মালিকের কথায় সাড়া দেয়, রয়েছে মিনি এটিএম! দেখুন আশ্চর্য বাইক ‘টারজান’

ইউটিউবের বিবরণ অনুসারে, সাঈদ একজন ‘স্ব প্রশিক্ষিত ইলেকট্রিশিয়ান, স্টান্ট ম্যান, সেলস ম্যান এবং চমৎকার ভিড় টানতে পারেন’।

মালিকের কথায় সাড়া দেয়, রয়েছে মিনি এটিএম! দেখুন আশ্চর্য বাইক ‘টারজান’

মহাম্মদ সঈদের বাইকে রয়েছে একটি মিনি এটিএম

রাস্তায় বেরোলেই কত রকমেরই না বাইক দেখা যায়! যে যার নিজের বাইককে নিজের মতো করে সাজাতেও ভালোবাসেন। ফলত রংবেরঙ, নকশা করা, নিত্য নতুন জিনিস বসানো পরিবর্তিত মোটরবাইক দেখা অস্বাভাবিক কিছু নয়। তবে এ এক অনন্য বাইকের গল্প! এই পরিবর্তিত ‘আশ্চর্য বাইক' এখন সোশ্যাল মিডিয়াতে ঝড় তুলেছে। বাইকটি উত্তর প্রদেশের বরেলির বাসিন্দা মহাম্মদ সাঈদের। ভালোবেসে নিজের বাইকের নাম রেখেছেন টারজান (Tarzan)। এ বাইক যে সে বাইক নয়, মালিকের ডাকে, মালিকের নির্দেশে সাড়া দেয় এই আশ্চর্য বাইক! এবং এখানেই শেষ নয়, এই বাইকে রয়েছে একটি মিনি এটিএম। চাইলেই কয়েন বের করে দেবে আপনার হাতে। মালিকের ভয়েস কমান্ডে সাড়া দিয়েই যাবতীয় বিপ্লব ঘটাচ্ছে এই বাইক। বৃহস্পতিবার এই বাইকের একটি ভিডিও ইউটিউবে শেয়ার করেছেন হানি সাক্সেনা নামের এক ব্যক্তি। তার পর থেকেই আশ্চর্য বাইকের এই ভিডিও অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া এবং টুইটার, ফেসবুক এবং হোয়াটসঅ্যাপের মতো মেসেজিং প্ল্যাটফর্মগুলিতে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ৭০ বছর বয়সী সঈদ সকলকে দেখাচ্ছেন তাঁর লাল রঙের বাইক টারজান কীভাবে তাঁর কথা মতো চলে, তাঁর কথায় সাড়া দেয়! ভিডিওতে সঈদ আরও দেখিয়েছেন যে, কীভাবে বাইকটি চলা শুরু হচ্ছে, কীভাবে তাতে গান বাজছে এবং এর মধ্যে বসানো এটিএম কীভাবে তাঁর কথা শুনে পাঁচ টাকার মুদ্রা বের করে দিচ্ছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খারাপ মন্তব্যের জের, আত্মহত্যা কোরিয়ার পপ তারকার

নীচের ভিডিওটি দেখুন:

ইউটিউবের বিবরণ অনুসারে, সাঈদ একজন ‘স্ব প্রশিক্ষিত ইলেকট্রিশিয়ান, স্টান্ট ম্যান, সেলস ম্যান এবং চমৎকার ভিড় টানতে পারেন'। তার এই ভিডিওটি ইউটিউবে ১৭,০০০ এরও বেশি মানুষ দেখেছেন এবং অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলিতেও বহু বহু মানুষ তাঁর এই কেরামতি দেখছেন। প্রচুর প্রশংসাও অর্জন করেছেন সঈদ।

শিশু কচ্ছপের মৃত্যুতে স্তম্ভিত বিশ্ব! পেটে মিলল সমুদ্রে ফেলা ১০৪ টি প্লাস্টিক টুকরো!

“দেশি ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের কী দুর্দান্ত উদাহরণ,” ভিডিওটি শেয়ার করে লিখেছেন এক টুইটার ব্যবহারকারী।

“ভারতের অবিশ্বাস্য প্রতিভা,” অন্য একজন টুইটার ব্যবহারকারী লিখেছেন, আর তৃতীয় একজন লিখেছেন: “জুগাড় শক্তির সত্যই কোনও সীমা নেই।"

কিছু মন্তব্যকারী অবশ্য মোটরসাইকেলের সত্যতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। “দেখে মনে হচ্ছে ব্যাপারটা জালি” ইউটিউবের একজন মন্তব্য করেন।

ভিডিওটি সম্পর্কে আপনার কী মত? আমাদের মন্তব্য বিভাগে জানান অবশ্যই।

Click for more trending news


More News