেন কনে

পাত্র লিখিতভাবে জানিয়েছে ১৪ নভেম্বরের মধ্যে বিবাহের উপহার ফেরত দেবে

বিয়ে করতে এসে বরের উদ্দাম নাগিন ডান্স! ভাবগতিক দেখেই বেঁকে বসলেন কনে। উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেড়ির বাসিন্দা বরের নাচের হুল্লোড়ে তিতিবিরক্ত হয়েই সঙ্গে সঙ্গে বিয়ে বাতিলের সিদ্ধান্ত নিলেন কনে। গত ৮ নভেম্বর মালা বদলের সময় মদের নেশায় ডিজে চালিয়ে উদোম নাগিন ডান্স করতে থাকেন পাত্র ও বরযাত্রীদের একাংশ। অবস্থা অন্যদিকে যাচ্ছে এমন খবর পেয়ে পুলিশও পৌঁছয় ছাদনাতলায় এবং পরিবেশ শান্ত করে। বরপক্ষে বিবাহের উপহার ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। আইটিআই ডিপ্লোমা কন্যার পাত্রটি কলেজও পাস করতে পারেননি বলে সূত্রের খবর।

আরও পড়ুনঃ চীনের ‘বউ বাজারে' ক্রমেই বাড়ছে পাকিস্তানি মেয়েদের কেনাবেচা, গন্তব্য পতিতালয়

টাইমস অফ ইন্ডিয়া জানিয়েছে, বরযাত্রী আসার পরেই যেই না বর আর তাঁর বন্ধুরা বিয়ের মূল জায়গায় আসেন রীতেশকে তাঁর বন্ধুরা ডিজের সামনে নিয়ে যান এবং তুমুল নাচ শুরু হয়। যখন মেয়ের পরিবার রীতেশকে ডিজে ফ্লোর থেকে সরে আসতে আর ডিজে চালাতে বারণ করেন তখন তাঁরা অসভ্যতা শুরু করেন বলে অভিযোগ। পরে রীতেশকে বুঝিয়ে সরিয়ে এনে মালাবদলের আয়োজন করা হয়। কিন্তু এরপরে ফের ডিজে ফ্লোরে চলে যান রীতেশ এবং জোরে গান বাজিয়ে নাগিন ডান্স করতে শুরু করেন। বরের এই আচরণে তাজ্জব হয়ে যান কনে এবং তক্ষুণি বিয়ে ভেঙে দেন।

এরপরেই রীতেশ এবং তার বাড়ির লোকজন পাত্রীকে অনেক বোঝানোর চেষ্টা করেন, কিন্তু বিয়ে না করার সিদ্ধান্তে অটল থাকে সে। এরপরেই রীতেশ এবং তাঁর বন্ধুরা পাত্রী ও পাত্রীপক্ষের সঙ্গে জোর জবরদস্তি শুরু করেন। এরপরেই খবর দেওয়া হয় পুলিশে। এসআই বিপিন সিং হাজির হন ছাদনাতলায়। পাত্রপক্ষ পুলিশোকে জানায় বিষয়টি তাঁরা নিজেরাই মিটিয়ে নেবেন। রীতেশের পরিবার বিবাহের উপহার ফেরত দেওয়ার পাশাপাশি বিয়ের খরচের একাংশ দিতে সম্মত হয়।

আরও পড়ুনঃ ছাদনাতলায় টলছে বর, বিয়ে ভেস্তে দিলেন বিহারের কনে

কনের ভাই টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে বলেন, “ বিয়ে নিয়ে কোনও ভাবনাই ছিল না বরের। এসব যা করেছে তা সহ্য করা যায় না। আমার খারাপই লাগছে যে বোনের বিয়ে ভেঙে গেছে। কিন্তু, আমরা ওর সিদ্ধান্তের সমর্থনেই রয়েছি। আমার বোন যা করেছে তা একেবারে সঠিক।”

এসআই বিপিন সিং বলেন, “অভিযোগ পাওয়ার পরে আমরা তড়িঘড়ি সেখানে পৌঁছই। পরিবারের বড়দের সঙ্গে পরামর্শ করেই বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করি। পাত্র লিখিতভাবে জানিয়েছে ১৪ নভেম্বরের মধ্যে বিবাহের উপহার ফেরত দেবে এবং বিয়ের সম্পূর্ণ খরচাও দেবে।”

Click for more trending news


More News