সংসদে বারবার বাংলায় রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে প্রশ্নে আপত্তি জানাল তৃণমূল

অধ্যক্ষ ওম বিড়লাকে লেখা চিঠিতে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিযোগ, ৪১(xiii) –এ প্রশ্নের গ্রহণযোগ্যতা সম্পর্কিত পদ্ধতি এবং পরিচালনার নিয়ম লঙ্ঘিত হয়েছে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
সংসদে বারবার বাংলায় রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে প্রশ্নে আপত্তি জানাল তৃণমূল

সংসদে বারবার পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় আপত্তি জানাল রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস।(ফাইল ছবি)


নয়াদিল্লি: 

সংসদে বারবার পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় আপত্তি জানাল রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। এতে সংসদের নিয়ম লঙ্ঘন করার অভিযোগ তুলে তৃণমূল কংগ্রসের প্রশ্ন, কেন বারবার রাজ্য সরকারকে “টার্গেট” করা হচ্ছে ? বিষয়টি নিয়ে লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা এবং রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডুকে চিঠি দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লাকে লেখা চিঠিতে তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেন, ৪১(xiii) –এ লোকসভায় প্রশ্নের গ্রহণযোগ্যতা সম্পর্কিত পদ্ধতি এবং পরিচালনা করার নিয়ম লঙ্ঘিত হয়েছে। ৪১ ধারা অনুযায়ী, “উত্তর দেওয়া কোনও প্রশ্ন দ্বিতীয়বার করা যায় না”।

কলকাতা মেট্রোর ঘটনায় লোকসভায় মুলতুবি প্রস্তাব তৃণমূলের

ওম বিড়লাকে লেখা চিঠিতে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছে, “২০১৯ লোকসভা ভোটের সময় রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে তিনটি প্রশ্ন মেনে নেওয়া হয়েছে...১০দিনে রাজ্য সরকারকে ১০টি অ্যাডভাইজারি পাঠানো হয়েছে। এটি সংসদীয় গণতন্ত্রের হত্যা। এইভাবে কেন বাংলার সরকারকে টার্গেট করা হচ্ছে ? আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ করছি, এবং আপনাকে বিষয়টি দেখার অনুরোধ করছি”।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার ও তৃণমূল নেত্রীকে নিশানা করছে কেন্দ্র; অভিযোগ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের

রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডুককে চিঠি লিখেছেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন। চিঠিতে তিনি লিখেছেন, এই বিষয়টি চারটি প্রশ্ন নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, “বিভিন্নভাবে বারবার সংসদে একই প্রশ্ন করা হচ্ছে, সাধারণত একই প্রশ্ন সংসদে বারবার করা যায় না। তবে এবারের অধিবেশনে বারবার বিভিন্নভাবে পশ্চিমবঙ্গের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে”।

সংসদের বাইরে ফুটবল খেলে অভিনব প্রতিবাদ তৃণমূল সাংসদের

লোকসভা নির্বাচনের আবহে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত হিংসা ও হানাহানির ঘটনা ঘটেছে। এমনকী, প্রাণহানিও হয়েছে। সাত দফায় লোকসভা নির্বাচন এবং তারপরেও, রাজ্যে হিংসার ঘটনা নিয়ে এর আগে কেন্দ্রীয় সরকার অ্যাডভাইজারিও পাঠিয়েছে। দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে রাজ্য সরকার কী ব্যবস্থা নিচ্ছে, তা জানতে চেয় কেন্দ্রের তরফে অ্যাডভাইজারিও পাঠানো হয়েছে। যদিও রাজ্যের তরফে জানানো হয়েছে, কেয়কটি জায়গায় বিক্ষিপ্ত অশান্তির ঘটনা ঘটেছে, তবে এখন পরিস্থিতি শান্ত।

''এত লোভ কিসের": কর্ণাটক সমস্যা নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা

সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে এ রাজ্যে গতবারের চেয়ে আসন কমেছে তৃণমূল কংগ্রেসের। অন্যদিকে আসন বাড়িয়েছে বিজেপি। ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে এ রাজ্যে ৩৪টি আসন পেয়েছিল জোড়াফুল শিবির, অন্যদিকে, গেরুয়া শিবির জয়ী হয়েছিল ২টি আসনে। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে ২২টি আসনে জয় পেয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস, ১৮টি আসনে পাপড়ি মেলেছে পদ্মফুল।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)


পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

Quick Links
PNR Status

................................ Advertisement ................................