কংগ্রেস ও এআইএডিএমকে সভা ছেড়ে বেরোনোর পর তিন তালাক বিল পাশ হল লোকসভায়ঃ ১০ টি তথ্য়

তিন তালাক বিল পাশ হয়ে গেল লোকসভায়। সভা ছেড়ে তার আগে বেরিয়ে গেল কংগ্রেস ও এআইএডিএমকে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

 আজ  দুপুর  ২ টো নাগাদ বিলটি লোকসভায় পেশ করবেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ।

নিউ দিল্লি:  তিন তালাক বিল পাশ হয়ে গেল লোকসভায়। সভা ছেড়ে তার আগে বেরিয়ে গেল কংগ্রেস ও এআইএডিএমকে। ২০১৭ সালের অগাস্ট মাসে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দেয় তিন তালাক প্রথার অবসান করে দেওয়ার সময় এসেছে। তারপর আইন তৈরি করে কেন্দ্রীয় সরকার। এর আগে জানুয়ারি মাসে একটি বিল তৈরি হয়েছিল সেটি রাজ্যসভায় পাস করান যায়নি। এরপর তাতে সংশোধন করা হল। নতুন আইনে বলা আছে তিন তালাক দেওয়া স্বামীর তিন বছরের জেল পর্যন্ত হতে পারে।
এখানে পড়ুন ১০'টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য়
  1.  এই নতুন  আইন পাশ করার ব্যাপারে কেন্দ্রের সবথেকে বড় বাধা ছিল বিরোধীরাই। নবীন পটনায়েকের বিজেডি এবং এআইএডিএমকের দাবি ছিল, এই বিলটিকে লোকসভার একটি নির্বাচিত কমিটির সামনে পেশ করা হোক আগে।
  2.  তিনটি ব্যাপারে আপত্তি ছিল বিরোধীদের। প্রথমটি হল এই আইনের শাস্তিটি নিয়ে। যাতে বলা হয়েছে, স্বামীর তিন বছরের জেল হবে। বিরোধীদের প্রশ্ন, আর অন্য কোনও ধর্মে বিচ্ছেদের এত 'কড়া' শাস্তি হয় না। তাহলে এক্ষেত্রে কেন? দ্বিতীয় যে ব্যাপারটি নিয়ে প্রশ্ন ছিল বিরোধীদের, তা হল, স্বামী জেলে যাওয়ার পর স্ত্রী-এর দেখভাল কে বা কারা করবে? তৃতীয় প্রশ্নটি হল, এত কড়া আইন করে কি পরিবারকে একসঙ্গে রাখা যাবে?
  3.  তিন তালাকে  স্বামীর শাস্তি হবে তিন বছরের জেল। এবং, জরিমানা। এই তিন তালাককে ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে  চিহ্নিত করার   বিরোধিতা করেছে  বিরোধী দলগুলি। 
     
  4. বিরোধীদের সমালোচনার মাঝে  পড়ে কয়েকটি পরিবর্তন করেছে কেন্দ্র। তবে  তিন বছরের জেলের বিষয়টি একই ভাবে বলবৎ থাকছে।
     
  5.  এখন থেকে  তিন তালাক পাওয়া স্ত্রী বা তাঁর নিকট আত্মীয়রা  ছাড়া  অন্য কেউ স্বামীর বিরুদ্ধে  এই মর্মে অভিযোগ করতে পারবেন না। 
     
  6.  আজ দুপুর দুটোর সময় লোকসভায় বিলটি প্রথম পেশ করেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ।  

     
  7.  গত সেপ্টেম্বর মাসে তাৎক্ষণিক তিন  তালাককে নিষিদ্ধ করেছে  কেন্দ্র। 
     
  8. গত বছর অগাস্ট মাসে সুপ্রিম  কোর্টের  সাংবিধানিক বেঞ্চ ৩-২ রায়ে তিন তালাক প্রথার অবসানের কথা জানায়।
     
  9.  ইসলামিক দেশগুলোতেও এই আইন বলবৎ নয়। অথচ, আশ্চর্য লাগছে ভেবে যে, ভারতের মতো ধর্মনিরপেক্ষ দেশ এই আইন বলবৎ করতে উঠেপড়ে লেগেছে, বলেন মীনাক্ষী লেখি।
     
  10.  "অনেকেই প্রশ্ন করেছেন এটা তো গার্হস্থ্য সমস্যা। একে অপরাধ হিসেবে দেখা হচ্ছে কেন?", বলেন স্মৃতি ইরানি


 

 





পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................