স্বামীকে কাঁধে বইছেন মহিলা, পেটাচ্ছেন অন্য পুরুষরা! কোন ‘অপরাধে’ এমন শাস্তি মহিলার?

ওই মহিলা তাঁর স্বামীকে কাঁধে চাপিয়ে অতি কষ্টে হেঁটে চলেছেন। তাঁকে ঘিরে রয়েছে উত্তেজিত গ্রামবাসীরা। নানাভাবে ওই দলের পুরুষরা মহিলাকে হেনস্থা করছেন।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
স্বামীকে কাঁধে বইছেন মহিলা, পেটাচ্ছেন অন্য পুরুষরা! কোন ‘অপরাধে’ এমন শাস্তি মহিলার?

মধ্যপ্রদেশের ঝাবুয়াতে ঘটেছে এই মধ্যযুগীয় ঘটনা


ভোপাল: 

অপরাধ? বিবাহিত হয়েও প্রেমিকের হাত ধরে বাড়ি থেকে পালিয়েছিলেন এই মহিলা। মধ্যপ্রদেশের ঝাবুয়া জেলার (Madhya Pradesh's Jhabhua district) একটি আদিবাসী প্রধান গ্রামের ওই মহিলাকে এই ‘গুরুতর' অপরাধে বেধড়ক পেটালেন গ্রামবাসীরা। এখানেই শেষ নয়, গ্রামবাসীদের শাস্তির নিদান অনুযায়ী ২৭ বছর বয়সী ওই মহিলাকে নিজের স্বামীকে কাঁধে চাপিয়ে ঘুরতেও বাধ্য করা হয়। এই মধ্যযুগীয় ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

ফল পাড়তে গিয়ে ১১০ ফুট কুয়োয় শিশু, আট ঘণ্টা ধরে চলল উদ্ধার অভিযান

শনিবার এই ঘটনার একটি ভিডিও ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে যাতে দেখা যায়, ওই মহিলা তাঁর স্বামীকে কাঁধে চাপিয়ে অতি কষ্টে হেঁটে চলেছেন। তাঁকে ঘিরে রয়েছে উত্তেজিত গ্রামবাসীরা। নানাভাবে ওই দলের পুরুষরা মহিলাকে হেনস্থার চেষ্টা করছেন। একজন বৃদ্ধ লোক মহিলার সামনে হাসতে হাসতে নাচতে থাকেন এবং অন্য একজন লাঠি দিয়ে ওই মহিলাকে পেটাতে থাকেন। স্বামীর ওজন বহন করতে করতে ক্লান্ত ওই মহিলা হাঁটতে পারছিলেন না।

পুলিশ জানিয়েছে, কয়েকদিন আগে দেবীগড়ে (Devigarh) তাঁর স্বামীর বাড়ি ছেড়ে প্রেমিকের সঙ্গে গুজরাটে পালিয়ে যান এই মহিলা। তাঁর স্বামী ও শ্বশুর দুই দিন আগে মহিলার সন্ধান পান এবং তাকে গতকালই তাঁকে দেবীগড়ে নিয়ে আসেন। গ্রামবাসীরা ওই মহিলাকে শাস্তির নিদান দেন। স্বামীকে কাঁধে চাপিয়ে বহন করতে আদেশ দেন তাঁরা; চারপাশের মানুষ ঘটনার ভিডিও করে তা হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে দেন। 

স্ত্রী, তার স্বামীর নোংরা আসক্তির জন্য বিরক্ত হয়ে পৌঁছালেন আদালতে এবং তারপর যা ঘটল...

দেবীগড়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিজয় দাওয়ার বলেন, “দশ দিন আগে ওই মহিলা বাড়ি ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন। গ্রামে ফিরে আসার পর মহিলাকে প্রায় ১০-১২ জন পুরুষ মিলে অপমান করে, ওর ওড়না ছিনিয়ে নেয়। আমরা চেষ্টা করছি এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে আর না হয়।” প্রায় ১২ জন মানুষের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

ঝাবুয়া গ্রামটি ভোপালের থেকে ৩৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। ঝাবুয়ার পুলিশ সুপার বিনীত জৈন বলেন, “একজন নারীকে প্রকাশ্যে নির্যাতন ও অপমান করা হয়েছে। এটা সত্যিই অমানবিক। আমি পুলিশ স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলেছি অতিরিক্ত বাহিনী নিয়ে সেখানে যেতে এবং ঘটনাকালে যে যে ওখানে উপস্থিত ছিলেন সকলকে পুলিশ স্টেশনে ডাকতে হবে।”



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................