This Article is From Dec 08, 2018

দুই প্রি-নার্সারি পড়ুয়ার মুখে সেলোটেপ আটকে বরখাস্ত শিক্ষিকা

দুজন প্রি-নার্সারির পড়ুয়া কথা বলছিল ক্লাসে বসে। তাদের চুপ করানোর জন্য মুখে সেলোটেপ আটকে দেওয়ার অভিযোগ উঠল  এক শিক্ষিকার বিরুদ্ধে।

দুই প্রি-নার্সারি পড়ুয়ার মুখে সেলোটেপ আটকে বরখাস্ত শিক্ষিকা

অভিযুক্ত শিক্ষিকাকে বরখাস্ত করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

গুরগাঁও:

দুজন প্রি-নার্সারির পড়ুয়া কথা বলছিল ক্লাসে বসে। তাদের চুপ করানোর জন্য মুখে সেলোটেপ আটকে দেওয়ার অভিযোগ উঠল  এক শিক্ষিকার বিরুদ্ধে। গত অক্টোবর মাসে ঘটে এই ঘটনাটি। যার ভিডিও তারপর থেকেই ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, একটি চার বছরের বাচ্চা ছেলে ও একটি চার বছর বয়সী বাচ্চা মেয়ের মুখে ক্লাস চলাকালীন সেলোটেপ আটকে দিচ্ছেন অভিযুক্ত শিক্ষিকা। ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসার পরই ওই দুই ছাত্রছাত্রীর অভিভাবকরা অভিযোগ জানান।

দূষণে দক্ষিণকে ছাপাল উত্তর কলকাতা, আবহাওয়াকে দুষল পর্ষদ

তড়িঘড়ি ওই স্কুল শিক্ষিকাকে বরখাস্ত করে দেয় কর্তৃপক্ষ। স্কুলের অধ্যক্ষ গুরুরাজ বলেন, "পড়ুয়াদের অভিভাবকদের অভিযোগের ওপর ভিত্তি করে  আমরা অবিলম্বেই ব্যবস্থা গ্রহণ করি এবং ওই শিক্ষিকাকে বরখাস্ত করে দিই"। 

বুলন্দশহরের ঘটনার জের, সরলেন জেলা পুলিশের কর্তা

অভিযুক্ত শিক্ষিকার পালটা অভিযোগ, ক্লাস চলাকালীন বিরক্ত করছিল ওই দুই ছাত্রছাত্রী। তার সঙ্গেই তারা ব্যবহার করছিল অশ্লীল ভাষাও।

 



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদিত করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে.)