সিঙাড়া চেয়ে জমাদার হলেন এই মহাশয়! হেল্পলাইনে খাবার অর্ডারের অভিনব শাস্তি

ধমকধামক, শাস্তির ভয় দেখানোর পরেও ওই ব্যক্তি নাকি বারেবারে ফোন করে ব্যতিব্যস্ত করেছে সবাইকে। শিক্ষা দিতে তাই অভিযুক্তের হাতে ধরিয়ে দেওয়া হয় ঝাঁটা।

সিঙাড়া চেয়ে জমাদার হলেন এই মহাশয়! হেল্পলাইনে খাবার অর্ডারের অভিনব শাস্তি

সিঙাড়া কিনতে হেল্পলাইনে ফোন!

বাইরে বেরোতে পারছেন না লকডাউনে (lockdown)। ঘরে বসে কী করবেন! হাত-পা না চালালেও মুখ চালাতে তো বাধা নেই। তাই মন উশখুশ সিঙাড়ার জন্য। এদিকে দোকানপাট সব বন্ধ। কী করবেন? হাতের পাঁচ হেল্পলাইন আছে তো। করোনা মোকাবিলায় যে নম্বরে ফোন করার নির্দেশ দিয়েছে উত্তরপ্রদেশ সরকার সেখানেই ফোন করে সিঙাড়ার অর্ডার দিলেন এক ব্যক্তি। সঙ্গে সঙ্গে পদক্ষেপ নিলেন রামপুর জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (Rampur District Magistrate) অঞ্জনেয় কুমার সিং (Aunjaneya Kumar Singh)। 

লকডাউনের মধ্যে মদ্যপায়ীদের জন্য বিশেষ পাসের ব্যবস্থা, জারি নির্দেশিকা

টুইটে এই খবর জানানোর পাশাপাশি তিনি আরও জানিয়েছেন, অর্ডার দেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই সিঙাড়া পৌঁছে দেওয়া হয় অভিযুক্তের বাড়িতে। শাস্তি হিসেবে তাকে দেওয়া হয় ড্রেন পরিষ্কারের দায়িত্ব। জেলাশাসক এও জানিয়েছেন ধমকধামক, শাস্তির ভয় দেখানোর পরেও ওই ব্যক্তি নাকি বারেবারে ফোন করে ব্যতিব্যস্ত করেছে সবাইকে। শিক্ষা দিতে তাই এরপর অভিযুক্তের হাতে ধরিয়ে দেওয়া হয় ঝাঁটা। সেই ছবিও এনেছেন প্রকাশ্যে।

টুইটটি ইতিমধ্যেই ২০ হাজার লাইক পেয়েছে। সবাই প্রশংসা করেছেন জেলাশাসকের। 

এরপরেই টুইটে জেলাশাসক সবাইকে দায়িত্ববান, সচেতন নাগরিক হওয়ার অনুরোধ জানান। 

দেশব্যাপী লকডাউনে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত সমস্ত অপ্রয়োজনীয় পরিষেবা স্থগিত করা হয়েছে। করোনাভাইরাসকে ছড়িয়ে পড়তে না দেওয়ার জন্য অভ্যন্তরীণ বিমান চালনাও স্থগিত রাখা হয়েছে। তীব্র শ্বাসকষ্ট সহ করোনভাইরাস -২ বা এসএআরএস-কোভি -২ নামে পরিচিত, এই উপন্যাসটি করোনভাইরাসটি COVID-19 রোগের কারণ। এই রোগে এখনও পর্যন্ত ভারতে এক হাজারেরও বেশি লোক আক্রান্ত। 

Click for more trending news


Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com