‘‘আমরা নিরপেক্ষ’’: সমালোচনার জবাবে জানাল টুইটার

টুইটার কর্তৃপক্ষ অবশ্য জানিয়ে দেন তাঁরা নিরপেক্ষ। এবং টুইটারের নির্দিষ্ট নিয়ম অনুসরণ করেই তাঁরা চলেন।

‘‘আমরা নিরপেক্ষ’’: সমালোচনার জবাবে জানাল টুইটার

বহু নেটিজেনের অভিযোগের পরে অবশেষে নিজেদের সমর্থনে মুখ খুলল টুইটার ইন্ডিয়া।

নয়াদিল্লি:

টুইটারের (Twitter) বিরুদ্ধে বহু নেটিজেনের অভিযোগের পরে অবশেষে নিজেদের সমর্থনে মুখ খুলল টুইটার ইন্ডিয়া (Twitter India)। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা অযথা ‘ব্লু টিক' অনুমোদন দিয়েছে কাউকে। এর উত্তরে টুইটার জানিয়েছে, তারা নিরপেক্ষ। এবং কোনও রাজনৈতিক আদর্শ ও দৃষ্টিভঙ্গি থেকে তারা সিদ্ধান্ত নেয় না। একটি টুইট করে তারা জানায়, ‘‘আমরা ভারতে একটি মুক্ত সর্বজনীন কথোপকথনের পরিষেবা দেওয়া এবং আমরা আমাদের প্রচেষ্টাকে স্বচ্ছ রাখার কাজ চালিয়ে যাব।'' তারা আরও জানায়, ‘‘ভারতে টুইটারের পক্ষপাতিত্ব নিয়ে এই সপ্তাহে বহু চর্চা হচ্ছে। পরিষ্কার করে জান‌িয়ে দেওয়া যাক, নীতি পরিবর্তন হোক বা ফিচার অথবা বিধি প্রয়োগ করা, আমরা নিরপেক্ষ এবং কোনও রাজনৈতিক আদর্শ ও দৃষ্টিভঙ্গি থেকে আমরা সিদ্ধান্ত নিই না।''

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহর ছেলে জয় শাহর টুইটার অ্যাকাউন্টে ‘ব্লু টিক' অনুমোদন দেয় টুইটার। অথচ এক প্রতিবেদন অনুসারে তখনও কোনও টুইটই করেননি তিনি। এরপরই আলোচনা শুরু হয় বিতর্ক। সম্প্রতি বিসিসিআইয়ের হিসাবরক্ষক হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন জয় শাহ।

এর আগে এই সপ্তাহে বর্ষীয়ান কলাম লিখিয়ে দিলীপ সি মণ্ডলের অ্যাকাউন্টটি ‘রেসট্রিক্টেড' করে দেয় টুইটার। পরে অবশ্য তিনি আবার তাঁর অ্যাকাউন্ট ফিরে পান। কিন্তু তিনি তাঁর প্রতি এহেন আচরণের সমালোচ‌না করেন। এরপরই #CasteistTwitter এই হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে টুইটারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ শুরু হয়।

টুইটার কর্তৃপক্ষ অবশ্য জানিয়ে দেন তাঁরা নিরপেক্ষ। এবং টুইটারের নির্দিষ্ট নিয়ম অনুসরণ করেই তাঁরা চলেন।

প্রসঙ্গত। ‘ব্লু টিক' অর্থে টুইটার জানিয়ে দিচ্ছে সেই অ্যাকাউন্টটি আসল, ফেক নয়।

More News