বিজেপির টিপু জয়ন্তী বাতিলের সিদ্ধান্তকে পুনর্বিবেচনা করতে বলল আদালত

অষ্টাদশ শতাব্দীতে মহীশূরের শাসক ছিলেন টিপু সুলতান। তাঁর জন্মবার্ষিকী পালিত হয় টিপু জয়ন্তী হিসেবে।

বিজেপির টিপু জয়ন্তী বাতিলের সিদ্ধান্তকে পুনর্বিবেচনা করতে বলল আদালত

টিপু জয়‌ন্তী বাতিল করার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে বলল কর্নাটক হাই কোর্ট।

বেঙ্গালুরু:

কর্নাটক হাই কোর্ট (Karnataka High Court) রাজ্যের বিজেপি (BJP) সরকারকে টিপু জয়‌ন্তী বাতিল করার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে বলল। অষ্টাদশ শতাব্দীতে মহীশূরের শাসক ছিলেন টিপু সুলতান। তাঁর জন্মবার্ষিকী পালিত হয় টিপু জয়ন্তী হিসেবে। কংগ্রেস-জনতা দল জোটের হাত থেকে রাজ্যের শাসন ক্ষমতা দখল করেছে গেরুয়া শিবির। তারপরই বিএস ইয়েদুরাপ্পার এই সিদ্ধান্ত। এর বিরোধিতা করে পিটিশন জমা পড়েছিল আদালতে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে এই নির্দেশ দিল কর্নাটক হাই কোর্ট। হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি অভয় শ্রীনিবাস ওকা ও বিচারপতি এসআর কৃষ্ণকুমারের বেঞ্চ জানিয়েছে, ‘‘এক অন্তর্বর্তী নির্দেশে, আমরা রাজ্য সরকারকে ৩০ জুলাই নেওয়া সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার কথা জানাচ্ছি। আজ থেকে দু'মাস আগে এ ব্যাপারে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে বলেছিলাম আমরা।''

এই সিদ্ধান্ত যে একদিনের মধ্যে নেওয়া হয়েছে, সেটাও লক্ষ করেছে আদালত। এবং তখনও রাজ্যে মন্ত্রিসভা গঠিতই হয়নি বিজেপির নেতৃত্বে। আদালত এপ্রসঙ্গে জানিয়েছে, ‘‘দেখে মনে হচ্ছে এই সিদ্ধান্ত ইচ্ছামতো নেওয়া হয়েছে।'' প্রসঙ্গত টিপু জয়ন্তী পালিত হয় ১০ নভেম্বর।

এর আগে কংগ্রেস-জনতা দল সরকারের ক্ষমতায় থাকার সময় বিজেপি টিপু জয়ন্তী পালনের প্রতিবাদ করেছে। তাদের দাবি ছিল, এসবই সংখ্যালঘু তোষণের কারমে করা হচ্ছে। কিন্তু কংগ্রেস ও জনতা দলের পক্ষে জানানো হয়েছিল, এই মুসলিম শাসক একজন দেশভক্ত ছিলেন। উনি ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছিলেন। কিন্তু বিজেপির বক্তব্য, টিপু সুলতান একজন অত্যাচারী শাসক ছিলেন। তিনি হিন্দুদের শোষণ করেছিলেন।

এরই পাশাপাশি স্কুলের পাঠ্যবই থেকেও টিপু সুলতানের প্রসঙ্গ বাদ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন বিএস ওয়াইদুরাপ্পা। এই সিদ্ধান্তেরও প্রতিবাদ করেছেন ঐতিহাসিকরা ও বিরোধী নেতারা।

More News